বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > রাস্তার বেহাল দশা, নিরুপায় হয়ে গর্ভবতীকে কোলে করে হাসপাতালে নিয়ে গেলেন পরিজনেরা
প্রতীকী ছবি 
প্রতীকী ছবি 

রাস্তার বেহাল দশা, নিরুপায় হয়ে গর্ভবতীকে কোলে করে হাসপাতালে নিয়ে গেলেন পরিজনেরা

  • রাস্তার বেহাল দশা থাকায় অসুস্থ গর্ভবতীকে কোলে করে স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে গেলেন পরিবারের সদস্যরা।

নামমাত্র রাস্তা। তাতে কোনও গাড়ি চলাচল সম্ভব নয়। কাদা থাকায় তাতে হাঁটাও খুব কঠিন। এহেন রাস্তা দিয়েই অসুস্থ গর্ভবতীকে কোলে করে স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে গেলেন পরিবারের সদস্যরা। সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন স্থানীয় বাসিন্দারাও। ঘটনাটি ঘটেছে আলিপুরদুয়ারের ফালাকাটা ব্লকের ২ নম্বর দক্ষিণ পারঙ্গের পাড় গ্রাম পঞ্চায়েতে। রাস্তার এই বেহাল দশা এবং তার জেরে এই চাঞ্চল্যকর দৃশ্য অনেককেই নাড়িয়ে দিয়েছে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে পাঁচ কিলোমিটারের এই রাস্তা বেহাল দশায় রয়েছে। প্রশাসনের কেউ কোনও পদক্ষেপ নিচ্ছে না। পঞ্চায়েত, বিডিও অফিসে জানিয়েও লাভ হয়নি। স্বয়ং পঞ্চায়েত প্রধানকে বহুবার অভিযোগ জানানো হলেও রাস্তার মেরামতের জন্য কোনও কাজ করা হচ্ছে না। রাস্তার বর্তমান পরিস্থিতিতে তা দিয়ে কোনও টোটো বা অটোও চলতে পারবে না, গাড়ি বা অ্যাম্বুলেন্স তো দূরের কথা।

স্থানীয়রা অভিযোগ করেছেন, এভাবেই পায়ে হেঁটে এই রাস্তা অতিক্রম করতে হয় গ্রামবাসীদের। কেউ অসুস্থ হয়ে পড়লে অ্যাম্বুলেন্স পর্যন্ত গ্রামে ঢুকতে পারে না। বড় বড় গর্ত রয়েছে রাস্তার মাঝে। বৃষ্টিতে কাদা হয়, তাতে হাঁটা যায় না এই রস্তা দিয়ে। রোগীদের কোলে করে হাসপাতালে নিয়ে যেতে হয় তাঁদের।

উল্লেখ্য, পারঙ্গের পাড় গ্রামে প্রায় ২০০০ লোক বাস করেন। তবে এই মানুষগুলিকে ভালো রাস্তার সুবিধা পেতে নাকি বঞ্চিত করছে রাজনীতির সমীকরণ। স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্য পরেশ বর্মন এই বিষয়ে সংবাদমাধ্যমকে বলেন, 'আমি বিরোধী দলের পঞ্চায়েত সদস্য। তাই কাজ হচ্ছে না। বারংবার প্রধানকে বলেও কাজ হচ্ছে।'

বন্ধ করুন