বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Paresh Adhikari: ‘মন্ত্রিত্ব গেলেও এখনও বিধায়ক রয়েছি’ দলীয় কর্মীদের বার্তা পরেশ অধিকারীর
পরেশ অধিকারী। (ফাইল ছবি, সৌজন্যে ফেসবুক)

Paresh Adhikari: ‘মন্ত্রিত্ব গেলেও এখনও বিধায়ক রয়েছি’ দলীয় কর্মীদের বার্তা পরেশ অধিকারীর

  • তিনি জানান, আগামী দিনেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরামর্শ মেনে চায়ের দোকানে আড্ডা দেওয়া থেকে শুরু করে গ্রামে ঘুরে ঘুরে জনসংযোগ বাড়াবেন। এর পাশাপাশি আরও কীভাবে জন সংযোগ বাড়ানো যায় তা নিয়ে তিনি পরিকল্পনা করছেন বলে জানিয়েছেন।

শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতিতে অভিযুক্ত পরেশ অধিকারী মন্ত্রিত্ব খুঁইয়েছেন। তবে তাতে যে তাঁর আফসোস নেই তা নিজের বক্তব্যের মাধ্যমেই তিনি বুঝিয়ে দিলেন। বৃহস্পতিবার জনসমক্ষে পরেশ অধকারী দলীয় কর্মীদের বার্তা দিলেন, মন্ত্রিত্ব গিয়েছে তো কী হয়েছে! বিধায়ক তো এখনও রয়েছি।’ গতকাল মেখলিগঞ্জে একটি কর্মীসভার আয়োজন করে তৃণমূল কংগ্রেস। সেখানে এ কথা বলেন পরেশ অধিকারী।

তিনি বলেন, ‘মন্ত্রিত্ব গেলেও বিধায়ক পদ যায়নি। বিধায়ক হিসেবে ২০২৬ সাল পর্যন্ত আপনাদের আশীর্বাদে আমি আপনাদের পাশে থাকব। বিধায়ক পদ আপনারা দিয়েছেন আমি আপনাদের সঙ্গে আছি। কোনও চিন্তা করবেন না।’ এর পাশাপাশি এদিনের সভায় পঞ্চায়েত ভোট নিয়েও কর্মীদের বার্তা দেন পরেশ অধিকারী। তিনি পঞ্চায়েত ভোটের লক্ষ্যে কর্মীদের কাজ করার বার্তা দেন। শুধু তাই নয়, কর্মী সভার আগে তিনি চাষীদের সঙ্গেও কথা বলেন। উল্লেখ্য, বুধবার রাজ্য মন্ত্রিসভার রদবদলে মেখলিগঞ্জের এই বিধায়ককে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। তাঁর জায়গায় শিক্ষা দফতরের প্রতিমন্ত্রী হয়েছেন সত্যজিৎ বর্মণ। তিনি উত্তর দিনাজপুরের হেমতাবাদ বিধানসভার বিধায়ক।

রাজ্যের শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী থাকাকালীন পরেশ অধিকারী বেআইনি ভাবে নিজের মেয়েকে স্কুলে চাকরি পাইয়ে দিয়েছিলেন অভিযোগ উঠেছিল। ইতিমধ্যেই তাঁর মেয়ে অঙ্কিতা অধিকারীকে চাকরি থেকে অপসারণ করে তার জায়গায় ববিতা সরকারকে আদালতের নির্দেশে নিয়োগ করেছে শিক্ষা দফতর৷ তারপর থেকেই জনসংযোগ বাড়ানোর উপরে জোর দিয়েছেন পরেশ অধিকারী। তিনি জানান, আগামী দিনেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরামর্শ মেনে চায়ের দোকানে আড্ডা দেওয়া থেকে শুরু করে গ্রামে ঘুরে ঘুরে জনসংযোগ বাড়াবেন। এর পাশাপাশি আরও কীভাবে জন সংযোগ বাড়ানো যায় তা নিয়ে তিনি পরিকল্পনা করছেন বলে জানিয়েছেন।

বন্ধ করুন