বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > 'সাংসদ তহবিলের টাকা আটকে রেখে রাজ্য সরকার কি সুদ খাচ্ছে?' প্রশ্ন দিলীপের
 দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি।
 দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি।

'সাংসদ তহবিলের টাকা আটকে রেখে রাজ্য সরকার কি সুদ খাচ্ছে?' প্রশ্ন দিলীপের

  • তিনি অভিযোগ করেছেন, 'তাঁর সাংসদ তহবিলের ৭০ লক্ষ টাকা আটকে রেখেছে রাজ্য সরকার।'

রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে সাংসদ তহবিলের টাকা আটকে রাখার অভিযোগ তুললেন মেদিনীপুরের বিজেপি সাংসদ তথা দলের সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ। নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে এই অভিযোগ জানিয়ে একটি পোস্ট করে সরব হয়েছেন বিজেপি সাংসদ। তিনি অভিযোগ করেছেন, 'তাঁর সাংসদ তহবিলের ৭০ লক্ষ টাকা আটকে রেখেছে রাজ্য সরকার।' কেন এই টাকা আটকে রাখা হলো ? তা নিয়ে তিনি প্রশ্ন তুলেছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই সাংসদ তহবিলের টাকা খরচ করতে দেওয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ তুলেছিলেন দিলীপ ঘোষ। মেদিনীপুর খড়গপুর উন্নয়ন পর্ষদের বিরুদ্ধে এই গুরুতর অভিযোগ তুলেছিলেন। সেই অভিযোগ নিয়েই কার্যত সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন দিলীপ ঘোষ। তিনি লিখেছেন, 'এই টাকা সাধারণ মানুষের স্বার্থে খরচ করা উচিত। কিন্তু, রাজনৈতিক স্বার্থে সেই টাকা আটকে রাখছে রাজ্য সরকার।' একই সঙ্গে এনিয়ে তাঁর প্রশ্ন, 'সরকার শুধু বলে নাকি টাকা নেই। তাহলে বরাদ্দ করা এই অর্থ কার নির্দেশে আটকে রাখা হয়েছে?'

এলাকার উন্নয়নের জন্য সাধারণত সাংসদেরা ৫ কোটি টাকা করে পেয়ে থাকেন। মেদিনীপুরের প্রকল্প উন্নয়নের দায়িত্ব রয়েছে মেদিনীপুর খড়গপুর উন্নয়ন পর্ষদের উপর। সে ক্ষেত্রে সংসদ তহবিলের টাকা বরাদ্দ হওয়ার পরেও কাজ হচ্ছে না বলে অভিযোগ তুলেছেন দিলীপ। চাঁচাছোলা ভাষায় তাঁর অভিযোগ, 'তাহলে টাকাটা আটকে রেখে রাজ্য সরকার কি সুদ খাচ্ছে?'

যদিও দিলীপবাবুর এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন মেদিনীপুর খড়গপুর উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যান তথা তৃণমূল বিধায়ক দিনেন রায়। এই অভিযোগের উত্তরে তিনি জানিয়েছেন,'আমি সম্প্রতি এর চেয়ারম্যান পদে বসেছি। তাই সমস্ত কিছু খতিয়ে দেখতে বলেছি কর্মীদের। নথিপত্র তৈরি করতে বলেছি। খুব তাড়াতাড়ি আটকে থাকা কাজ শুরু করা হবে।'

বন্ধ করুন