বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ > পুরভোটের লড়াই > চন্দননগরে প্রতিটি বুথেই থাকছে সশস্ত্র পুলিশ, নেই স্পর্শকাতর বুথ
সশস্ত্র পুলিশ

চন্দননগরে প্রতিটি বুথেই থাকছে সশস্ত্র পুলিশ, নেই স্পর্শকাতর বুথ

চন্দননগরে ১১৬ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারন করবেন ১,৪৪,৮৩৯ জন ভোটার। ১৭৩ টি বুথে ভোট নেওয়া হবে।

কাল চন্দননগরে পুরনিগম ভোট। ভোট যাতে সুষ্ঠুভাবে শেষ হয়, সেজন্য কড়া নিরাপত্তায় মুড়ে ফেলা হয়েছে গোটা এলাকা। পর্যাপ্ত পরিমাণে নিরাপত্তা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। শহরে ঢোকা বেরোনোর রাস্তায় চলছে নাকা চেকিং। নাকা চেকিং চলছে ফেরিঘাটগুলিতেও।

চন্দননগরের ডেপুটি পুলিশ কমিশনার ভিদিত রাজ বুন্দেশ জানান, প্রতিটি বুথে সশস্ত্র পুলিশ থাকছে। ১১৪ জন জন এসআই ও এএসআই, ৯ জন ইন্সপেক্টর, ৫৪৬ জন কনস্টেবল লেডি কনস্টেবল হোমগার্ড, এনভিএফ মোতায়েন থাকবে।এছাড়াও চন্দননগর পুলিশের এসিপি,ডিসি,এডিসিপি পদমর্যাদার অফিসাররা থাকবেন। তিনি জানান, নো এন্ট্রির কোনও নির্দেশ দেওয়া হয়নি। তবে যান চলাচলের ক্ষেত্রে কিছু নিয়ন্ত্রণ আছে। এদিন ডেপুটি পুলিশ কমিশনার জানিয়ে দেন, চন্দননগর এলাকার মধ্যে যতগুলি ফেরিঘাট রয়েছে, সেখানে সিসিটিভি ফুটেজে নজরদারি চালানো হচ্ছে। গঙ্গাবক্ষে পুলিশ লঞ্চ দিয়ে নজরদারি চলছে। ঘাট এলাকায় নাকা চেকিং বাড়ানো হয়েছে। তবে চন্দননগরে কোনও স্পর্শকাতর বুথ নেই বলে ডেপুটি পুলিশ কমিশনার জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, চন্দননগরে ১১৬ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারন করবেন ১,৪৪,৮৩৯ জন ভোটার। ১৭৩ টি বুথে ভোট নেওয়া হবে। সকাল ৭টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত এই ভোটগ্রহণ চলবে। চন্দননগর পুর নিগমে মোট ৩৩টি ওয়ার্ড রয়েছে।তার মধ্যে ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের বিজেপি প্রার্থীর আচমকাই মৃত্যু হওয়ায় ওই ওয়ার্ডে ভোট স্থগিত রাখা হয়েছে। বাকি ৩২টি ওয়ার্ডে ভোট গ্রহণ হবে।

বন্ধ করুন