বাংলা নিউজ > ময়দান > ঘামঝরানো জয় স্পেনের, শেষ মুহূর্তে গোল, চার্লটনকে স্পর্শ করে দলকে জয় 'উপহার' কেইনের
জয় স্পেনের (REUTERS)

ঘামঝরানো জয় স্পেনের, শেষ মুহূর্তে গোল, চার্লটনকে স্পর্শ করে দলকে জয় 'উপহার' কেইনের

  • বিরতির পর জয়সূচক গোলটি করেন অধিনায়ক কেইন।

শুভব্রত মুখার্জি: সুইজারল্যান্ডকে হারিয়ে নিজেদের অপরাজিত যাত্রা অব্যাহত রাখতে সমর্থ হল গ্যারেথ সাউথগেটের দল। লন্ডনের ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে শনিবার আন্তর্জাতিক ফ্রেন্ডলি ম্যাচটি ২-১ গোলে জিতল স্বাগতিকরা। ব্রিল এমবোলো সফরকারীদের এগিয়ে দিয়েছিলেন ম্যাচে। প্রথমার্ধেই ব্রিটিশদের হয়ে সমতা ফেরান লুক শ। বিরতির পর জয়সূচক গোলটি করেন অধিনায়ক কেইন।

এই গোলটি করে ইংল্যান্ডকে জয় উপহার দিয়ে ইংল্যান্ডের হয়ে সর্বাধিক গোলস্কোরাদের তালিকায় গ্যারি লিনেকারকে (৪৮) পিছনে ফেলে স্যার ববি চার্লটনের (৪৯) স্পর্শ করলেন ২৮ বছর বয়সি ফরোয়ার্ড হ্যারি কেইন। তাদের উপরে রয়েছেন একমাত্র ওয়েন রুনি (৫৩)।

প্রসঙ্গত গত নভেম্বরে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের শেষ রাউন্ডে সান ম্যারিনোকে ১০-০ গোলে হারিয়ে কাতার বিশ্বকাপের টিকিট নিশ্চিত করেছিল ইংল্যান্ড। ২২তম মিনিটে এগিয়ে গিয়েছিল সুইজারল্যান্ড। জার্দান শাকিরির অনবদ্য ক্রসে ছয় গজ বক্সের মুখে হেডে গোলটি করেন ফরোয়ার্ড এমবোলো। প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে সমতায় ফেরে ইংল্যান্ড। প্রতিপক্ষের ভুলে বল পেয়ে ওয়াকার-পিটার্স বল বাড়ান গালাঘারকে। মিডফিল্ডারের পাস ধরে ২০ গজ দূর থেকে বাঁ পায়ের শটে গোলের ঠিকানা খুঁজে নেন শ।

বিরতিতে স্কোর ছিল ১-১। দ্বিতীয়ার্ধে ৭৭ মিনিটে পেনাল্টি পায় কেইন। ৭৮তম মিনিটে সফল স্পট কিকে দলকে এগিয়ে দেন কেইন। ভিএআরের সাহায্য নিয়ে পেনাল্টিটি দিয়েছিলেন রেফারি। অবশেষে ২-১ ফলে ম্যাচ জেতে ইংল্যান্ড।

অন্যদিকে দীর্ঘ চার মাসের বেশি সময় পর মাঠে নেমে নিজেদের সেরাটা মেলে ধরতে পারল না স্পেন। তুলনামূলক দুর্বল আলবেনিয়ার বিপক্ষে রীতিমতো হোচট খেতে হল তাদের। ম্যাচের শেষদিকে দুর্দান্ত এক গোলে স্পেনের দুশ্চিন্তা দূর করলেন ড্যানি ওলমো। ফলে স্বস্তির জয় পেয়ে মাঠ ছাড়ল প্রাক্তন বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। আরসিডিই স্টেডিয়ামে শনিবার রাতে আন্তর্জাতিক ফ্রেন্ডলি ম্যাচে ২-১ গোলে জিতল লুইস এনরিকের দল। ফেররান টরেসের গোলে স্পেন এগিয়ে গিয়েছিল। ম্যাচে পরবর্তীতে সমতা ফেরান উইজনি। স্বাগতিকদের হয়ে জয়সূচক গোলটি করেন ওলমো।

ম্যাচে ৮০ শতাংশের বেশি বল পজিশন রেখে আক্রমণে একচেটিয়া আধিপত্য রেখেছিল ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ের সাত নম্বরে থাকা স্পেন। গোলের লক্ষ্যে তারা ১৩টি শট নেয় যার মধ্যে ৭টি ছিল লক্ষ্যে। আলবেনিয়া মাত্র তিনটি শট লক্ষ্যে রাখতে সমর্থ হয়। যার মধ্যে থেকে তারা একটি গোল করতে সমর্থ হয়েছিল। ম্যাচের ৭৫তম মিনিটে এগিয়ে যায় স্পেন। ইয়েরেমি পিনোর পাস ডি-বক্সে পেয়ে এগিয়ে আসা ডিফেন্ডারের বাধা এড়িয়ে জোরাল শটে গোলের ঠিকানা খুঁজে নেন ফেররান। ১০ মিনিট পর কিছুটা ভাগ্যের জোরে সমতায় ফেরে আলবেনিয়া। ডিফেন্ডার পাও টরেস বল ক্লিয়ার করতে হেড করেন, পাশেই ছুটে আসা উইঙ্গার উইজনির মাথায় লেগে বল চলে যায় নিজেদের জালে। নির্ধারিত সময়ের শেষ মিনিটে জর্ডি আলবার পাস ধরে ডি-বক্সে ঢুকে ডান পায়ের জোরাল উঁচু শটে দূরের পোস্ট দিয়ে গোলের লক্ষ্যভেদ করেন লাইপজিগের অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার ওলমো। ফলে শেষ পর্যন্ত রীতিমতো ঘাম ঝরিয়ে আলবেনিয়ার বিরুদ্ধে জিততে হল স্পেনকে।

বন্ধ করুন