বাড়ি > কর্মখালি > CBSE দশম শ্রেণির পরীক্ষা বাতিল, দ্বাদশ শ্রেণির ক্ষেত্রে বিকল্প ব্যবস্থা বোর্ডের
দ্বাদশ শ্রেণির যে সমস্ত পড়ুয়া বোর্ড পরীক্ষা দিতে চাইবে না, তাদের গত তিনটি অ্যাসাইনমেন্টে পাওয়া নম্বরের ভিত্তিতে ফল ঘোষণা করা হবে।
দ্বাদশ শ্রেণির যে সমস্ত পড়ুয়া বোর্ড পরীক্ষা দিতে চাইবে না, তাদের গত তিনটি অ্যাসাইনমেন্টে পাওয়া নম্বরের ভিত্তিতে ফল ঘোষণা করা হবে।

CBSE দশম শ্রেণির পরীক্ষা বাতিল, দ্বাদশ শ্রেণির ক্ষেত্রে বিকল্প ব্যবস্থা বোর্ডের

  • করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পরে দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষা শিক্ষার্থীরা চাইলে না-ও দিতে পারেন।

CBSE দশম শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষা নেওয়া হবে না। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পরে দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষা শিক্ষার্থীরা চাইলে না-ও দিতে পারেন। বুধবার এই তথ্য সুপ্রিম কোর্টকে জানিয়েছেন সলিসিটর জেনারেল।

তিনি জানিয়েছেন, দ্বাদশ শ্রেণির যে সমস্ত পড়ুয়া বোর্ড পরীক্ষা দিতে চাইবে না, তাদের গত তিনটি অ্যাসাইনমেন্টে পাওয়া নম্বরের ভিত্তিতে ফল ঘোষণা করা হবে। এই ফল ঘোষণা হবে আগামী ১৫ জুলাই।

করোনা সংক্রমণ ও তার জেরে লকডাউনের কারণে অবশিষ্ট পরীক্ষা সম্পর্কে এ দিন সুপ্রিম কোর্টে নিজের সিদ্ধান্ত জানিয়েছে CBSE। এর আগে বোর্ডের দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির অবশিষ্ট পরীক্ষা ১-১৫ জুলাইয়ের মধ্যে আয়োজন হওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছিল।

CBSE দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির অবশিষ্ট পরীক্ষা সম্পর্কে স্পষ্ট সিদ্ধান্ত জানানোর জন্য আগেই বোর্ডকে নির্দেশ দিয়েছিল শীর্ষ আদালত। সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছিল, বিশেষ করে দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষাগুলি সম্পর্কে বোর্ডের সিদ্ধান্তের উপরেই নির্ভর করছে স্নাক স্তরে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভরতির প্রক্রিয়া। 

CBSE বোর্ড পরীক্ষার্থী কয়েক জনের অভিভাবকরা করোনা সংক্রমণের মধ্যে পরীক্ষা না আয়োজন করার আবেদন জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। এ দিন সেই মামলার শুনানিতে দশ্ম শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষা বাতিল ঘোষণা করে বোর্ড এবং দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষার্থীদের জন্য বিকল্প ব্যবস্থার কথাও আদালতকে জানানো হয়। গত ১৭ জুন দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষা বাতিল করার কথা চিন্তাভাবনা করতে CBSE-কে বলে আদালত। পরিবর্তে পড়ুয়াদের পূর্বতন অ্যাসেসমেন্টের ভিত্তিতে নম্বর দেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়। 

 

বন্ধ করুন