বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ বাবার বিরুদ্ধে, তিন দিন বাদে উদ্ধার বাবার ঝুলন্ত দেহ
নিজের মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ বাবার বিরুদ্ধে উঠেছে (প্রতীকী ছবি)
নিজের মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ বাবার বিরুদ্ধে উঠেছে (প্রতীকী ছবি)

মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ বাবার বিরুদ্ধে, তিন দিন বাদে উদ্ধার বাবার ঝুলন্ত দেহ

  • ত্রিপুরার উত্তর জেলার এই ঘটনাকে ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য এলাকায়

১৭ বছর বয়সী মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছিল বাবার বিরুদ্ধে। গত ৩১ শে মে ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগও দায়ের করা হয়েছিল। অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, গত ২৮শে মে নিজের বাড়িতে মেয়েকে ধর্ষণ করেছিল বাবা। এদিকে গোটা ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়। এনিয়ে খোঁজখবরও শুরু করেছিল পুলিশ। এসবের মধ্যেই মঙ্গলবার বাড়ি থেকে কিছুটা দূরে একটি গাছ থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার হয় বাবার দেহ। পুলিশ সূত্রে খবর, ত্রিপুরার ধর্মনগরের বাড়ি থেকে ওই জায়গার দূরত্ব প্রায় এক কিলোমিটার। 

পুলিশ সুপার ভানুপদ চক্রবর্তী জানিয়েছেন, ‘মঙ্গলবার একটি গাছ থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় ওই ব্যক্তির দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে, এটা একটা আত্মহত্যার ঘটনা। তার নিজের মেয়েকে ধর্ষণের ঘটনায় সে অভিযুক্ত।’ প্রশ্ন উঠছে তবে কী অনুশোচনায় তিনি আত্মহত্যা করলেন? নাকি তার বিরুদ্ধে মিথ্য়া অভিযোগ করা হয়েছিল? সেই অভিমানে চরম পথ বেছে নিলেন তিনি? 

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে গত বছর নর্থ ডিস্ট্রিক্টে এভাবেই নিজের মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছিল তার বাবার বিরুদ্ধে। তবে সেবার নিজের বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন কন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছিল বাবার বিরুদ্ধে। তবে এই ধরণের ঘটনা ভাবাচ্ছে সমাজতত্ত্ববিদদের। অনেকেরই প্রশ্ন, তবে কি পরিবারের মধ্যেও সুরক্ষিত নন মেয়েরা? তবে কি নিজের বাবার কাছে সুরক্ষিত নন কন্যারা? সমাজের গভীরতর অন্ধকার দিককে নির্দেশ করছে এই ধরণের ঘটনা। বিক্ষিপ্ত হলেও এই ধরণের ঘটনা আরও একবার আয়নার সামনে দাঁড় করাচ্ছে গোটা মানব সমাজকে। 

 

১৭ বছর বয়সী মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছিল বাবার বিরুদ্ধে। গত ৩১ শে মে ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগও দায়ের করা হয়েছিল। অভিযোগ অনুসারে গত ২৮শে মে নিজের বাড়িতে মেয়েকে ধর্ষণ করেছিল বাবা। এদিকে গোটা ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়। এরপরই মঙ্গলবার বাড়ি থেকে কিছুটা দূরে একটি গাছ থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার হয় বাবার দেহ। পুলিশ সূত্রে খবর, ত্রিপুরার ধর্মনগরের বাড়ি থেকে ওই জায়গার দূরত্ব প্রায় এক কিলোমিটার। পুলিশ সুপার ভানুপদ চক্রবর্তী জানিয়েছেন, মঙ্গলবার একটি গাছ থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় ওই ব্যক্তির দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে, এটা একটা আত্মহত্যার ঘটনা। তার নিজের মেয়েকে ধর্ষণের ঘটনায় সে অভিযুক্ত। প্রশ্ন উঠছে তবে কী অনুশোচনায় তিনি আত্মহত্যা করলেন? নাকি তার বিরুদ্ধে মিথ্য়া অভিযোগ করা হয়েছিল? সেই অভিমানে চরম পথ বেছে নিলেন তিনি? 

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে গত বছর নর্থ ডিস্ট্রিক্টে এভাবেই নিজের মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছিল তার বাবার বিরুদ্ধে। তবে সেবার নিজের বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন কন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছিল বাবার বিরুদ্ধে। তবে এই ধরণের ঘটনা ভাবাচ্ছে সমাজতত্ত্ববিদদের। অনেকেরই প্রশ্ন, তবে কি পরিবারের মধ্যেও সুরক্ষিত নন মেয়েরা? তবে কি নিজের বাবার কাছে সুরক্ষিত নন কন্যারা? সমাজের গভীরতর অন্ধকার দিককে নির্দেশ করছে এই ধরণের ঘটনা। বিক্ষিপ্ত হলেও এই ধরণের ঘটনা আরও একবার আয়নার সামনে দাঁড় করাচ্ছে গোটা মানব সমাজকে। 

 

 

|#+|

 

 

 

 

 

বন্ধ করুন