বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > 'গাঁঁজা পাচার' শ্বশুর-বৌমার! বাড়ির নিচ থেকে উদ্ধার ৩৪ লক্ষ টাকা
উদ্ধার হওয়া টাকা এবং গাঁজা। নিজস্ব ছবি।
উদ্ধার হওয়া টাকা এবং গাঁজা। নিজস্ব ছবি।

'গাঁঁজা পাচার' শ্বশুর-বৌমার! বাড়ির নিচ থেকে উদ্ধার ৩৪ লক্ষ টাকা

  • পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃত শ্বশুরের নাম বাবুল মুহাম্মদ এবং বৌমার নাম ফতিমা বিবি। গতকাল সুকান্তপল্লির বাড়িতে তল্লাশি চালায় শিলিগুড়ি মেট্রোপলিটন পুলিশ। সেখানে তল্লাশি চালিয়ে গাঁজা উদ্ধার হলেও প্রথমে নগদ টাকা উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।

দীর্ঘদিন ধরে গাঁজা পাচার চালাচ্ছিল শ্বশুর এবং বৌমা। সেই খবর পেয়ে বাড়িতে তল্লাশি চালাতেই চক্ষু ছানাবড়া পুলিশের। বাড়ি থেকে উদ্ধার হল বিপুল পরিমাণে গাঁজা ও নগদ ৩৪ লক্ষ ৪০ হাজার ৮০০ টাকা। এরপরে পুলিশ শ্বশুর এবং বৌমাকে গ্রেফতার করেছে। 

তাদের বাড়িতে নীল প্লাস্টিকের দুটি বস্তায় যত্ন করে রাখা ছিল গাঁজা। মাদক পাচারের বিরুদ্ধে অভিযানে নেমে বড়সড় সাফল্য পেল শিলিগুড়ি মেট্রোপলিটন পুলিশ। ঘটনাটি শিলিগুড়ির মাটিগাড়া থানার সুকান্তপল্লির।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃত শ্বশুরের নাম বাবুল মুহাম্মদ এবং বৌমার নাম ফতিমা বিবি। গতকাল সুকান্তপল্লির বাড়িতে তল্লাশি চালায় শিলিগুড়ি মেট্রোপলিটন পুলিশ। সেখানে তল্লাশি চালিয়ে গাঁজা উদ্ধার হলেও প্রথমে নগদ টাকা উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। পরে বাড়ির বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি চালানোর পর ওই পরিমাণ নগদ টাকা উদ্ধার হয়। পুলিশ জানিয়েছে, ওই পরিমাণ টাকা রাখা হয়েছিল বাড়ির নিচে লুকিয়ে রাখা হয়েছিল।

পুলিশের অনুমান, তারা দীর্ঘদিন ধরেই মাদকের ব্যবসা করছিল। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে সেই বাড়িতে তল্লাশি চালানোর পরে গাঁজা উদ্ধার হয়েছে। এই পরিমাণ গাঁজা কোথা থেকে নিয়ে আসা হয়েছিল এবং কোথায় তা পাচারের উদ্দেশ্য ছিল? পাশাপশি, তাদের সঙ্গে আর কারা কারা জড়িত রয়েছে তা জানার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে শিলিগুড়ি পুলিশ কমিশনারেটের এসিপি মনীশ যাদব জানিয়েছেন। ধৃতদের আদালতে তোলা হলে দুদিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে আরও অনেক তথ্য পাওয়া যাবে বলে মনে করছে পুলিশ।

বন্ধ করুন