বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > শুরু হাইপারসনিক যুগ,চিনা টেস্টের জল্পনার মাঝে মিসাইল প্রযুক্তির পরীক্ষা আমেরিকার
প্রতীকী ছবি, সৌজন্যে রয়টার্স (via REUTERS)
প্রতীকী ছবি, সৌজন্যে রয়টার্স (via REUTERS)

শুরু হাইপারসনিক যুগ,চিনা টেস্টের জল্পনার মাঝে মিসাইল প্রযুক্তির পরীক্ষা আমেরিকার

  • বুধবার ভার্জিনিয়ার ওয়ালপসে নাসার একটি কেন্দ্রে এই পরীক্ষাটি হয়।

কয়েকদিন আগেই জল্পনা শুরু হয়েছিল চিনের হাইপারসনিক মিসাইল পরীক্ষা নিয়ে। যদিও সেই জল্পনা উড়িয়ে দিয়েছিল খোদ বেজিং। আর এরই মাঝে এবার হাইপারসনিক মিসাইলের প্রযুক্তির সফল পরীক্ষা করল আমেরিকা। বুধবার ভার্জিনিয়ার ওয়ালপসে নাসার একটি কেন্দ্রে এই পরীক্ষাটি হয়। নৌবাহিনীর নকশা করা সাধারণ হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে মার্কিন নৌবাহিনী।

এর আগে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত রিপোর্টে দাবি করা হয়েছিল, মহাকাশে উড়তে সক্ষম পারমাণবিক হাইপারসনিক মিসাইলের পরীক্ষা করেছে চিন। পরে অবশ্য চিনের তরফে দাবি করা হয়, হাইপারসনিক পারবাণিক মিসাইল নয়, বরং মহাকাশ যানের পরীক্ষা চালানো হয়েছে।

এর আগে এক প্রকাশিত রিপোর্টে দাবি করা হয়, বেজিং গত অগস্ট মাসে একটি পারমাণবিক সক্ষম ক্ষেপণাস্ত্র মহাকাশে উৎক্ষেপণ করে। গোটা বিশ্বের একপাক খেয়ে চিনের মিসাইলটি লক্ষ্যবস্তু ভেদ করতে ব্যর্থ হয়। পৃথিবীকে নিম্ন কক্ষপথে প্রদক্ষিণ করে মিসাইলটি লক্ষ্য থেকে ৩২ কিলোমিটার দূরে গিয়ে পড়ে।

হাইপারসনিক গ্লাইড যানটি একটি লং মার্চ রকেটের সাহায্যে উতক্ষেপণ করা হয়েছিল। এই পরীক্ষণ অগস্টে করা হয়েছিল বিশাল গোপনীয়তা অবলম্বন করে। প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, হাইপারসনিক অস্ত্রের বিষয়ে চিনের অগ্রগতিতে 'মার্কিন গোয়েন্দারা অবাক হয়েছেন।'

বন্ধ করুন