জেগে ওঠে ওয়্যারউল্ফ, যৌন সম্পর্কে মানা...চন্দ্রগ্রহণের পাঁচ মিথ

শুক্রবার রাত ১০টা ৩৭ মিনিটে চন্দ্রগ্রহণ শুরু হবে। চলবে মধ্যরাত গড়িয়ে ২টো ৪২ মিনিট পর্যন্ত। দেশের প্রায় সর্বত্রই এই গ্রহণ দেখা যাবে।চন্দ্রগ্রহণ নিয়ে অসংখ্য মিথ আছে।এক নজরে দেখে নিন পাঁচ মিথ কী কী।

সেক্স করতে মানা- হিন্দু সংস্কৃতিতে বিশ্বাস করা হয় যে চন্দ্রগ্রহণ খারাপ লক্ষণ ও সেই সময়ে যৌনসম্পর্ক করতে নেই। এর কোনও বৈজ্ঞানিক ভিত্তি পাওয়া যায় নি।
1/5সেক্স করতে মানা- হিন্দু সংস্কৃতিতে বিশ্বাস করা হয় যে চন্দ্রগ্রহণ খারাপ লক্ষণ ও সেই সময়ে যৌনসম্পর্ক করতে নেই। এর কোনও বৈজ্ঞানিক ভিত্তি পাওয়া যায় নি।
জেগে ওঠে ওয়্যারউল্ফ- চন্দ্রগ্রহণের দিনেই ওয়্যালউল্ফ সবথেকে ভয়ানক হয়ে ওঠে ও রক্তচোষার মতলবে থাকে বলে অনেকের বিশ্বাস। হ্যারি পটারের গল্পের কথা মনে পড়ছে কি?
2/5জেগে ওঠে ওয়্যারউল্ফ- চন্দ্রগ্রহণের দিনেই ওয়্যালউল্ফ সবথেকে ভয়ানক হয়ে ওঠে ও রক্তচোষার মতলবে থাকে বলে অনেকের বিশ্বাস। হ্যারি পটারের গল্পের কথা মনে পড়ছে কি?
পাপ মুক্তির সেরা সময়- বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন সংস্কৃতিতে বিশ্বাস করা হয় যে পাপমুক্তির সেরা সময় হল গ্রহণের লগ্ম।পুরোনো কোনও বিবাদ ও কলহ থাকলে মিটিয়ে নেওয়ার সেরা সময় এটি।
3/5পাপ মুক্তির সেরা সময়- বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন সংস্কৃতিতে বিশ্বাস করা হয় যে পাপমুক্তির সেরা সময় হল গ্রহণের লগ্ম।পুরোনো কোনও বিবাদ ও কলহ থাকলে মিটিয়ে নেওয়ার সেরা সময় এটি।
বিনাশ আসছে- অনেক সংস্কৃতিতে আবার বিশ্বাস করা হয় যে পৃথিবী শেষ হয়ে যাওয়ার সময় চন্দ্রগ্রহণ হয়। বাইবেলে বলা হয় গ্রহণ হল ভগবানের অন্তিম ঘণ্টার সূচনা, যার পরেই আসে বিনাশ। আজকের দিনে অবশ্য গ্রহণের থেকে পরমানু বিস্ফোরণ থেকে বিশ্ব ধ্বংস হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।
4/5বিনাশ আসছে- অনেক সংস্কৃতিতে আবার বিশ্বাস করা হয় যে পৃথিবী শেষ হয়ে যাওয়ার সময় চন্দ্রগ্রহণ হয়। বাইবেলে বলা হয় গ্রহণ হল ভগবানের অন্তিম ঘণ্টার সূচনা, যার পরেই আসে বিনাশ। আজকের দিনে অবশ্য গ্রহণের থেকে পরমানু বিস্ফোরণ থেকে বিশ্ব ধ্বংস হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।
অনেকে বিশ্বাস করেন যে চাঁদের ইউভি রে থেকে খাদ্য ও পানীয় খারাপ হয়ে যায়। তাই এসময় কিছু খেতে নেই বলেন অনেকে। আসলে অবশ্য এর কোনও বৈজ্ঞানক ভিত্তি নেই। নির্ভয়ে খাওয়াদাওয়া করুন।
5/5অনেকে বিশ্বাস করেন যে চাঁদের ইউভি রে থেকে খাদ্য ও পানীয় খারাপ হয়ে যায়। তাই এসময় কিছু খেতে নেই বলেন অনেকে। আসলে অবশ্য এর কোনও বৈজ্ঞানক ভিত্তি নেই। নির্ভয়ে খাওয়াদাওয়া করুন।
অন্য গ্যালারিগুলি