বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > মিলেছে ‘ফল’, রাজস্থানে মন্ত্রিসভা রদবদলে খুশি ‘গান্ধী অনুগত’ পাইলট
কংগ্রেস নেতা সচিন পাইট (ছবি সৌজন্যে পিটিআই) (PTI)
কংগ্রেস নেতা সচিন পাইট (ছবি সৌজন্যে পিটিআই) (PTI)

মিলেছে ‘ফল’, রাজস্থানে মন্ত্রিসভা রদবদলে খুশি ‘গান্ধী অনুগত’ পাইলট

  • পাইলট বলেন, ‘দলে শুধু একটি গোষ্ঠী আছে দলে - সোনিয়া গান্ধী এবং রাহুল গান্ধীর গোষ্ঠী। আমরা সবাই তারই সদস্য।’

প্রবীণ কংগ্রেস নেতা সচিন পাইলট রবিবার মন্ত্রিসভা রদবদলকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, এটি অনেক চিন্তাভাবনা এবং আলোচনার পরে করা হয়েছে এবং রাজ্য জুড়ে এই রদবদল ভালো বার্তা পৌঁছে দেবে। তিনি নিজের বাসভবনে সাংবাদিকদের উদ্দেশে বলেন, 'আমি খুশি যে দলিতদের প্রতিনিধিত্ব বেড়েছে। এবং আমার দ্বারা উত্থাপিত বহু সমস্যার সুরাহা করেছে দলীয় নেতৃত্ব।'

রাজস্থানের প্রাক্তন উপমুখ্যমন্ত্রী বলেন, চার দলিতকে মন্ত্রিসভায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে এবং একই সাথে উপজাতি ও মহিলাদের প্রতিনিধিত্ব বাড়ানো হয়েছে। এটি একটি প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ ছিল এবং দল ও সরকার এই পদক্ষেপটিকে ফলপ্রসূ করতে কাজ করেছে। তিনি যোগ করেন, উত্তরপ্রদেশে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী মহিলাদের জন্য ৪০ শতাংশ টিকিট সংরক্ষণের ঘোষণা করেছেন। রাজস্থানে মন্ত্রিসভায় মহিলাদের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার বিষয়টি প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর সেই ঘোষণার প্রতিফলন হিসাবে দেখা যেতে পারে।

তিনি বলেন, গত বছর তার উত্থাপিত বিষয়গুলো খতিয়ে দেখতে যে কমিটি গঠন করা হয়েছিল সেটি এই 'ফলাফল' দিয়েছে। তাঁর ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিতদের মন্ত্রিসভায় স্থান দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি দাবি করেন, দলে কোনও গোষ্ঠী নেই এবং ২০২৩ সালের বিধানসভা নির্বাচনে জয়ী হওয়ার জন্য সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করবে। বলেন, 'শুধু একটি গোষ্ঠী আছে দলে - সোনিয়া গান্ধী এবং রাহুল গান্ধীর গোষ্ঠী। আমরা সবাই তারই সদস্য। আমাদের প্রচেষ্টা হবে সম্মিলিতভাবে এগিয়ে যাওয়া এবং পরবর্তী বিধানসভা নির্বাচনে জয়লাভ করা।'

তিনি আরও বলেন, 'সকলেই সম্মিলিতভাবে সোনিয়া, রাহুল এবং প্রিয়াঙ্কার নেতৃত্বে ২০১৮ সালের নির্বাচনে লড়েছে এবং ২১ থেকে বিধানসভা নির্বাচনে ১০০টি আসন অতিক্রম করেছে। আমি সবসময় নীতি, এসসি/এসটি, ওবিসি এবং শ্রমিকদের কথা বলেছি। আমার লক্ষ্য রাজস্থানে আবার দলের সরকারকে ফিরিয়ে আনা।' তাঁর নিজের ভূমিকা সম্পর্কে এক প্রশ্নে, পাইলট বলেন যে পার্টি তাঁর জন্য যা সিদ্ধান্ত নেবে তিনি তাই করবেন।

 

বন্ধ করুন