বাংলা নিউজ > ময়দান > PAK vs WI: ক্যাচ আউট হওয়া ব্যাটারকেই DRS-এ দেখানো হল নন-স্ট্রাইকার এন্ডে? বিতর্ক পাকিস্তানে
(বাঁ-দিকে) ডিআরএসে এই ছবি দেখানো হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। (ডানদিকে) শাহিন আফ্রিদির বল। যে বলে আউট হন কাইল মেয়ার্স। (ছবি সৌজন্যে টুইটার এবং পিসিবি ইউটিউব)

PAK vs WI: ক্যাচ আউট হওয়া ব্যাটারকেই DRS-এ দেখানো হল নন-স্ট্রাইকার এন্ডে? বিতর্ক পাকিস্তানে

PAK vs WI DRS controversy: মুলতানে প্রথম একদিনের ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে পাঁচ উইকেটে হারিয়ে দিয়েছে পাকিস্তান। সেইসব ছাপিয়ে ডিআরএস বিতর্ক মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। নেটিজেনদের একাংশের দাবি, প্রথম ইনিংসে কাইল মায়ার্স আউট কিনা দেখার সময় ডিআরএসে বড়সড় ভুল হয়েছে। 

ডিসিশন রিভিউ সিস্টেম (ডিআরএস) বিতর্ক শুরু হল পাকিস্তান বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে। শাহিন আফ্রিদির বলে রিভিউয়ের সময় অপর একটি বলের ছবি দেখানো হয়েছে বলে অভিযোগ উঠল। যদিও বিষয়টি নিয়ে আইসিসি বা পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) তরফে কোনও মন্তব্য করা হয়নি।

বুধবার মুলতানে প্রথম একদিনের ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে পাঁচ উইকেটে হারিয়ে দিয়েছে পাকিস্তান। সেইসব ছাপিয়ে ডিআরএস বিতর্ক মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। নেটিজেনদের একাংশের দাবি, প্রথম ইনিংসে কাইল মায়ার্স আউট কিনা দেখার সময় ডিআরএসে বড়সড় ভুল করা হয়েছে। রিভিউয়ের একটা সময় অন্য ছবি ব্যবহার করা হয়েছে বলে দাবি করেন নেটিজেনদের একাংশ।

কী হয়েছিল ঘটনাটি?

বুধবার মায়ার্সকে ‘কট অ্যান্ড বোল্ড’ আউট করেন শাহিন। তবে বল মাটিতে ঠেকে গিয়েছিল কিনা, তা নিয়ে নিশ্চিত ছিলেন না অনফিল্ড আম্পায়ার। সেজন্য তৃতীয় আম্পায়ারের কাছে রিভিউয়ের আবেদন করা হয়। তাতে দেখা যায়, মায়ার্সের ব্যাটে বল লেগেছে। বল মাটিতেও ঠেকেনি। স্বভাবতই আউট হয়ে যান মায়ার্স। 

তবে নেটিজেনদের অভিযোগ, রিভিউয়ের একটা সময় (বোলারের পা ক্রিজের ভিতরে ছিল কিনা দেখার সময়) অন্য ছবি ব্যবহার করা হয়। তাঁরা সেই ছবি (সত্যতা যাচাই করেনি হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা) পোস্ট করে দাবি করেন, আসলে ‘ওভার দ্য উইকেট’ বল করেছিলেন শাহিন। কিন্তু রিভিউয়ের একটি ফ্রেমে দেখানো হয় যে শাহিন উলটো দিক থেকে অর্থাৎ 'রাউন্ড দ্য উইকেট' বল করছেন। শুধু তাই নয়, যে মার্য়াসের ‘কট অ্যান্ড বোল্ড’-র জন্য রিভিউ নেওয়া হয়, তাঁকে একটি ফ্রেমে নন-স্ট্রাইকিং এন্ডে দেখা যায় মায়ার্সকে। যে মার্য়াসই ক্যাচ আউট হয়েছেন কিনা, তা রিভিউয়ে দেখা হচ্ছিল।

যদিও বিষয়টি নিয়ে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থা আইসিসি, পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড বা সরকারি সম্প্রচারকারী সংস্থার তরফে কোনও মন্তব্য করা হয়নি। একাংশের ধারণা, যেহেতু মায়ার্সের আউট নিয়ে কোনও সন্দেহ ছিল, তাই বিষয়টি তেমন বড় বিতর্ক হয়নি।

বন্ধ করুন