বাংলা নিউজ > ময়দান > IND vs NZ: ব্যাট, বল সবেতেই গোল্লা, মুম্বইয়ে বুমরাহদের লজ্জাজনক তালিকায় নাম লেখালেন সাউদি
ওয়াংখেড়েতে বল হাতে টিম সাউদি। ছবি- এএনআই। (ANI)

IND vs NZ: ব্যাট, বল সবেতেই গোল্লা, মুম্বইয়ে বুমরাহদের লজ্জাজনক তালিকায় নাম লেখালেন সাউদি

  • টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে সাউদি বাদে মাত্র পাঁচজন এই অবাঞ্ছিত তালিকায় রয়েছেন।

মুম্বইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে ভারতের কাছে ৩৭২ রানে পর্যদুস্ত হতে হয়েছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলকে। আজাজ প্যাটেল ছাড়া গোটা ম্যাচে কোনো কিউয়ি তারকা তেমনভাবে দাগ কাটতে ব্যর্থ হয়েছেন। ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের দুর্দাশা হয়তো স্রেফ টিম সাউদির এই ম্য়াচে পরিসংখ্যান দেখলেই স্পষ্ট হয়ে যায়।

কিউয়ি দলের সবচেয়ে ভরসাযোগ্য বোলার তথা অভিজ্ঞতম ক্রিকেটারদের মধ্যে সামিল সাউদি। কানপুরে প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে লম্বা স্পেলে ভারতীয় ব্যাটিং লাইন আপে ধ্বস নামানোর পর তুলনামূলক পেস বোলিং সহায়ক ওয়াংখেড়েতে সাউদির থেকে বড় প্রত্যাশা ছিল নিউজিল্যান্ডের। তবে গোটা ম্যাচটাই যেন দুঃস্বপ্নের মতো কাটল তাঁর। ব্যাট হাতে দুই ইনিংসে দ্বিতীয় বলে শূন্য রানে আউট তো হলেনই, পাশপাশি বল হাতেও সাউদির ভাগ্যে ম্যাচে একটিও উইকেটও জুটল না।

এমন পারফরম্যান্সে এক অবাঞ্ছিত তালিকায় নাম তুলে ফেললেন কিউয়ি তারকা। টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে মাত্র ষষ্ঠ ক্রিকেটার হিসেবে দুই বিভাগেই (অন্তত ১০ ওভার বল করার পর) গোল্লা জুটল সাউদির কপালে। বিস্ময়কর হলেও এই তালিকায় ছয় জনের মধ্যে তিনজনেই এই বছরই এই অযাচিত তালিকায় নিজেদের নাম তুলেছেন। প্রসঙ্গত, বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালে জসপ্রীত বুমরাহও একই ঘটনার সাক্ষী ছিলেন। বুমরাহ ব্যতীত রয় কাইয়াও বাংলাদেশের বিরুদ্ধে এ বছরই একই কান্ড ঘটান।

মুম্বইয়ের ওয়াংখেড়েতে ভারতের কাছে ৩৭২ রানে পর্যদুস্ত হয়েছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল। আজাজ প্যাটেল ছাড়া গোটা ম্যাচে কোনো কিউয়ি তারকা তেমন প্রভাব ফেলতে ব্যর্থ হয়েছেন। ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের দুর্দাশা হয়তো স্রেফ টিম সাউদির এই ম্য়াচে পরিসংখ্যান দেখলেই স্পষ্ট হয়ে যায়।

কিউয়ি দলের সবচেয়ে ভরসাযোগ্য বোলার তথা অভিজ্ঞতম ক্রিকেটারদের মধ্যে সামিল সাউদি। কানপুরে প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে লম্বা স্পেলে ভারতীয় ব্যাটিং লাইন আপে ধ্বস নামানোর পর তুলনামূলক পেস বোলিং সহায়ক ওয়াংখেড়েতে সাউদির থেকে বড় প্রত্যাশা ছিল নিউজিল্যান্ডের। তবে গোটা ম্যাচটাই যেন দুঃস্বপ্নের মতো কাটল তাঁর। ব্যাট হাতে দুই ইনিংসে দ্বিতীয় বলে শূন্য রানে আউট তো হলেনই, পাশপাশি বল হাতেও সাউদির ভাগ্যে ম্যাচে একটিও উইকেটও জুটল না।

এমন পারফরম্যান্সে এক অবাঞ্ছিত তালিকায় নাম তুলে ফেললেন কিউয়ি তারকা। টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে মাত্র ষষ্ঠ ক্রিকেটার হিসেবে দুই বিভাগেই গোল্লা জুটল সাউদির কপালে। বিস্ময়কর হলেও এই তালিকায় ছয় জনের মধ্যে তিনজনেই এই বছরই এই অযাচিত তালিকায় নিজেদের নাম তুলেছেন। প্রসঙ্গত, বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালে জসপ্রীত বুমরাহও একই ঘটনার সাক্ষী ছিলেন। বুমরাহ ব্যতীত রয় কাইয়াও বাংলাদেশের বিরুদ্ধে এ বছরই একই কান্ড ঘটান।|#+| 

বন্ধ করুন