বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > কোচবিহারে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দে ভাঙচুর হয়ে গেল দলেরই পার্টি অফিস
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

কোচবিহারে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দে ভাঙচুর হয়ে গেল দলেরই পার্টি অফিস

  • তবে আক্রান্ত গোষ্ঠীর দাবি, সম্প্রতি রেহানা সুলতানার বিরুদ্ধে অনাস্থা এনেছেন দলেরই ৯ জন পঞ্চায়েত সদস্য। এর পরই চক্ষুশূল হন আনোয়ার হোসেন ও তাঁর অনুগামীরা।

এবার গোষ্ঠীকোন্দলের জেরে ভাঙচুর হয়ে গেল তৃণমূলের পার্টি অফিস। এবারও সেই কোচবিহার। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে কোচবিহারের নাজিরহাটে তৃণমূলের একটি পার্টি অফিস ভাঙচুর হয়। স্থানীয় তৃণমূলের নেতৃত্বের দাবি, অনাস্থা আনায় হামলা চালিয়েছে পঞ্চায়েত প্রধান আশ্রিত দুর্বৃত্তরা।

ঘটনার সূত্রপাত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায়। পাওনাগন্ডা নিয়ে হিসাব দিতে তলব করা হয় স্থানীয় ঠিকাদার আনোয়ার হোসেনকে। সেখানে হিসাব নিয়ে বিবাদ বাঁধলে পঞ্চায়েত প্রধান রেহানা সুলতানা ও তাঁর স্বামী আবদুল মজিদের লোকজন পার্টি অফিসে ভাঙচুর চালায় বলে অভিযোগ। ভাঙা হয় প্লাস্টিকের চেয়ার ও অন্যান্য আসবাব।

তবে আক্রান্ত গোষ্ঠীর দাবি, সম্প্রতি রেহানা সুলতানার বিরুদ্ধে অনাস্থা এনেছেন দলেরই ৯ জন পঞ্চায়েত সদস্য। এর পরই চক্ষুশূল হন আনোয়ার হোসেন ও তাঁর অনুগামীরা। তার জেরেই এই হামলা।

অভিযোগ অস্বীকার করে আবদুল মজিদ বলেন, আমি হামলার ব্যাপারে কিছু জানি না। আমি নমাজ পড়তে গিয়েছিলাম। ফিরে শুনি এক ঠিকাদারের ওপরে হামলা হয়েছে। তার পর জানতে পারি পার্টি অফিসও ভাঙচুর হয়েছে। আমি বা আমার লোকজন এতে যুক্ত নই। অহেতুক দোষারোপ করা হচ্ছে।

 

 

বন্ধ করুন