বড় খবর

বাতিল হোক CAA, দাবি অমর্ত্যর, JNUতে পুলিশের ভূমিকা নিয়েও সরব নোবেলজয়ী

ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

মোদী সরকারের সমালোচনায় ফের মুখর অমর্ত্য সেন।

জেএনইউয়ে আক্রান্ত পড়ুয়াদের পাশে দাঁড়ালেন অমর্ত্য সেন। একই সঙ্গে পুলিশের ভূমিকার সমালোচনা করে নোবেলজয়ী বলেন যে বিচারের অভাব দেখা গিয়েছে এই বিষয়ে। ঐশী ঘোষের বিরুদ্ধে এফআইআর প্রসঙ্গে অমর্ত্যবাবু বলেন যে কীভাবে যাদের মাথায় মারা হয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে পুলিশ ব্যবস্থা নিচ্ছে। তিনি বলেন যে বাইরের থেকে কিছু মুখোশধারী এসে বিশ্ববিদ্যালয়ে নৈরাজ্য সৃষ্টি করল। প্রশাসন ও পুলিশ কেন কিছু করতে পারল না, এই বিষয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। সুষ্ঠ বিচার যে ছাত্রছাত্রীরা পাচ্ছেনা এবং সেটা খুব স্পষ্ট বলে অভিমত তাঁর।


রবিবার রাতে জেএনইউতে অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিরা ঢুকে পড়ুয়াদের ওপর হামলা চালায়। আহত হন জেএনএউ ছাত্র সংগঠনের প্রেসিডেন্ট ঐশী ঘোষ সহ অন্যরা। এখনও যদিও কোনও অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেনি পুলিশ। সময় মতো খবর পাওয়া সত্ত্বেও দিল্লি পুলিশ সেদিন কোনও ব্যবস্থা নেই নি, এই অভিযোগও উঠেছে। এই নিয়ে সরব হয়েছেন অনেক বিশিষ্ট ব্যক্তি। এবার মুখ খুললেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ।

অন্যদিকে সিএএ অর্থাত্ নাগরিকত্ব সংশোধন আইন নিয়ে অমর্ত্য সেন বলেন যে এটি সংবিধান বিরোধী। সিএএ বাতিল করার দাবি তোলেন তিনি। সুপ্রিম কোর্টের সিএএ-কে সংবিধান বিরোধী হিসাবে রায় দেওয়া উচিত, বলেন নোবেলজয়ী।




বন্ধ করুন