বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > অক্সিজেন নিয়ে কেন্দ্রকে লাল সংকেত দেখানো হয়েছিল ছয় মাস আগেই!
দেশজুড়ে চলছে অক্সিজেনের আকাল (সৌজন্যে পিটিআই)
দেশজুড়ে চলছে অক্সিজেনের আকাল (সৌজন্যে পিটিআই)

অক্সিজেন নিয়ে কেন্দ্রকে লাল সংকেত দেখানো হয়েছিল ছয় মাস আগেই!

  • স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সংসদীয় স্ট্যান্ডিং কমিটি রিপোর্ট প্রকাশ করে কেন্দ্রকে পরামর্শ দিয়েছিল, চাহিদা অনুযায়ী হাসপাতালে অক্সিজেনের জোগান ঠিক রাখতে সরকারকে অক্সিজেনের উৎপাদন বাড়াতে হবে।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের গ্রাফ ক্রমেই চড়ছে দেশে। এর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে অক্সিজেনের চাহিদা। দেশজুড়ে দেখা গিয়েছে হাহাকার। আর এই পরিস্থিতির আভাস ছয় মাস আগেই কেন্দ্রকে দিয়েছিল সংসদীয় কমিটি। জানা গিয়েছে, গতবছর নভেম্বরে সমাজবাদী পার্টির নেতা রামগোপাল যাদবের নেতৃত্বে গঠিত হয়েছিল স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সংসদীয় স্ট্যান্ডিং কমিটি। সেই কমিটি রিপোর্ট প্রকাশ করে কেন্দ্রকে পরামর্শ দিয়েছিল, চাহিদা অনুযায়ী হাসপাতালে অক্সিজেনের জোগান ঠিক রাখতে সরকারকে অক্সিজেনের উৎপাদন বাড়াতে হবে।

তাছাড়া কমিটি আরও জানিয়েছিল, ন্যাশনাল ফার্মাসিউটিক্যাল প্রাইসিং অথোরিটি অক্সিজেন সিলিন্ডারের ন্যায্য মূল্য ঠিক করে দিক, যাতে বাজারে তা সহজেই পাওয়া যায়। পাশাপাশি দেশের হাসপাতালগুলির বেডের সংখ্যা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করা হয়েছিল রিপোর্টে। দেশের অত্যন্ত খারাপ স্বাস্থ্যব্যবস্থার প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে এই কমিটি কেন্দ্রীয় সরকারকে জনসাধারণের স্বাস্থ্যখাতে আরো বেশি বিনিয়োগ করার পরামর্শ দিয়েছিল। এমনকি দেশের স্বাস্থ্যব্যবস্থার বিকেন্দ্রীকরণ করার কথাও বলেছিল।

জানা গিয়েছে, গত বছর ১৬ অক্টোবর সংসদীয় কমিটির চেয়ারম্যান রামগোপাল যাদবের সঙ্গে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য সচিব রাজেশ ভূষণের একটি বৈঠক হয়। সেখানে রাজেশ করোনার চিকিৎসার জন্য বাইরে থেকে অক্সিজেনের সাপোর্টের উপর জোর দেন। এরপর ওই বছরেই ২১ নভেম্বর কমিটি রাজ্যসভার চেয়ারম্যানের কাছে ওই রিপোর্টে পেশ করা হয়। তবে অভিযোগ, রিপোর্টকে গুরুত্ব দেয়নি কেন্দ্রীয় সরকার।

এদিকে অক্সিজেনের ঘাটতি মেটাতে এবার পিএম কেয়ার ফান্ড ব্যবহার করে ৫৫১টি অক্সিজেন প্ল্যান্ট গঠন করা হবে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে হাসপাতালগুলিতে অক্সিজেনের ঘাটতি মেটাতে এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

পরিস্থিতি মোকাবিলায় একাধিক বৈঠক করেছেন প্রধানমন্ত্রী। অক্সিজেনের অভাব মেটাতে বিদেশ থেকে অক্সিজেন আমদানি করা হবে। পাশাপাশি জার্মানি থেকে ভ্রাম্যমাণ অক্সিজেন প্রস্তুতকারী মেশিন নিয়ে আসা হয়েছে। যা পরিস্থিতি মোকাবিলায় অনেকটাই সাহায্য করবে বলে মনে করা হচ্ছে। 

 

বন্ধ করুন