বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > স্বস্তিক সঙ্কেত: ক্রিপ্টোগ্রাফির বই লেখাই কাল হল ‘রুদ্রাণী' নুসরতের জীবনে?
আসছে স্বস্তিক সংকেত
আসছে স্বস্তিক সংকেত

স্বস্তিক সঙ্কেত: ক্রিপ্টোগ্রাফির বই লেখাই কাল হল ‘রুদ্রাণী' নুসরতের জীবনে?

  • ইতিহাস নির্ভর থ্রিলারে নুসরত, শাশ্বত, রুদ্রনীল, গৌরবরা। পরিচালনায় সায়ন্তন ঘোষাল। 

মঙ্গলবার সকাল সকাল রুদ্রাণীর অবতারে হাজির নুসরত জাহান। এদিন মুক্তি পেল পরিচালক সায়ন্তন ঘোষালের আসন্ন ছবি ‘স্বস্তিক সঙ্কেত’-এর ফার্স্ট লুক পোস্টার। একবার ফের ইতিহাস নির্ভর থ্রিলার বানালেন ‘আলিনগরের গোলকধাঁধা’ পরিচালক। 

ছবির প্রেক্ষাপট দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ। হিটলারের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছেন নেতাজি। চলছে হিটলারের রণকৌশল তৈরির পরীক্ষানিরীক্ষা, রয়েছে বায়োলজিক্যাল ওয়েপন নিয়ে গবেষণাও। সেই সময় আবিষ্কার করা হয় এক নভেল ভাইরাস, যার অপব্যবহার শুরু করে নাৎসি বাহিনী। এরপর আবিষ্কর্তা বিজ্ঞানী লুকিয়ে ফেলেন ওই ভাইরাসের অ্যান্টিডোটের ফর্মুলাটি।

এরপর কাট টু আজকের সময়। ক্রিপ্টোগ্রাফির উপরে একটি বই লেখে রুদ্রাণী, যে ভূমিকায় রয়েছেন নুসরত জাহান। সেই বই প্রকাশের উদ্দেশ্য নিয়েই লন্ডনে পারি দেয় সে। তাঁর স্বামী প্রিয়ম পেশায় আইটি কর্মী, এই চরিত্রে থাকছেন গৌরব। কিন্তু গৌরব-রুদ্রাণীর এই লন্ডন সফর খুব সুখের হয় না। সিগমন্ড শুমেখার (শতাফ ফিগার) নামে এক ব্যক্তি কিছু ক্রিপ্টোগ্রাফিক কোড উদ্ধার করে দিতে বলে রুদ্রাণীকে, আর সেই রহস্য জট খুলতে গিয়ে এক রহস্যের বেড়াজালে আটকে পড়ে সে। এরপর ফের চল্লিশের দশকে আবিষ্কৃত নভেল ভাইরাসের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।খোঁজ শুরু হয় সেই অ্যান্টি়ডোটের। কেমনভাবে এই গোলোকধাঁধায় আটকে পড়বে রুদ্রাণী আর প্রিয়ম, সেই নিয়েই এগোবে গল্প। 

নুসরত-গৌরব ছাড়াও এই ছবিতে থাকছেন রুদ্রনীল ঘোষ, শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়রা। নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর চরিত্রে দেখা যাবে শাশ্বতকে। সুভাষ চট্টোপাধ্যায় ও তাঁর বাবা দুটো চরিত্রেই থাকছেন রুদ্রনীল ঘোষ। দেবারতি মুখোপাধ্যায়ের লেখা ‘নরক সঙ্কেত’ অবলম্বনে এই ছবির চিত্রনাট্য ও সংলাপ লিখেছেন সৌগত বসু। চিত্রনাট্যে মারণভাইরাসের আগমন হয়েছে একদম বর্তমান পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখেই। নতুন বছরের শুরুতেই মুক্তি পাবে ‘স্বস্তিক সঙ্কেত’। 

বন্ধ করুন