বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > উন্মুক্ত পিঠ,খোলা চুল- জীবনানন্দ দাশের কবিতায় ডুব দিলেন মিথিলা
রাফিয়াত রশিদ মিথিলা
রাফিয়াত রশিদ মিথিলা

উন্মুক্ত পিঠ,খোলা চুল- জীবনানন্দ দাশের কবিতায় ডুব দিলেন মিথিলা

  • মিথিলা ডুব দিলেন জীবনানন্দ দাশের কবিতায়।

উন্মুক্ত পিঠ, খোলা চুল- মনোক্রমে ধরা দিলেন মিথিলা। ওপার বাংলার অভিনেত্রী মিথিলার রূপে এবার মুগ্ধ এবার এপার বাংলার মানুষও। কালো-সাদা সাহসী ছবিতে ফের একবার সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করলেন সৃজিত ঘরনি। 

ছবিতে মিথিলার রহস্যময়ী দৃষ্টি। অভিনেত্রী ডুব দিয়েছেন জীবনানন্দ দাশের কবিতায়। ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘মনে পড়ে কবেকার পাড়াগাঁর অরুণিমা সান্যালের মুখ; উড়ুক উড়ুক তা’রা পউষের জ্যোৎস্নায় নীরবে উড়ুক, কল্পনার হাঁস সব; পৃথিবীর সব ধ্বনি সব রং মুছে গেলে পর, উড়ুক উড়ুক তা’রা হৃদয়ের শব্দহীন জ্যোৎস্নার ভিতর।~ জীবনানন্দ দাশ’।

বিনা মেকআপে অভিনেত্রী আরো লাস্যময়ী রূপ প্রকাশিত হচ্ছে। এর আগে সাহসী ছবি পোস্ট করে নেটিজেনের ট্রোলের শিকার হয়েছিলেন অভিনেত্রী। সাইবার বুলিং নিয়ে দিন কয়েক আগেই সরব হয়েছিলেন অভিনেত্রী তথা সমাজকর্মী রাফিয়াত রশিদ মিথিলা। 

সাদা-কালো সেই ছবিতে উন্মুক্ত ছিল মিথিলার বক্ষবিভাজিকা, আর সেই দেখেই উড়ে আসে নানান কটাক্ষ। ছবির ক্যাপশনে মিথিলা জুড়ে দেন উইলিয়াম আরনেস্ট হেনলির একটি উদ্ধৃতি- ‘আমি আমার ভাগ্যের নিয়ন্ত্রক, আমি আমার আত্মার অধিনায়ক’।

উল্লেখ্য বুলিংয়ের মুখে পড়ে সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামের কমেন্ট সেকশনে বন্ধ করে দিয়েছেন মিথিলা।  খুব নিদিষ্ট ব্যক্তি কমেন্ট করতে পারবেন সেখানে।

সম্প্রতি কাজের সূত্রে ঢাকাই গিয়েছিলেন মিথিলা। সঙ্গে ছিল মেয়ে আইরাও। কাজের চাপ বেশি থাকায় ক্রিসমাসে কলকাতা ফেরা হয়নি। কিন্তু নতুন বছরটা সৃজিতের সঙ্গেই তিলোত্তমায় সেলিব্রেট করলেন মিথিলা। বৃহস্পতিবার রাজ-শুভশ্রীর বর্ষবরণের পার্টিতে শামিল হয়েছিলেন সৃজিলা। 

বন্ধ করুন