বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > একশো দিনের বকেয়া টাকা কেন দেওয়া হচ্ছে না?‌ রাজ্যপালের পথ আটকালেন মহিলারা

একশো দিনের বকেয়া টাকা কেন দেওয়া হচ্ছে না?‌ রাজ্যপালের পথ আটকালেন মহিলারা

দু’পাশে প্ল্যাকার্ড হাতে দাঁড়িয়ে মহিলারা।

গ্রামবাসীদের অবরোধের মুখে রাজ্যপালের কনভয় পড়তেই তিনি ক্ষোভ বুঝতে পারেন। বেশ কিছুক্ষণ আটকে ছিলেন রাজ্যপাল। পুলিশের হস্তক্ষেপে সেখান থেকে নিরাপদে বেরিয়ে যায় রাজ্যপালের কনভয়। রাজ্য সরকারের থেকে সবিস্তার রিপোর্টও তলব করেছেন রাজ্যপাল। বিষয়টি নিয়ে কথা বলেছেন কেন্দ্রীয় সশস্ত্র পুলিশ বাহিনীর কর্তাদের সঙ্গে।

কলকাতায় ফিরে সন্দেশখালির উদ্দেশে রওনা দেন রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোস। কিন্তু সেখানে যাওয়ার পথে ১০০ দিনের কাজের বকেয়া মেটানোর দাবিতে আটকে গেল তাঁর গাড়ি। কারণ রাস্তার দু’পাশে প্ল্যাকার্ড হাতে দাঁড়িয়ে ছিলেন মহিলারা। তাঁদের দাবি, আগে ১০০ দিনের বকেয়া মজুরির ব্যবস্থা করুন রাজ্যপাল। বাসন্তী হাইওয়ে ধরে তাঁর যাওয়ার পথে রাজবাড়ি, সরবেড়িয়া, আকুঞ্জি পাড়া, মিনাখাঁ–সহ একাধিক জায়গায় প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে দাঁড়িয়ে পড়েন মহিলারা। তুমুল বিক্ষোভে সরগরম হয়ে ওঠে এলাকা। তবে পুলিশ গাড়ি বের করে দিতে তৎপর হয়। তবে কালো পতাকা, প্ল্যাকার্ড নিয়ে রাস্তার ধারে বিক্ষোভ দেখালেন মহিলারা। তার ফলে বেশ কিছুক্ষণ আটকে পড়েন রাজ্যপাল।

এদিকে এই প্ল্যাকার্ডে ১০০ দিনের কাজের টাকা, আবাস যোজনার বকেয়া টাকা কেন দেওয়া হচ্ছে না?‌ তা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়। তার জেরে অবরোধ বিক্ষোভে বাসন্তী হাইওয়েতে বামনপুকুর বাজারের কাছে রাজ্যপালের কনভয় বেশ কিছুক্ষণ আটকে পরে। তৎক্ষণাৎ পরিস্থিতির নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে পুলিশ। বিক্ষোভরত মহিলাদের হটিয়ে দেওয়া হয়। রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোসের কনভয় আবার রওয়া হয় সন্দেশখালি রওনা হয়। বিক্ষোভ করার সময় রাজ্যপালের কনভয়ের সামনে চলে যান মহিলারা। যার জেরে আনন্দ বোসের কনভয় থেমে যায়। পাঁচ মিনিট রাস্তায় আটকেও ছিল কনভয়। পরে পুলিশের হস্তক্ষেপে বেরিয়ে যান রাজ্যপাল।

অন্যদিকে আজ বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর নেতৃত্বে সন্দেশখালি যাচ্ছেন বিজেপি বিধায়করা। ইতিমধ্যেই সেখানে গিয়েছেন রাজ্য মহিলা কমিশনের প্রতিনিধিরাও। বেলা ১২টা নাগাদ ধামাখালি পৌঁছন রাজ্যপাল। সেখানে অল্প বিরতি নেন। আজ, সোমবার যে তিনি সন্দেশখালির পরিস্থিতি দেখতে যাবেন সেটা রবিবার রাতেই জানান রাজ্যপাল। তবে সন্দেশখালি যাওয়ার আগে কলকাতায় বলেন, ‘‌কেরলের গুরুত্বপূর্ণ কাজ ছেড়ে এসেছি। সন্দেশখলিতে আমার নজর ছিল। আজ নিজে যাচ্ছি। সরেজমিনে পরিদর্শন করব।’‌ সন্দেশখালি কাণ্ডে রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোসকে পদক্ষেপ করার জন্য ২৪ ঘণ্টা সময়সীমা বেঁধে দেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। তার পরেই রবিবার কেরল সফর কাটছাঁট করে রাজ্যে ফিরে সন্দেশখালি যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন রাজ্যপাল।

আরও পড়ুন:‌ ফেব্রুয়ারি মাসেই অমিত শাহের বাংলা সফর, বড় পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছে বিজেপি

এছাড়া গ্রামবাসীদের অবরোধের মুখে রাজ্যপালের কনভয় পড়তেই তিনি ক্ষোভ বুঝতে পারেন। বেশ কিছুক্ষণ আটকে ছিলেন রাজ্যপাল। পরে পুলিশের হস্তক্ষেপে সেখান থেকে নিরাপদে বেরিয়ে যায় রাজ্যপালের কনভয়। রাজ্য সরকারের থেকে সবিস্তার রিপোর্টও তলব করেছেন রাজ্যপাল। বিষয়টি নিয়ে কথা বলেছেন কেন্দ্রীয় সশস্ত্র পুলিশ বাহিনীর কর্তাদের সঙ্গে। সন্দেশখালির ঘটনা নিয়ে রাজ্যপালের সঙ্গে কেন্দ্রীয় সরকারের মুখ্য ভিজিল্যান্স কমিশনারেরও আলোচনা হয়েছে বলে সূত্রের খবর।

বাংলার মুখ খবর
বন্ধ করুন

Latest News

BCCI-এর চোখ রাঙানিতে DY Patil T20 Cup-এ প্রত্যাবর্তন করলেও, নিরাশ করলেন ইশান অর্পিতাকে চিনি, তাঁর সঙ্গে আমার যোগাযোগ ব্যবসায়িক, আদালতে দাবি করলেন পার্থ দু বছরের শিশু কন্যাকে ছিঁড়ে খেল কুকুরের দল, এক পশুপ্রেমী ওদের খেতে দিত রোজ… জার্মানির শিল্পীর কণ্ঠে 'অচ্যুতম কেশবম..', মুগ্ধ মোদী দিলেন তাল 'শুধু যোগগুরুই', পতঞ্জলির কোনও পদেই নেই রামদেবের, SC-তে হাওয়া বেগতিক দেখে দাবি ‘‌বাংলা ভিখারি নয়, কাউকে ভিক্ষা করতে হবে না’‌, হকের টাকা নিয়ে তোপ মমতার জেলের ভাতে ‘রুচি নেই’, বিরিয়ানি-চাউমিন চান কোন্নগর শিশুহত্যায় ধৃত শান্তা-পারভিন সব বিপক্ষে চলে যাচ্ছে দেখে এখন শাহজাহানকে গ্রেফতারের কথা বলছে: নিরাপদ সরদার খুন হওয়া গায়ক মুসেওয়ালার মা অন্তঃসত্ত্বা, খবর সামনে আসতেই হত্যার চেষ্টা ঘনিষ্ঠকে বিপদে পড়া হাতি- বাঘেদেরও উদ্ধার করবে রিলায়েন্স, পুনর্বাসনের জন্য জঙ্গলও রেডি

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.