বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > ভিন্ন ভিন্ন স্বাদের চা খেতে ভালোবাসেন? ৩ ধরনের চা বানানোর টিপস রইল আপনাদের জন্য
চায়ের স্বাদ বদল হবে নিমেষে। 
চায়ের স্বাদ বদল হবে নিমেষে। 

ভিন্ন ভিন্ন স্বাদের চা খেতে ভালোবাসেন? ৩ ধরনের চা বানানোর টিপস রইল আপনাদের জন্য

  • এভাবে বানালে চা আর একঘেয়ে লাগবে না! বদল আসবে স্বাদ-গন্ধ-চেহারায়। 

শীত হোক বা গ্রীষ্ম, চা প্রেমীরা সব সময়ই কোনও না কোনও অজুহাতে চা পানের জন্য প্রস্তুত থাকে। আপনারও যদি চা পানের শখ থাকে এবং চায়ের স্বাদ বাড়াতে প্রতিদিন নতুন নতুন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে থাকেন, তাহলে এই প্রতিবেদনটি বিশেষভাবে আপনার জন্য। হ্যাঁ, আজ আমরা আপনাকে কিছু সহজ টিপস এবং কৌশল বলব যা আপনার ঘরের সাধারণ চা-কে করে তুলবে সুস্বাদু।

চা বানানোর দুর্দান্ত কৌশল-

গুড়/মধুর চা

চিনির চা স্বাস্থ্যের দিক থেকে অস্বাস্থ্যকর বলে বিবেচিত হয়। এমনাবস্থায় চায়ে চিনির পরিবর্তে মধু, ব্রাউন সুগার, গুড়, ব্যবহার করে দেখতে পারেন। এগুলোর ব্যবহার চায়ে মিষ্টতা যোগ তো করবেই, সাথে একদম ভিন্ন একটা স্বাদ এনে দেবে চায়ে।

শুকনো লেবুর ব্যবহার

চায়ে শুকনো লেবু ব্যবহার করলে তা দারুণ স্বাদ দেয়। শুকনো লেবু আরবি চায়ে ব্যবহৃত হয় এবং এটি চা তৈরির একটি খুব জনপ্রিয় পদ্ধতি।

শুকনো লেবু চা কীভাবে তৈরি করবেন: শুকনো লেবু দিয়ে চা বানাতে চা পাতা জলে ফুটিয়ে নিন। এবার তাতে শুকনো লেবু দুই টুকরো করে দিয়ে দিন। ভালো করে ফুটনোর পর এতে চিনি দিন। আপনি যদি দুধ দিয়ে চা পান করতে পছন্দ করেন তবে এই ধরণের চা তৈরি করার সময় একেবারে শেষে দুধ যোগ করুন।

ভেষজ চা

চায়ে ভেষজ উপাদান ব্যবহার করলেও স্বাদে পরিবর্তন আসে। তবে এইসব ভেষজ জিনিসগুলি কুচি করবেন না বা ছোট টুকরো করবেন না। বরং, থেঁতো করে চায়ের জল যখন ফুটবে তখন দিয়ে দিন। দেখবেন স্বাদ আর গন্ধ দুটোই আপনার মন নিমেষে জয় করে নিচ্ছে। 

কীভাবে ভেষজ চা বানাবেন: জল ফুটে উঠলে ১/২ ইঞ্চি টুকরো আদা, ২টি এলাচ, ৩-৪টি তুলসি পাতা দিয়ে দিন। এবার চা পাতা দিয়ে কিছুক্ষণ রেখে নামিয়ে দিন। তুলসি পাতার স্বাদ ভালো না লাগলে লবঙ্গ আর দারচিনি দিতে পারেন।

বন্ধ করুন