বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মন্ত্রী প্যানেল বাতিল করলেও নিয়োগ হয়েছে একাধিক পদে, চুঁচুড়ায় ফের উঠল অভিযোগ
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

মন্ত্রী প্যানেল বাতিল করলেও নিয়োগ হয়েছে একাধিক পদে, চুঁচুড়ায় ফের উঠল অভিযোগ

  • অভিযুক্ত পুরকর্মীদের দাবি, তাঁরা ২৩ মার্চ নিয়োগপত্র পেয়েছেন। ওই দিনই লকডাউন শুরু হয়েছিল গোটা দেশে। লকডাউনের প্রথম দিন কী করে অন্য জেলা থেকে তাঁরা চুঁচুঁড়া এলেন তা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন বিক্ষোভকারীরা।

মন্ত্রী প্যানেল বাতিল করার পরেও পুরসভায় হয়েছে নিয়োগ। এমনই অভিযোগে বৃহস্পতিবার চুঁচুড়া পুরভবনের সামনে বিক্ষোভ দেখালেন অস্থায়ী কর্মীরা। বিক্ষোভকারীদের দাবি, পুরমন্ত্রী নিয়োগ বাতিলের পরেও দুর্নীতি করে চাকরি পাওয়া ব্যক্তিরা কাজ করে চলেছেন। 

অভিযোগ, বাতিল হওয়া প্যানেলের অন্তত ৪ জন সদস্য পুরসভায় নিয়মিত কাজ করছেন। শুধু তাই নয়, পুরসভার কমিউনিটি হলে তাদের থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করেছে পুরসভাই। এমনকী তারা এলাকার লোক নন বলেও দাবি বিক্ষোভকারীদের। মুর্শিদাবাদ-সহ অন্যান্য জেলা থেকে এসে সেখানে কাজ করছেন ওই চার ব্যক্তি। 

অভিযুক্ত পুরকর্মীদের দাবি, তাঁরা ২৩ মার্চ নিয়োগপত্র পেয়েছেন। ওই দিনই লকডাউন শুরু হয়েছিল গোটা দেশে। লকডাউনের প্রথম দিন কী করে অন্য জেলা থেকে তাঁরা চুঁচুঁড়া এলেন তা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন বিক্ষোভকারীরা। তাদের দাবি, মন্ত্রী নিয়োগ বাতিল করলেও কী করে তাঁরা কাজে যোগ দিলেন?

বিক্ষোভকারীদের দাবি, পুরনো তারিখে নিয়োগপত্র দিয়ে যোগদান করানো হয়েছে এই কর্মীদের। যদিও অভিযোগ মানতে চাননি স্থানীয় তৃণমূল বিধায়ক। 

চুঁচুঁড়া পুরসভার পিওন ও মজদুর পদে নিয়োগে ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে প্রশাসনিক বোর্ডের বিরুদ্ধে। অভিযোগ, পুরসভায় নিয়োগ পেয়েছেন তৃণমূল বিদায়ী কাউন্সিলর ও তাদের ঘনিষ্ঠরা। এই নিয়ে বিরোধীদের বিক্ষোভের মুখে নিয়োগপ্রক্রিয়া বাতিল করেন পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। 

 

বন্ধ করুন