বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ‘আলোচনা বিহীন সংসদীয় গণতন্ত্র দীর্ঘজীবি হোক’, টুইটে মোদীকে বিঁধলেন চিদম্বরম
কংগ্রেস সাংসদ পি চিদম্বরম (ফাইল ছবি) (HT_PRINT)

‘আলোচনা বিহীন সংসদীয় গণতন্ত্র দীর্ঘজীবি হোক’, টুইটে মোদীকে বিঁধলেন চিদম্বরম

  • কৃষি আইন প্রত্যাহার বিল নিয়ে বিরোধীরা আলোচনা চাইলেও কোনও আলোচনা ছাড়াই আইন প্রতযাহার বিল পাশ হয় সংসদের উভয় কক্ষে।

সংসদের শীতকালীন অধিবেশন শুরুর আগেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানিয়েছিলেন যে নিয়ম মেনে সংসদে সব বিষয়ে আলোচনা করতে রাজি সরকার। তবে এরপরও কৃষি আইন প্রত্যাহার বিল নিয়ে বিরোধীরা আলোচনা চাইলেও কোনও আলোচনা ছাড়াই আইন প্রতযাহার বিল পাশ হয় সংসদের উভয় কক্ষেই। এই আবহে এবার প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা কংগ্রেস সাংসদ পি চিদম্বরমের নিশানায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। 

এদিন টুইট করে প্রধানমন্ত্রী মোদীর বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে চিদম্বরম লেখেন, ‘সংসদ অধিবেশন শুরুর আগে প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন সরকার যেকোনও বিষয়ে আলোচনা করতে রাজি। মোদীর সেই বক্তব্য একটি প্রহসন ছিল। কারণ কোনও বিতর্ক বা আলোচনা ছাড়াই কৃষি আইন প্রত্যাহার বিল সংসদে পাশ করা হয়েছে।’ 

চিদম্বরম আরও লেখেন, ‘বিল নিয়ে দুই পক্ষ ঐক্যমত পোষণ করেনি। তা সত্ত্বেও সংসদে আলোচনা ছাড়াই আইন প্রত্যাহার করা হল। প্রধানমন্ত্রী সব বিষয়ে আলোচনার কথা বলেছিলেন। আলোচনা বিহীন সংসদীয় গণতন্ত্র দীর্ঘজীবি হোক।’

উল্লেখ্য, বিরোধীদের তুমুল হট্টগোলকে উপেক্ষা করে লোকসভা ও রাজ্যসভায় পাশ হয় কৃষি আইন প্রত্যাহার বিল। ধ্বনি ভোটে পাশ হয়ে যায় এই কৃষি আইন প্রত্যাহার বিল। কৃষি আইন প্রত্যাহার বিল নিয়ে আলোচনার দাবিতে সরব ছিলেন বিরোধীরা। এদিকে কেন্দ্রীয় কৃষি মন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমার এই বিল বাতিলের প্রস্তাব আনেন। তিনি জানিয়ে দেন এনিয়ে কোনও আলোচনার প্রয়োজন নেই, কারণ সকলেই এই বিল বাতিলের পক্ষে রয়েছেন। 

অবশ্য ফসলের ন্যুনতন দাম পাওয়ার দাবিতে আইন করার আবেদন জানিয়ে কৃষকদের আন্দোলন আজও অব্যাহত। আর এই ইস্যু থেকে রাজনৈতিক ফায়দা তুলতে বিরোধীরা কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সুর চড়াতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

বন্ধ করুন