বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > আমরা তো এগুলো করতে দেব না, অমুসলিম উদ্বাস্তুদের নাগরিকত্ব প্রসঙ্গে বললেন মমতা

আমরা তো এগুলো করতে দেব না, অমুসলিম উদ্বাস্তুদের নাগরিকত্ব প্রসঙ্গে বললেন মমতা

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘এসব পলিটিক্স বন্ধ করো। গুজরাতে পলিটিক্স আসছে বলে এগুলো করছে। আমরা তো এগুলো করতে দেব না। আমরা সবাই নাগরিক। এটাই আমার থিওরি। আমরা সম্পূর্ণভাবে এর বিরোধী।

ভোটের মুখে গুজরাতে অমুসলিম উদ্বাস্তুদের কেন্দ্রের নাগরিকত্ব দেওয়ার সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার চেন্নাই উড়ে যাওয়ার আগে দমদম নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তিনি বলেন, ‘আমরা তো এগুলো করতে দেব না’। মমতাকে দিলীপ ঘোষের পালটা হুঁশিয়ারি, ‘সময় মতো সব হবে। ওনার চোখের সামনেই হবে।’

এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘এসব পলিটিক্স বন্ধ করো। গুজরাতে পলিটিক্স আসছে বলে এগুলো করছে। আমরা তো এগুলো করতে দেব না। আমরা সবাই নাগরিক। এটাই আমার থিওরি। আমরা সম্পূর্ণভাবে এর বিরোধী। আমরা এর বিরোধিতা করি। গুজরাত ভোটের জন্য ওরা এই খেলা খেলছে’।

পালটা দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘যাদের ভোট নিয়ে বারে বারে সরকারে এসেছেন তাদের নাগরিকত্ব দেবেন না। এটা কতটা মানবিক সেটাও চিন্তার বিষয়। আর যাতে না হয় সেজন্য গুন্ডা মস্তানদের রাস্তায় নামিয়ে আগুন জ্বালিয়েছেন, ভয় দেখিয়েছেন। এখন উনি করতে দেব না বলে চোখ দেখাচ্ছেন, ভয় দেখাচ্ছেন। উনি নোটবন্দি করতে দেবেন না বলেছিলেন, ৩৭০ ধারা তুলতে দেবেন না বলেছিলেন, তিন তালাক হঠাতে দেবেন না বলেছিলেন, সব হয়ে গেছে। এটাও হবে। সময় এলে হবে। ওনার চোখের সামনেই হবে’।

মদ - জুয়ার ঠেক থেকে পুলিশ তোলা তুলছে, বলেও লাভ হয় না, বিস্ফোরক দাবি তৃণমূল নেতার

কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্ত নিয়ে মঙ্গলবার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী বলেন, ‘কেন্দ্রের ঘোষণায় স্পষ্ট রুল গঠন হয়ে গিয়েছে। গুজরাতে যখন হয়েছে এখানেও হবে। এক যাত্রায় পৃথক ফল হবে না।’ বলে রাখি, মঙ্গলবার কেন্দ্রের তরফে ঘোষণা করা হয় গুজরাতের আনন্দ ও মেহসনা জেলায় পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে আসা অমুসলিম উদ্বাস্তুদের ১৯৫৫ সালের আইনে নাগরিকত্ব দেবে সরকার।

 

বন্ধ করুন