বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > কংগ্রেস থেকে SP হয়ে ফের কংগ্রেস, আর আজ যোগ তৃণমূলে, একনজরে নাফিসার পথ চলা
তৃণমূলে যোগ নাফিসা আলির 
তৃণমূলে যোগ নাফিসা আলির 

কংগ্রেস থেকে SP হয়ে ফের কংগ্রেস, আর আজ যোগ তৃণমূলে, একনজরে নাফিসার পথ চলা

  • ২০০৪ সালে কংগ্রেসের হয়ে কলকাতা দক্ষিণে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে লড়েছিলেন নাফিসা আলি।

তৃণমূল সুপ্রিমো তথা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে আজ গোয়ায় ঘআসফউল শিবিরে নাম লেখান বলিউড অভিনেতা নাফিসা আলি। এক সময়ে কংগ্রেসের হয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ভোটে লড়া নাফিসা আজকে তাঁর নেতৃত্বে তৃণমূল সদস্য হলেন। কলকাতায় জন্ম নেওয়া এখন গোয়ায় তৃণমূলের অন্যতম মুখ।

১৯৭৬ সালে ফেমিনা মিস ইন্ডিয়া খেতাব জেতা নাফিসা ১৯৯৮ সালে নিজের রাজনৈতিক কর্মজীবন শুরু করেছিলেন। সেই সময় তিনি দিল্লিতে বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেস নেত্রী শীলা দীক্ষিতের পক্ষে প্রচার করেছিলেন। যার পরে সোনিয়া গান্ধী নাফিসা আলিকে দিল্লি প্রদেশ কংগ্রেস কমিটির কার্যনির্বাহী সদস্য হিসাবে নিযুক্ত করেছিলেন। নাফিসা আলি দু'বার লোকসভা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন। ২০০৪ সালে কংগ্রেসের হয়ে কলকাতা দক্ষিণে মমতার বিরুদ্ধে লড়েছিলেন নাফিসা। দ্বিতীয়বার ২০০৯ সালে সমাজবাদী পার্টির হয়ে লড়েছিলেন নাফিসা। তবে দু'বারই তিনি হেরেছিলেন। দ্বিতীয়বার লোকসভা নির্বাচনে হারের পর তিনি আবার কংগ্রেসে যোগ দিয়েছিলেন। আর আজ ফের কংগ্রেস ছাড়লেন নাফিসা।

নাফিসা আলির আরও একটি পরিচয় হল যে তিনি একজন সমাজকর্মী এবং ১৯৯৯ সালের ওড়িশা ঘূর্ণিঝড়, ২০০১ সালের ভূজ ভূমিকম্প এবং ২০০২ গুজরাত দাঙ্গার সময়ে পুনর্বাসন কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছিলেন তিনি। তাছাড়া ১৯৭২ থেকে ১৯৭৪ সালের মধ্যে নাফিসা আলি ছিলেন জাতীয় সাঁতারের চ্যাম্পিয়ন এবং মহিলা কমিশন ভারতীয় অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের প্রথম মহিলা চেয়ারপার্সনও ছিলেন তিনি।

নাফিসা আলি একজন বিখ্যাত বলিউড অভিনেতাও। তিনি জনপ্রিয় বহু চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। যেমন, মেজর সাব, লাইফ ইন এ মেট্রো, গুজারিশ, ইয়ামলা পাগলা দিওয়ানা এবং জুনুন। জুনুন সেরা চলচ্চিত্রের জন্য একটি জাতীয় পুরস্কারও জিতেছে। ২০০৫ সালে, তিনি চিলড্রেনস ফিল্ম সোসাইটি অফ ইন্ডিয়ার চেয়ারপার্সন হিসাবে নিযুক্ত হন এবং পুণেতে ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়ার বোর্ড সদস্যও ছিলেন।

বন্ধ করুন