বাংলা নিউজ > ময়দান > Australia vs India: পন্তের নয়, দোষ সাঙ্গাকারা-গিলক্রিস্টের! ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টকে ঘুরিয়ে কটাক্ষ হর্ষর
ক্যাচ ছাড়ছেন পন্ত। ছবি- টুইটার।
ক্যাচ ছাড়ছেন পন্ত। ছবি- টুইটার।

Australia vs India: পন্তের নয়, দোষ সাঙ্গাকারা-গিলক্রিস্টের! ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টকে ঘুরিয়ে কটাক্ষ হর্ষর

  • সিডনিতে উইল পুকোভস্কির দু'টি ক্যাচ ছাড়েন ঋষভ পন্ত।

ঋষভ পন্তকে নয়, কুমার সাঙ্গাকারা ও অ্যাডাম গিলক্রিস্টকে দোষ দেওয়া উচিত। ঠিক এভাবেই ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টের সমালোচনা করলেন হর্ষ ভোগলে।

শুধুমাত্র ব্যাটিংয়ের ভিত্তিতে অস্ট্রেলিয়ার মতো শক্তিশালী প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে পন্তকে উইকেটকিপিং করানো অনেকেরই যুক্তিহীন মনে হয়েছে। হর্ষ ভোগলে প্রকারান্তরে বুঝিয়ে দিলেন, তিনিই সেই দলেই।

পন্তের থেকে ঋদ্ধিমান সাহা অনেক ভালো উইকেটকিপার, সেটা এতদিনে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটমহলে প্রতিষ্ঠিত। তবে ঋদ্ধির ব্যাটিংয়ে খুশি নয় টিম ম্যানেজমেন্ট। তাই অ্যাডিলেড টেস্টের পর বাদ পড়তে হয় ঋদ্ধিকে। মেলবোর্নের পর সিডনিতেও সুযোগ পেয়ে যান ঋষভ পন্ত।

ঋষভ মেলবোর্নেও ক্যাচ মিস করেছেন। সিডনির প্রথম দিনে ইতিমধ্যেই ২টি সহজ ক্যাচ ছেড়েছেন তিনি। যা দেখার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় পন্তের মুণ্ডপাত শুরু হয়ে গিয়েছে।

হর্ষ ভোগলে সোশ্যাল মিডিয়ায় জানান যে, দোষটা হল সাঙ্গাকারা, গিলক্রিস্টদের মতো তারকাদের, যাঁরা উইকেটকিপারদের ব্যাটিংয়ের মানটাকে অনেক উপরে তুলে দিয়ে গিয়েছেন। আসলে হর্ষ বোঝাতে চাইলেন যে, ব্যাটিংয়ের মান টিম ম্যানেজমেন্টের মনে না ধরায় ভালো উইকেটকিপার হওয়া সত্ত্বেও ঋদ্ধিমানকে বঞ্চিত হতে হচ্ছে। অন্যদিকে ব্যাটিংয়ের হাত তুলনায় ভালো হওয়ায় উইকেটকিপিংয়ের টেকনিক ভালো না হলেও সুযোগ পাচ্ছেন পন্ত। ফলে যা হওয়ার তাই হচ্ছে। পরপর ক্যাচ ছাড়ছেন পন্ত। তাই দোষ সাঙ্গাকারা-গিলক্রিস্টদের।

টুইটারে হর্ষ লেখেন, ‘এর জন্য দোষ সাঙ্গাকারা আর গিলক্রিস্টের। ব্যাট হাতে উইকেটকিপারদের মানটাকে বড্ড উঁচুতে তুলে দিয়ে গিয়েছেন।’

উল্লেখ্য, সিডনিতে অজি ওপেনার উইল পুকোভস্কির দু'টি সহজ ক্যাচ ছাড়েন ঋষভ পন্ত। সেই সুযোগে অভিষেক ম্যাচেই পুকোভস্কি হাফ-সেঞ্চুরি করে দলকে শক্ত ভিতে বসিয়ে দেন।

বন্ধ করুন