বাংলা নিউজ > ছবিঘর > ব্যাকগ্রাউন্ড ডান্সার থেকে বলিউডের প্রথম সারির তারকা, এক নজরে সুশান্তের উজ্জ্বল কেরিয়ার

ব্যাকগ্রাউন্ড ডান্সার থেকে বলিউডের প্রথম সারির তারকা, এক নজরে সুশান্তের উজ্জ্বল কেরিয়ার

  • বেঁচে থাকলে আজ সুশান্ত পা দিতেন ৩৫-এ। সুশান্তহীন এই দিনটা এবার থেকে শুধুই সুশান্তের দিন (SushantDay)। ফিরে দেখা প্রয়াত অভিনেতার ১২ বছরের রঙিন কেরিয়ার। 
মাত্র ৩৪ বছরেই ইতি এক প্রতিভাবান শিল্পীর উজ্জ্বল কেরিয়ার। বলিউডের চেনা ছকের বাইরে হাঁটতে ভালোবাসতেন সুশান্ত সিং রাজপুত। তাই শুধু অভিনয়ের মধ্যে নিজেকে আটকে রাখেননি। মহাকাশ তাঁকে হাতছানি দিয়ে ডাকত, অ্যাস্ট্রোনমি আর অ্যাস্ট্রিফিজিক্সের উপর তাঁর প্রবল টান ছিল। গত বছরের ১৪ জুন দিনটা সুশান্ত ভক্তদের জন্য তথা বলিউডের জন্য একটা কালো দিন। মৃত্যুর পর আজ সুশান্তের প্রথম জন্মবার্ষিকী।  (PTI)
1/11মাত্র ৩৪ বছরেই ইতি এক প্রতিভাবান শিল্পীর উজ্জ্বল কেরিয়ার। বলিউডের চেনা ছকের বাইরে হাঁটতে ভালোবাসতেন সুশান্ত সিং রাজপুত। তাই শুধু অভিনয়ের মধ্যে নিজেকে আটকে রাখেননি। মহাকাশ তাঁকে হাতছানি দিয়ে ডাকত, অ্যাস্ট্রোনমি আর অ্যাস্ট্রিফিজিক্সের উপর তাঁর প্রবল টান ছিল। গত বছরের ১৪ জুন দিনটা সুশান্ত ভক্তদের জন্য তথা বলিউডের জন্য একটা কালো দিন। মৃত্যুর পর আজ সুশান্তের প্রথম জন্মবার্ষিকী।  (PTI)
পাটনার ছেলে সুশান্ত। ১৯৮৬ সালের ২১ জানুয়ারি জন্ম অভিনেতার। ইঞ্জিয়ারিংয়ের ছাত্র ছিলেন।পড়াশোনায় বরাবরই তুখোড়। ইঞ্জিয়ারিংয়ের ১১টা এন্ট্রাস পরীক্ষা অচিরেই উতরে গিয়েছিলেন। দেশের অন্যতম সেরা ইঞ্জিয়ারিং কলেজ,দিল্লি কলেজ অফ ইঞ্জিয়ারিংয়ের প্রবেশিকা পরীক্ষায় সপ্তম স্থান পেয়েছিলেন সুশান্ত। তবে ভাগ্যে তাঁর অন্য কিছুই লেখা ছিল। 
2/11পাটনার ছেলে সুশান্ত। ১৯৮৬ সালের ২১ জানুয়ারি জন্ম অভিনেতার। ইঞ্জিয়ারিংয়ের ছাত্র ছিলেন।পড়াশোনায় বরাবরই তুখোড়। ইঞ্জিয়ারিংয়ের ১১টা এন্ট্রাস পরীক্ষা অচিরেই উতরে গিয়েছিলেন। দেশের অন্যতম সেরা ইঞ্জিয়ারিং কলেজ,দিল্লি কলেজ অফ ইঞ্জিয়ারিংয়ের প্রবেশিকা পরীক্ষায় সপ্তম স্থান পেয়েছিলেন সুশান্ত। তবে ভাগ্যে তাঁর অন্য কিছুই লেখা ছিল। 
২০০৮ সালে স্টার প্লাসের ধারাবাহিক কিস দেশ মে হ্যায় মেরা দিলের সঙ্গে অভিনয় শুরু করেন সুশান্ত সিং রাজপুত। টেলিভিশনে কেরিয়ার শুরুর আগে থেকেই মঞ্চে অভিনয় করতেন সুশান্ত। ব্যাক গ্রাউন্ড ডান্সার হিসাবে শমক দাভারের গ্রুপে নাচতেন। সেই থেকেই লাইম লাইটে আসার ভাবনা পিছু ধাওয়া করত সুশান্তের। 
