বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ছ'বছর আগে ঝালমুড়ি খাওয়ার ফাঁকে মমতার সঙ্গে কী ‘কথা’? রহস্য ফাঁস করলেন বাবুল
! (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
! (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

ছ'বছর আগে ঝালমুড়ি খাওয়ার ফাঁকে মমতার সঙ্গে কী ‘কথা’? রহস্য ফাঁস করলেন বাবুল

বিজেপি নেতা অনুপম হাজরা বলেন, ‘‌ঝালমুড়ি রফা আগেই হয়ে গিয়েছিল। জাস্ট অপেক্ষা করা হচ্ছিল, রাজ্যসভাতে কীভাবে পাঠানো যায়।

বিজেপি নেতা অনুপম হাজরা বাবুল সুপ্রিয়ের তৃণমূলে যোগদানের সঙ্গে ঝাড়মুড়ি তত্ত্ব জুড়ে দিয়েছিলেন। তা উড়িয়ে দিলেন বাবুল সুপ্রিয়। তাঁর বক্তব্য, কাজের জন্য শুধু ঝালমুড়ি খাবেন কেন? সকলের সঙ্গেই বসে কথা বলতে রাজি।

তৃণমূলে যোগদানের পর এদিন সাংবাদিকদের সঙ্গে মুখোমুখি হন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। এদিন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জানান, ‘‌২০১৫ সালে স্বচ্ছ ভারত প্রকল্পের উদ্বোধনে কলকাতায় এসেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আমরা নজরুল মঞ্চের সেই অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিলাম। নিরাপত্তার কারণে এলাকায় গাড়ি রাখতে দেওয়া হয়নি। প্রধানমন্ত্রীর গাড়ি বেরিয়ে যাওয়ার পর মুখ্যমন্ত্রীর গাড়ি এসেছিল। মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন, ‘‌তুমি তো রাজভবনেই যাচ্ছ। নৈশভোজ রয়েছে। আমার গাড়িতে এস।’‌ আমি মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে এক গাড়িতে বসেছিলাম। তখন নতুন মন্ত্রী হয়েছি। অনেকগুলি কথা বলার ছিল। ইস্ট–ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পের পাশাপাশি ইএসআই হাসপাতালের বিষয়টিও ছিল।’‌ একইসঙ্গে বাবুল জানালেন, ‘‌গাড়িতে যাওয়ার সময় ভিক্টোরিয়ার সামনে দাঁড়িয়েছিলেন। আমায় ঝালমুড়ি খেতে বলেছিলেন। একজন প্রশাসনিক প্রধান ঝালমুড়ি খেতে বলেছিলেন। তাই খেয়েছিলাম। কেন খাব না? কাজের জন্য সকলের সঙ্গে বসে খেতে রাজি। আগামীদিনে বিজেপি কেন্দ্রীয় নেতার সঙ্গে কাজের জন্য ধোকলা খেতে হয়, তাহলেও আমি রাজি।’‌

সম্প্রতি বিজেপি নেতা অনুপম হাজরা বলেন, ‘‌ঝালমুড়ি রফা আগেই হয়ে গিয়েছিল। জাস্ট অপেক্ষা করা হচ্ছিল, রাজ্যসভাতে কীভাবে পাঠানো যায়। তাই হয়ত অর্পিতাকে এত তাড়াতাড়ি রাজ্যসভা ছেড়ে তৃণমূলে মন দিতে বলা।’‌ অনুপম হাজরার এই টুইট জিজ্ঞাসা করা হলে বাবুল বলেন, ওরকম অনেক হাজরা আছেন।

বন্ধ করুন