বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > 'সলমনের কারণে আমার আর ঐশ্বর্যর মধ্যে তুলনা করা হয়', আক্ষেপ স্নেহা উল্লালের
স্নেহা উল্লাল-ঐশ্বর্য রায় বচ্চন
স্নেহা উল্লাল-ঐশ্বর্য রায় বচ্চন

'সলমনের কারণে আমার আর ঐশ্বর্যর মধ্যে তুলনা করা হয়', আক্ষেপ স্নেহা উল্লালের

  • একবার ঐশ্বর্যের মুখোমুখি হয়েছিলেন সলমনের অভিনেত্রী স্নেহা উল্লাল। নেটিজেনরা তাঁকে ঐশ্বর্যর সঙ্গে তুলনা করেন সর্বদা।

অভিনেত্রী ঐশ্বর্য রায় বচ্চনের সঙ্গে বারবারই তুলনা করা হয় অভিনেত্রী স্নেহা উল্লালকে। সম্প্রতি স্নেহার ইনস্টাগ্রামে নিজের একটি ফটোশ্যুটের ছবি শেয়ার করেন অভিনেত্রী। সেখানে তাঁকে হুবহু ঐশ্বর্য রায়ের মতো দেখাচ্ছে। কালো-সাদা মনোক্রোম ছবিতে তাঁকে ঐকিহ্যবাহী পোশাকে দেখা গেছে। ঐশ্বর্য ভক্তদের অবশ্য সেই ছবি নজরে এসেছে।

অভিনেত্রীর ছবির কমেন্ট বক্সে একজন লেখেন, ‘একবার তো দেখে মনে হল ঐশ্বর্য’। আবার কেউ লিখেছেন, ‘হায় ঐশ্বর্য রায়’। অন্য একজন লিখেছেন, ‘ঐশ্বর্য রায়ের জেরক্স কপি’।

২০০৫ সালে সলমন খানের হাত ধরে বলিউডে পা রাখেন স্নেহা উল্লাল। তাঁর প্রথম ছবি ‘লাকি নো টাইম ফর লাভ’। যেহেতু সলমনের প্রাক্তনী ঐশ্বর্য, তাই দুজনের মুখের মিল নজর এড়ায়নি ভক্তদের।

বলিউডে ডেবিউর এক বছর পর হিন্দুস্তান টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে স্নেহা জানিয়েছিলেন, তিনি অভিনেত্রী ঐশ্বর্য রায় বচ্চনের অনেক বড় ভক্ত। তাঁর কাজ, ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে সাফল্যে তিনি খুশি। ঐশ্বর্যের সঙ্গে তাঁর মুখের মিল নিয়ে যে তুলনা চলে, সেবিষয় মোটেই খুশি নন বলে তিনি জানান। তিনি আরো বলেছিলেন, ‘আমি আমার নিজস্ব স্বতন্ত্রতা রাখতে চাই। আমাকে তাঁর মতো দেখতে হলে আমি কী করতে পারি? আমার চেহারার পরিবর্তন করতে পারব না। আমি আমার নিজের কাজ এবং সাফল্যের জন্য পরিচিত এবং স্বীকৃত হতে পছন্দ করি’।

স্নেহা আরও বলেছিলেন যে তিনি একবার ঐশ্বর্যর সঙ্গে দেখা করেছিলেন এবং তাঁকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানিয়েছিলেন। এক অনুষ্ঠানে তাঁদের দুজনের সাক্ষাৎ হয়েছিল। দুজনের মধ্যে সৌজন্য বিনিময় হয়েছিল।

২০০৯ সালে এক সাক্ষাৎকারে স্নেহা জানিয়েছিলেন, তাঁর এবং ঐশ্বর্যর তুলনা হওয়ার একমাত্র কারণ সলমন। স্নেহার কথায়, ‘আমি সত্যিই মনে করি পেশাদারিত্বের সঙ্গে এই তুলনাগুলি আমার ক্ষেত্রে অন্যায় হয়েছে। আমি যদি লাকির মাধ্যমে আত্মপ্রকাশ না করতাম তবে সব ঠিক হয়ে যেত। আমার তুলনা হয়েছিল ঐশ্বর্য রাইয়ের সঙ্গে.. শুধু সালমান খানের কারণে’।

 

বন্ধ করুন