বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Modi-Jiniping Talk: কে চেয়েছিলেন কথা বলতে? মোদী-জিনপিং বার্তালাপ নিয়ে ভিন্ন দাবি বেজিং ও দিল্লির

Modi-Jiniping Talk: কে চেয়েছিলেন কথা বলতে? মোদী-জিনপিং বার্তালাপ নিয়ে ভিন্ন দাবি বেজিং ও দিল্লির

নরেন্দ্র মোদী  (HT_PRINT)

দুই রাষ্ট্রপ্রধানের কথাবার্তা প্রসঙ্গে চিনা বিদেশ মন্ত্রক সম্প্রতি এক বিবৃতি প্রকাশ করে দাবি করে, ভারতের তরফেই নাকি জিনপিংয়ের সঙ্গে কথা বলার আবেদন জানানো হয়েছিল। সেই আবেদনের প্রেক্ষিতেই নাকি জিনপিং কথা বলেছিলেন মোদীর সঙ্গে। এদিকে এই বিবৃতির পরই মুখ খুলেছে ভারতের বিদেশ মন্ত্রক।

ব্রিকস শীর্ষ সম্মেলনের ফাঁকে কথা হয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং শি জিনপিংয়ের। এই বার্তালাপ নিয়েই এখন নতুন করে শুরু হয়েছে কূটনৈতিক চাপানউতোর। দুই রাষ্ট্রপ্রধানের কথাবার্তা বলা প্রসঙ্গে চিনা বিদেশ মন্ত্রক সম্প্রতি এক বিবৃতি প্রকাশ করে দাবি করে, ভারতের তরফেই নাকি জিনপিংয়ের সঙ্গে কথা বলার আবেদন জানানো হয়েছিল। সেই আবেদনের প্রেক্ষিতেই নাকি জিনপিং কথা বলেছিলেন মোদীর সঙ্গে। এদিকে এই বিবৃতির পরই মুখ খুলেছে ভারতের বিদেশ মন্ত্রক। তাদের তরফে বলা হয়েছে, ভারত নয়, বরং চিনই দীর্ঘদিন ধরে দাবি জানিয়ে এসেছিল যাতে জিনপিংয়ের সঙ্গে মোদী কথা বলেন। তার প্রেক্ষিতেই মোদী জিনপিংয়ের সঙ্গে কথা বলেছিলেন।

প্রসঙ্গত, ব্রিকস সম্মেলনের ফাঁকে বৃহস্পতিবার দেখা যায়, মঞ্চের দিকে এগিয়ে আসার সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কথা বলছিলেন চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে। পরে এই বার্তালাপ প্রসঙ্গে ভারতের বিদেশ সচিব জানান, চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংকে প্রধানমন্ত্রী মোদী স্পষ্ট ভাষায় জানিয়েছেন, প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর শান্তি প্রতিষ্ঠা করা খুবই প্রয়োজন। সীমান্তে শান্তি ও স্থিতাবস্থা বজার রাখতে জিনপিংয়ের কাছে আবেদন করেন মোদী।

উল্লেখ্য, ৩ বছর আগে লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় ভারত ও চনা সেনার সংঘর্ষের পর থেকেই দুই দেশের সম্পর্কের অবনতি ঘটেছে। এরপর থেকে বেশ কয়েক দফায় সেনা পর্যায়ের বৈঠক হয়েছে সীমান্তে। তবে তাতে কোনও সমাধানসূত্র বেরিয়ে আসেনি। এদিকে চিনের একাধিক অ্যাপকে বিগত দিনে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে ভারত। চিনা মোবাইল প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলির কর ফাঁকির বিষয়ে কড়া হয়েছে সরকার।

বাণিজ্যের স্বার্থে চিন বরাবর দাবি করেছে, 'পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছ'। তবে ভারত নিজেদের অবস্থানে অনড়। প্রধানমন্ত্রী মোদী থেকে বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকর বারবার বলেছেন, 'সীমান্ত পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে দুই দেশের সম্পর্কের উন্নতি সম্ভব নয়'। আর এই আবহে গত এই তিন বছরে কোনও দ্বিপাক্ষিক বৈঠক হয়নি ভারত ও চিনের দুই রাষ্ট্রপ্রধানের। তবে এর আগে জি২০ সম্মেলনের নৈশভোজের ফাঁকে দুই রাষ্ট্রনেতা মত বিনিময় করেছিলেন। আ রব্রিকস সম্মেলনের ফাঁকেও কথা হয় দু'জনের। এদিকে আর দুই সপ্তাহ পরই জি২০ শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে নয়াদিল্লি আসার কথা শি জিনপিংয়ের।

ঘরে বাইরে খবর
বন্ধ করুন

Latest News

'বিজেপি যোগাযোগ করছিল, এমন কী…' গেরুয়া শিবিরের প্রস্তাব ফিরিয়েছেন, দাবি রাজন্যার রাধিকা মার্চেন্টের দিদিকে চেনেন? জেনে নিন অঞ্জলির আসল পরিচয় ‘ভুলে গেছিলাম যে…’! পিয়ার ‘মা’ বলা হল স্বস্তিকাকে, কী জবাব দিলেন পরমের প্রাক্তন মোটা মাইনের চাকরি রাজ্য সরকারি পদে, বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে PSC, যোগ্যতা কী লাগবে? উদ্দাম যৌনতা, খুন আর সন্দেহভাজন সাত! আসছে সারা-করিশ্মার মার্ডার মুবারক ‘‌আমি ধর্ম–ঈশ্বরে বিশ্বাস করি’‌, সিপিএমে যোগ না দেওয়ার কারণ জানালেন অভিজিৎ IND vs ENG 5th Test: ১০০তম টেস্ট খেলতে যাওয়ার আগে মনের দুঃখ প্রকাশ করলেন অশ্বিন শ্রেয়া নাকি অরিজিৎ!কে সেরা? আম্বানিদের অনুষ্ঠানে গান, ঝগড়া জুড়লেন অনুরাগীরা কোন অঙ্কে লিগ শিল্ড জিততে পারে বাগান? ইস্টবেঙ্গলের প্লে-অফে ওঠার সমীকরণই বা কী? 'মোদী কি গ্যারান্টি' লেখা হোর্ডিং রাখুন পেট্রল পাম্পে, 'অনুরোধ' সরকারের

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.