বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ডালের দাম কমাতে রাজ্যগুলিকে 'অত্যাবশ্যক পণ্য আইন' প্রয়োগের নির্দেশ কেন্দ্রের
'অত্যাবশ্যক পণ্য আইন' প্রয়োগের নির্দেশ কেন্দ্রের (ফাইল ছবি)
'অত্যাবশ্যক পণ্য আইন' প্রয়োগের নির্দেশ কেন্দ্রের (ফাইল ছবি)

ডালের দাম কমাতে রাজ্যগুলিকে 'অত্যাবশ্যক পণ্য আইন' প্রয়োগের নির্দেশ কেন্দ্রের

  • গত দুই সপ্তাহে এক লাফে ১০ শতাংশ বেড়েছে ডালের দাম। 

গত দুই সপ্তাহে এক লাফে ১০ শতাংশ বেড়েছে ডালের দাম। এদিকে করোনা সংক্রমণ রুখতে বিভিন্ন রাজ্যে জারি হয়েছে লকডাউন। এই দুইয়ে মিলে নাজেহাল পরিস্থিতি সাধারণ মানুষের। এই পরিস্থিতিতে 'অত্যাবশ্যক পণ্য আইন' প্রয়োগের মাধ্যমে ডাল মজুত রুখতে রাজ্যগুলিকে নির্দেশ দিল কেন্দ্রীয় সরকার। এর ফলে ডালের দামও নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

এদিন কেন্দ্রের তরফে এই বিষয়ে বলা হয়, 'সব রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলকে নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে যাতে তারা ২২টি অত্যাবশ্যক পণ্যের দামের উপর নজরদারি চালাক। বিশেষ করে ডাল, সবজি, দুধের দামের উপর যেন নজর রাখা হয়। যদি দেখা যায় অস্বাভাবিক ভাবে কোনও পণ্যের দাম বেড়ে যাচ্ছে, তাহলে অবিলম্বে পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে। নিশ্চিত করতে হবে যাতে গ্রাহকদের কাছে সব পণ্য ন্যায্য মূল্যে পৌঁছে দেওয়া যায়।'

এদিকে বর্তমানে সরকার তিন ধরনের ডালের আমদানির অনুমতি দিয়েছে। তিনবছর পর ডাল আমদানির অনুমতি দিয়েছে কেন্দ্র সরকার। বাজারে যাতে ডালের অভাব না দেখা দেয় এবং এর জেরে যাতে ডালের দাম না বাড়ে, তাই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র। আগামী ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত ডালের আমদানির উপর নিষেধাজ্ঞা থাকবে না।

কেন্দ্র জানিয়েছে, সহজ লভ্যতা নিশ্চিত করতে এবং মূল্য যাচাই করে ডালের আমদানি করা হবে। আমদানির প্রক্রিয়া দ্রুত করার জন্য, কেন্দ্র আমদানিতে ফাইটো-স্যানিটারি এবং শুল্ক ছাড়ের মতো দ্রুত নিয়ন্ত্রক অনুমোদনের আদেশ দিয়েছে। মিয়ানমার, আফ্রিকান এবং প্রতিবেশী দেশ থেকে আমদানি করা হবে ডাল। আড়াল লক্ষ টন তুর, দেড় লক্ষ টন উড়দ এবং প্রায় ৫০ থেকে ৭৪ হাজার টন মুঙ ডাল আমদানি করার লক্ষ্যমাত্রা স্থির করেছে কেন্দ্র।

বন্ধ করুন