বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ > পুরভোটের লড়াই > কলকাতার ধাঁচেই ৩ পুরসভায় তৃণমূলের ইস্তেহারে চমক 'পাড়ায় পাড়ায় সমাধান অ্যাপ'
ফাইল ছবি (Samir Jana/HT Photo)
ফাইল ছবি (Samir Jana/HT Photo)

কলকাতার ধাঁচেই ৩ পুরসভায় তৃণমূলের ইস্তেহারে চমক 'পাড়ায় পাড়ায় সমাধান অ্যাপ'

  • তার ভিত্তিতে ১৪ দিনের মধ্যে সমস্যা সমাধান করবে পুরসভা।

কলকাতা পুরসভার ধাঁচেই বিধাননগর শিলিগুড়ি এবং চন্দননগর এই তিন পুরসভায় তৃণমূলের ইস্তেহারে চমক হল পাড়ায় পাড়ায় সমাধান অ্যাপ চালু করা। শুক্রবার নির্বাচনী ইস্তেহার প্রকাশ করে ওই তিন পুরসভায় পাড়ায় পাড়ায় সমাধান অ্যাপ চালু করার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। সেই সঙ্গে প্রতিটি ওয়ার্ডের কাউন্সিলরের অফিসে একটি অভিযোগ নিষ্পত্তি সেল তৈরি করে নাগরিকদের আরও ভালো পরিষেবা প্রদান করার প্রতশ্রুতিও দেওয়া হয়েছে তৃণমূলের ইস্তেহারে।

কলকাতা পুরসভার ইস্তেহারে পাড়ায় পাড়ায় সমাধান অ্যাপের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস। বাকি পুরসভাগুলোর ক্ষেত্রেই সেই পথে হাঁটল তৃণমূল কংগ্রেস। এই মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে এলাকায় যে কোনও ধরনের সমস্যা যেমন খারাপ রাস্তা বা নর্দমা অথবা ভ্যাটের ছবি পাঠাতে পারবেন নাগরিকরা। তার ভিত্তিতে ১৪ দিনের মধ্যে সমস্যা সমাধান করবে পুরসভা।

এদিন তিন পুরসভায় ইস্তেহার প্রকাশ করে জোর দেওয়া হয়েছে মানুষের সমস্যা সমাধানের ওপর। তৃণমূলের এই ইস্তেহারের নাম দেওয়া হয়েছে '১০ দিগন্ত'। ইস্তেহার অনুযায়ী মূলত নাগরিকমুখী পরিষেবা প্রদান করায় লক্ষ্য তৃণমূলের।

এই তিন জায়গায় ইস্তেহার প্রকাশের সময় উপস্থিত ছিলেন দলের স্থানীয় শীর্ষ নেতৃত্ব। যার মধ্যে একঝাঁক মন্ত্রী ছিলেন বিধান নগর পুরসভায়। শিলিগুড়িতে ছিলেন সেখানকার তৃণমূলের মুখ গৌতম দেব এবং মন্ত্রী ইন্দ্রনীল রায়ের উপস্থিতিতে চন্দননগরে ইস্তেহার প্রকাশ হয়েছে। এই ধরনের প্রতিশ্রুতি দেওয়ার ফলে মানুষ তৃণমূলের সঙ্গেই থাকবে বলে আশাবাদী দলের নেতার।

তবে দলের কেউ ভোটে ব্যাঘাত ঘটালে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেই হুঁশিয়ারি দিয়েছেন সাংসদ সৌগত রায়।

শিলিগুড়ি এবং বিধান নগর পুরসভায় জোর দেওয়া হয়েছে সিসিটিভির নজরদারি বাড়ানোর উপর। এর পাশাপাশি তিনটি জায়গাতেই জল নিকাশি এবং পানীয় জলের সমস্যার দীর্ঘ স্থায়ী সমাধানের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে। রাস্তাঘাট, সড়কের উন্নয়নের পাশাপাশি পর্যটন কেন্দ্রকে সাজিয়ে তোলার কথা জানিয়েছে তৃণমূল।

বন্ধ করুন