বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > লকডাউনে গার্ডরেলে ঘিরল বারাসত স্টেশন, যাত্রা–স্বাচ্ছন্দ্যে চলমান সিঁড়ি, লিফট
বারাসত জংশন স্টেশন
বারাসত জংশন স্টেশন

লকডাউনে গার্ডরেলে ঘিরল বারাসত স্টেশন, যাত্রা–স্বাচ্ছন্দ্যে চলমান সিঁড়ি, লিফট

  • ব্যস্ততম এই স্টেশনের সর্বত্র ছাউনি ছিল না। বৃষ্টি এলে সমস্যায় পড়তে হত যাত্রীদের। সেই কথা মাথায় রেখে পুরো স্টেশন জুড়ে বসানো হচ্ছে ছাউনি।

লকডাউনে গত প্রায় ৮ মাস ধরে পশ্চিমবঙ্গে বন্ধ লোকাল ট্রেন পরিষেবা। আর এই সময়টাকে কাজে লাগিয়ে হাওড়া, শিয়ালদহর মতো ব্যস্ত স্টেশনগুলি যাত্রীহীন থাকার সুযোগে সেজে উঠেছে। বিশ্বমানের সমস্ত সুযোগ–সুবিধা পাওয়া যাবে ওই স্টেশনগুলি থেকে। এবার একইভাবে ভোলবদলে আমূল পরিবর্তন হচ্ছে বারাসত স্টেশনের। যাত্রীদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে ফুট ওভারব্রিজ, চলমান সিঁড়ির পাশাপাশি প্রবীণদের জন্য লিফটও তৈরি হচ্ছে উত্তর ২৪ পরগনার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বারাসত স্টেশনে।

বারাসত স্টেশন সাজিয়ে তুলতে খরচ করা হচ্ছে ৫ কোটি টাকা। এর বাইরে রয়েছে নির্মাণের খরচ। সমস্ত কাজ শেষ হতে আরও কিছু দিন লাগবে বলে জানা গিয়েছে। আর কী কী হচ্ছে বারাসত স্টেশনে?‌ ব্যস্ততম এই স্টেশনের সর্বত্র ছাউনি ছিল না। বৃষ্টি এলে সমস্যায় পড়তে হত যাত্রীদের। সেই কথা মাথায় রেখে পুরো স্টেশন জুড়ে বসানো হচ্ছে ছাউনি। পূর্ব রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক নিখিল চক্রবর্তী জানিয়েছেন, অকারণ অনেকে স্টেশনে ঢুকে পড়ে। তাতে যেমন ভিড় বাড়ে তেমনই নানা সমস্যা দেখা দেয়। সেই প্রবণতা আটকাতে গার্ডরেল দিয়ে ঘিরে দেওয়া হচ্ছে বারাসত স্টেশন। অবৈধ নির্মাণ ভেঙে লাগানো হচ্ছে গার্ডরেল।

এদিকে, বারাসত স্টেশনে জোরকদমে চলছে সৌন্দর্যায়নের কাজ। কলকাতার ঐতিহ্যপূর্ণ স্থান, মনীষীদের ছবি আঁকার কাজ চলছে দেওয়ালে দেওয়ালে। ১ নম্বর থেকে ৫ নম্বর প্ল্যাটফর্ম পর্যন্ত চলমান সিঁড়ি তৈরির কাজও প্রায় শেষ। গার্ডরেল দিয়ে স্টেশন ঘিরে ফেলার এই উদ্যোগে লাইন পারাপারের জন্য দুর্ঘটনার সম্ভাবনাও কমবে বলে মনে করা হচ্ছে। এখনও অনেক কাজ বাকি থাকলেও বুধবার থেকে ট্রেন চলাচল ফের শুরু হলে নতুন কাজকর্মের বেশ কয়েকটি সুবিধা পাবেন যাত্রীরা। স্বাভাবিকভাবেই রেলের এই উদ্যোগে খুশি তাঁরা।

বন্ধ করুন