বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌দুয়ারে রেশন’‌ আসতে বাধা, সমস্যা সমাধানে আসরে নামলেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক
জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক (নিজস্ব চিত্র)
জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক (নিজস্ব চিত্র)

‘‌দুয়ারে রেশন’‌ আসতে বাধা, সমস্যা সমাধানে আসরে নামলেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক

  • পরপর দু’‌বার খাদ্য দফতরের মন্ত্রী থেকে সাফল্যের সঙ্গে কাজ করেছেন। সেখানে বর্তমান খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষকে নানা বাধার মুখে পড়তে হচ্ছে।

দুয়ারে রেশন প্রকল্প নিয়ে ডিলাররা সমস্যা করেই চলেছেন। কখনও আদালতে চলে যাচ্ছেন তো কখনও প্রকল্পে সামিল হচ্ছেন না। এমন বিস্তর সসম্যার সমাধানে আসরে নামলেন প্রাক্তন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। এখন তিনি বন দফতরের মন্ত্রী। কিন্তু পরপর দু’‌বার খাদ্য দফতরের মন্ত্রী থেকে সাফল্যের সঙ্গে কাজ করেছেন। সেখানে বর্তমান খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষকে নানা বাধার মুখে পড়তে হচ্ছে। সূত্রের খবর, এই পরিস্থিতি দেখে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নির্দেশ দিয়েছেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিককে এগিয়ে আসতে। তাই তিনি বৈঠক করেন খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষ এবং রেশন ডিলার সংগঠনের নেতা বিশ্বম্ভর বসুর সঙ্গে।

আরও জানা গিয়েছে, আগামী সোমবার তিনি আবার একটি বৈঠক করবেন। খাদ্যমন্ত্রী–রেশন ডিলারদের সংগঠনের সঙ্গে বৈঠক করবেন তিনি। এখন দুয়ারে রেশন নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে গিয়েছে রেশন ডিলারদের সংগঠন। রাজ্য সরকারের বক্তব্য অনুযায়ী, ভাইফোঁটা থেকে চালু করতে চায় দুয়ারে রেশন প্রকল্প। পাইলট প্রজেক্ট হিসাবে এখন কাজ শুরু হয়েছে। উপযুক্ত কমিশন এবং ব্যবস্থা নিয়ে মতবিরোধের জেরে রেশন ডিলারদের সংগঠন মামলা করেছে।

পাইলট প্রজেক্ট নিয়ে খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষ বলেন, ‘তিন হাজারের বেশি দোকান থেকে ট্রায়াল শুরু হবে। বাড়ি বাড়ি যাবেন রেশন ডিলাররা। দু’জন মামলা করেছেন। সরকার তো করেনি। তাই ট্রায়াল হচ্ছেই।’‌ মূলত সমস্যা তৈরি হয়েছে কমিশন নিয়েই। রেশন ডিলাররা যে কমিশন দাবি করছেন সেটা খাদ্য দফতর দিতে নারাজ। দাবি ২০০ টাকা। কিন্তু বরাদ্দ ১২৫ টাকা। এটাই বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। যদিও আগে যেথানে ছিল ৭৫ টাকা কমিশন ছিল সেটা বাড়িয়েই ১২৫ করা হয়েছে।

এখানে রেশন ডিলারদের সংগঠনের পক্ষ থেকে গাড়ি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে সমস্যা তৈরি হয়েছে। বাড়ি বাড়ি খাদ্যশস্য পৌঁছে দিতে কেউ গাঁটের কড়ি খরচা করে গাড়ি কিনতে রাজি নয়। সরকার গাড়ি কিনতে ঋণের ব্যবস্থা করলেও এই পথে হাঁটতে তাঁরা রাজি নন। এই বিষয়ে রেশন ডিলার ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক বিশ্বম্ভর বসু বলেন, ‘‌ব্যাঙ্ক থেকে ধার করা টাকায় গাড়ি কিনব না। প্রায় ৩ থেকে ৪ লাখ টাকা খরচ করে আমাদের পক্ষে গাড়ি কেনা সম্ভব নয়।’‌

ইতিমধ্যেই রেশন ডিলারদের পক্ষ থেকে দাবি জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। এই অবস্থায় আসরে নেমেছেন প্রাক্তন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। তিনি খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষ ও রেশন ডিলার সংগঠনের সঙ্গে আলোচনা করেছেন। পরের বৈঠকে বিস্তারিত কথা হবে এবং সমস্যা থেকে বেরিয়ে আসার চেষ্টা করা হবে বলে জানা গিয়েছে।

বন্ধ করুন