স্বস্তিতে দীপিকা পাড়ুকোন। শুক্রবার ছপাক মুক্তি নিয়ে আর কোনও বাধা রইল। বুধবার বম্বে হাইকোর্ট খারিজ করেদিল লেখক রাকেশ ভারতীর অভিযোগ। (আইএএনএস)
স্বস্তিতে দীপিকা পাড়ুকোন। শুক্রবার ছপাক মুক্তি নিয়ে আর কোনও বাধা রইল। বুধবার বম্বে হাইকোর্ট খারিজ করেদিল লেখক রাকেশ ভারতীর অভিযোগ। (আইএএনএস)

বম্বে হাইকোর্টের রায়ে স্বস্তিতে দীপিকা, শুক্রবার ছপাকের মুক্তিতে আর বাধা রইল না

  • স্বস্তিতে দীপিকা পাড়ুকোন। শুক্রবার ছপাক মুক্তি নিয়ে আর কোনও বাধা রইল। বুধবার বম্বে হাইকোর্ট খারিজ করে দিল লেখক রাকেশ ভারতীর অভিযোগ।
  • গল্প চুরির অভিযোগে এনে ছবির প্রযোজক সংস্থা ফক্স স্টার স্টুডিও এবং প্রযোজক দীপিকা পাড়ুকোনের বিরুদ্ধে বম্বে হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেছিলেন রাকেশ ভারতী।

স্বস্তিতে দীপিকা পাড়ুকোন। শুক্রবার ছপাক মুক্তি নিয়ে আর কোনও বাধা রইল। বুধবার বম্বে হাইকোর্ট খারিজ করে দিল লেখক রাকেশ ভারতীর অভিযোগ। গল্প চুরির অভিযোগে এনে ছবির প্রযোজক সংস্থা ফক্স স্টার স্টুডিও এবং প্রযোজক দীপিকা পাড়ুকোনের বিরুদ্ধে বম্বে হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেছিলেন এই লেখক। এদিন বম্বে হাইকোর্ট তাঁর রায়ে জানায় সত্যঘটনা বা বাস্তব জীবন অবলম্বনে তৈরি ছবির গল্প নিয়ে কেউ কপিরাইট মামলা করতে পারেন না।

নিজের আবেদনে ভারতী আদালতকে জানিয়েছিলেন, তাঁর চিত্রনাট্য এবং ছপাকের চিত্রনাট্যের তুলনা করার জন্য একজন বিশেষজ্ঞ নিয়োগের করুক আদালত এবং মামলার নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত ছবির মুক্তিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।দুই পক্ষের সওয়াল-জবাব শোনার পর এদিন বিচারপতি এস সি গুপ্তে জানান, 'সত্য ঘটনা বা কারুর জীবন অবলম্বনে তৈরি চিত্রনাট্যের উপর কপিরাইট দাবি করা যায় না। এই ঘটনার উত্স সকলের জানা-তাই কপিরাইটের এখানে কোনও প্রশ্নই নেই। কেউ সেই ঘটনা নিয়ে গল্প লিখেছে বা লিখছে মানে এই নয় যে অন্য কেউ সেই একই বিষয় বা বাস্তব ঘটনা নিয়ে গল্প লিখতে পারবে না'।

ভারতীর দায়ের করা পিটিশনে বলা হয়েছিল, তিনি একটি চিত্রনাট্য লিখেছিলেন, যাঁর প্রাথমিক নাম ছিল ব্ল্যাক ডে। সেই চিত্রনাট্য তিনি ইন্ডিয়ান মোশন পিকচার্স প্রোডিউসারস অ্যাশোশিয়েশ (IMPPA)-এ রেজিস্টার করেন ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে। এরপর থেকেই বহু প্রযোজক সংস্থা এবং শিল্পীদের কাছে সেই চিত্রনাট্য নিয়ে ঘুরে বেরিয়েছেন তিনি। সেই তালিকায় রয়েছে ছপাকের প্রযোজক সংস্থা ফক্স স্টার স্টুডিও। সেই চিত্রনাট্যই নাকি নকল করে ছপাক তৈরি করেছেন মেঘনা গুলজার।

ভারতীর আইনজীবী গিরিজ গোড়বলে এবং অশোক সরোগি বুধবার আদালতের কাছে আবেদন করেন, তাঁরা ছবির মুক্তিতে কোনওরকম নিষেধাজ্ঞা দাবি করছেন না। তবে তাঁরা সওয়াল-জবাব চালিয়ে যেতে চান। ছবি মুক্তির পর দুটি চিত্রনাট্যের তুলনা করে কপিরাইট মামলার রায় দিক আদালত। তাঁদ এই আবেদন মেনে নিয়েছে বম্বে হাইকোর্ট।। মামলার পরবর্তী শুনানি ছ' সপ্তাহ পর।

বন্ধ করুন