3/11২০০৮ সালে স্টার প্লাসের ধারাবাহিক কিস দেশ মে হ্যায় মেরা দিলের সঙ্গে অভিনয় শুরু করেন সুশান্ত সিং রাজপুত। টেলিভিশনে কেরিয়ার শুরুর আগে থেকেই মঞ্চে অভিনয় করতেন সুশান্ত। ব্যাক গ্রাউন্ড ডান্সার হিসাবে শমক দাভারের গ্রুপে নাচতেন। সেই থেকেই লাইম লাইটে আসার ভাবনা পিছু ধাওয়া করত সুশান্তের। 
সুশান্তের কেরিয়ারের মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছিল পবিত্র রিসতা। প্রথমবার লিড রোলে দর্শক তাকে দেখেছে একতা কাপুরের এই ধারাবাহিকে। রাতারাতি গোটা দেশের মনের মণিকোঠায় মানব হিসাবে জায়গা করে নিয়েছিলেন সুশান্ত।
4/11সুশান্তের কেরিয়ারের মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছিল পবিত্র রিসতা। প্রথমবার লিড রোলে দর্শক তাকে দেখেছে একতা কাপুরের এই ধারাবাহিকে। রাতারাতি গোটা দেশের মনের মণিকোঠায় মানব হিসাবে জায়গা করে নিয়েছিলেন সুশান্ত।
চ্যালেঞ্জ নিতে বরাবরই ভালোবাসতেন সুশান্ত। তাই টেলিভিশনের উজ্জ্বল কেরিয়ার ছেড়ে বলিউডে যাত্রা শুরু করার রিস্ক তিনি নিতে পেরেছিলেন। একতা কাপুরের সিরিয়াল মাঝপথে ছেড়ে দেন তিনি। সুশান্তের ডেব্যিউ ছবি ২০১৩ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত কাই পো ছে। 
5/11চ্যালেঞ্জ নিতে বরাবরই ভালোবাসতেন সুশান্ত। তাই টেলিভিশনের উজ্জ্বল কেরিয়ার ছেড়ে বলিউডে যাত্রা শুরু করার রিস্ক তিনি নিতে পেরেছিলেন। একতা কাপুরের সিরিয়াল মাঝপথে ছেড়ে দেন তিনি। সুশান্তের ডেব্যিউ ছবি ২০১৩ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত কাই পো ছে। 
এরপর শুদ্ধ দেশি রোম্যান্স, ডিটেকক্টিভ ব্যোমকেশ বক্সীর মতো ছবিতে দর্শক দেখেছে এই তারকাকে। 
6/11এরপর শুদ্ধ দেশি রোম্যান্স, ডিটেকক্টিভ ব্যোমকেশ বক্সীর মতো ছবিতে দর্শক দেখেছে এই তারকাকে। 
সুশান্তের কেরিয়ারের সবচেয়ে বড় টার্নিং পয়েন্ট নিঃসন্দেহে এম এস ধোনি দ্য আনটোল্ড স্টোরি। ভারতীয় ক্রিকেট তারকা মহেন্দ্র সিং ধোনির ভূমিকা এত শানদার ভাবে ফুটিয়ে তুলেছিলেন সুশান্ত যে চমকে গিয়েছিলেন স্বয়ং ধোনিও!  ২০১৬ সালে মুক্তি পায় এই ছবি। 
7/11সুশান্তের কেরিয়ারের সবচেয়ে বড় টার্নিং পয়েন্ট নিঃসন্দেহে এম এস ধোনি দ্য আনটোল্ড স্টোরি। ভারতীয় ক্রিকেট তারকা মহেন্দ্র সিং ধোনির ভূমিকা এত শানদার ভাবে ফুটিয়ে তুলেছিলেন সুশান্ত যে চমকে গিয়েছিলেন স্বয়ং ধোনিও!  ২০১৬ সালে মুক্তি পায় এই ছবি। 
