বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ভাঙল ১০ বছরের রেকর্ড,দেওয়ালির বাজারের বেচাকেনার হিসাব দেখে তাজ্জব ব্য়বসায়ীরাও
জমে উঠেছে ব্যবসা। (ফাইল ছবি- পিটিআই) (PTI)
জমে উঠেছে ব্যবসা। (ফাইল ছবি- পিটিআই) (PTI)

ভাঙল ১০ বছরের রেকর্ড,দেওয়ালির বাজারের বেচাকেনার হিসাব দেখে তাজ্জব ব্য়বসায়ীরাও

  • গত এক সপ্তাহ ধরে দিল্লি সহ দেশের সর্বত্র দেওয়ালির বাজারে ব্যপক ভিড় হয়েছে। গত দুবছরে যে বাজার করতে পারেননি ক্রেতার, তা যেন এবার একসঙ্গে করে ফেলেছেন।

কোভিড আছে। সংক্রমণের ভয় আছে। এসবের মধ্য়ে বাজার আছে। বাজারে লোকজনও আছেন। এমনকী সেই বাজারে রেকর্ড লেনদেনও আছে। করোনা পরিস্থিতির জেরে ঝিমিয়ে পড়া বাজারে এ যেন একেবারে উপচে পড়া বেচাকেনা। কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডারের দাবি, গত ১০ বছরে দেওয়ালিতে এমন ব্যবসা আর হয়নি। এবার দেওয়ালিতে প্রায় ১,২৫ লক্ষ কোটি টাকার ব্যবসা হয়েছে। দাবি ব্যবসায়ী সংগঠনের। সংগঠনের দাবি আগামী দিনের জন্য আরও আশার আলো দেখছেন ব্যবসায়ীরা।

সংগঠনের তরফে  সংবাদ সংস্থাকে জানানো হয়েছে,  প্রচুর মানুষ এবারের দেওয়ালি বাজার করার জন্য ভিড় করেছিলেন বাজারে। যার জেরে প্রায় ১.২৫ লাখ কোটি টাকার ব্যবসা হয়েছে। গত ১০ বছরে এটা রেকর্ড। এদিকে কোভিড বিধি কিছুটা শিথিল হতেই এই কেনাকাটা বেড়েছে। এমনটাই মনে করছেন ব্যবসায়ীরা। এদিকে সংস্থার তরফে আগে হিসাব করে বলা হয়েছিল দেওয়ালি মরসুমে প্রায় ১ লাখ কোটি টাকার সমস্ত ক্ষেত্রে ব্যবসাপাতি হয়েছে। যেভাবে ক্রেতাদের মধ্যে খরচ করার প্রবণতা রয়েছে তাতে এই বছরের মধ্য়ে প্রায় ৩ লাখ কোটি টাকার ব্যবসা হয়ে যাবে। আশা ব্যবসায়ী সংগঠনের। গত দু বছরে যা হয়নি তা বোধহয় পুষিয়ে দিল এবারই।

সংগঠনের তরফে বিবৃতিতে বলা হয়েছে, গত দুবছর অতিমারি পরিস্থিতির জেরে বাজার একেবারে ঝিমিয়ে গিয়েছিল। তবে গত এক সপ্তাহ ধরে দিল্লি সহ দেশের সর্বত্র দেওয়ালির বাজারে ব্যপক ভিড় হয়েছে। গত দুবছরে যে বাজার করতে পারেননি ক্রেতার, তা যেন এবার একসঙ্গে করে ফেলেছেন। 

বন্ধ করুন