ধোনির সাফল্যের পুনারাবৃত্তি সহজ ছিল না। বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়ে সুশান্তের পরের ছবি রাবতা ও কেদারনাথ। এই ব্যর্থতা বড় ধাক্কা ছিল সুশান্তের কাছে। 
8/11ধোনির সাফল্যের পুনারাবৃত্তি সহজ ছিল না। বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়ে সুশান্তের পরের ছবি রাবতা ও কেদারনাথ। এই ব্যর্থতা বড় ধাক্কা ছিল সুশান্তের কাছে। 
সোনাচিড়িয়াতে ডাকাতের ভূমিকায় প্রসংসা কুড়ালেও বক্স অফিসে সাফল্য আসেনি। তবে ২০১৯ সালে নীতিশ তিওয়ারির ছিছোড়ে কাঙ্খিত সাফল্য পায়। সুশান্তের কেরিয়ারের সবচেয়ে হিট ছবি ছিঁড়োছে। ১৫০ কোটি টাকার ব্যবসা করেছিলেন এই ছবি। এটাই অভিনেতার শেষ বক্স অফিস রিলিজ। 
9/11সোনাচিড়িয়াতে ডাকাতের ভূমিকায় প্রসংসা কুড়ালেও বক্স অফিসে সাফল্য আসেনি। তবে ২০১৯ সালে নীতিশ তিওয়ারির ছিছোড়ে কাঙ্খিত সাফল্য পায়। সুশান্তের কেরিয়ারের সবচেয়ে হিট ছবি ছিঁড়োছে। ১৫০ কোটি টাকার ব্যবসা করেছিলেন এই ছবি। এটাই অভিনেতার শেষ বক্স অফিস রিলিজ। 
জীবদ্দশায় সুশান্তের শেষ ছবি ছিল নেটফ্লিক্স অরিজিন্যাসের ড্রাইভ। ছবিতে জ্যাকলিনের সঙ্গে জুটি বেঁধেছিলেন সুশান্ত। পুরোপুরিভাবে ব্যর্থ হয় ধর্মা প্রোডাকশনের এই ছবি। 
10/11জীবদ্দশায় সুশান্তের শেষ ছবি ছিল নেটফ্লিক্স অরিজিন্যাসের ড্রাইভ। ছবিতে জ্যাকলিনের সঙ্গে জুটি বেঁধেছিলেন সুশান্ত। পুরোপুরিভাবে ব্যর্থ হয় ধর্মা প্রোডাকশনের এই ছবি। 
হলিউডি ছবি ফল্ট ইন আওয়ার স্টারের অফিসিয়্যাল রিমেক সুশান্তের শেষ ছবি দিল বেচারা। বন্ধু মুকেশ ছাবরার প্রথম ছবিতে নায়ক হওয়ার কথা দিয়েছিলেন সুশান্ত। কথা রেখেছেন তিনি। কিজি আর ম্যানির এই গল্প মন ছুঁয়েছে গোটা বিশ্বের। রিয়েল-রিল একাকার হয়ে গিয়েছে সুশান্তের মৃত্যুর মাস খানেক পরে মুক্তি পাওয়া এই ছবিতে। গত বছর ভারতের ওটিটি প্ল্যাটফর্মে সবচেয়ে জনপ্রিয় ছবি দিল বেচারা। 
11/11হলিউডি ছবি ফল্ট ইন আওয়ার স্টারের অফিসিয়্যাল রিমেক সুশান্তের শেষ ছবি দিল বেচারা। বন্ধু মুকেশ ছাবরার প্রথম ছবিতে নায়ক হওয়ার কথা দিয়েছিলেন সুশান্ত। কথা রেখেছেন তিনি। কিজি আর ম্যানির এই গল্প মন ছুঁয়েছে গোটা বিশ্বের। রিয়েল-রিল একাকার হয়ে গিয়েছে সুশান্তের মৃত্যুর মাস খানেক পরে মুক্তি পাওয়া এই ছবিতে। গত বছর ভারতের ওটিটি প্ল্যাটফর্মে সবচেয়ে জনপ্রিয় ছবি দিল বেচারা। 
অন্য গ্যালারিগুলি