বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবলের মহারণ > ডার্বিকে ঘিরে উত্তেজনা বাড়ছে, একই সঙ্গে লাল-হলুদে বিদেশি নিয়ে রয়েছে চোরা টেনশন

ডার্বিকে ঘিরে উত্তেজনা বাড়ছে, একই সঙ্গে লাল-হলুদে বিদেশি নিয়ে রয়েছে চোরা টেনশন

ইস্টবেঙ্গলের বিদেশি নিয়ে রয়েছে জোর জল্পনা।

এশীয় কোটায় অস্ট্রেলিয়ার অ্যারন ইভানসের সঙ্গে ইস্টবেঙ্গলের কথাবার্তা অনেকদূর এগিয়ে গিয়েছে। সূত্রের খবর, তাঁর সঙ্গে কথা কার্যত পাকা হয়ে গিয়েছে। ২৭ বছরের এই তারকা সেন্টার ব্যাক হলেও ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার হিসেবেও তিনি খেলতে পারেন। দীর্ঘ সময় ইন্দোনেশিয়ার সর্বোচ্চ লিগ লিগ ১-এ খেলেছেন ইভান।

ইস্টবেঙ্গলে এখনও পুরোপুরি দল গঠনের কাজ শেষ হয়নি। বিদেশি হিসেবে কেবল মাত্র সই করানো হয়েছে ইভান গঞ্জালেজকে। বাকি পাঁচ বিদেশি কে হবে, তা নিয়ে এখনও চূড়ান্ত কিছু হয়নি। এ দিকে চলতি মাসের ২৮ তারিখেই ডুরান্ডের ডার্বি খেলতে হবে। ডার্বির আগে লাল-হলুদ কিন্তু বেশ অগোছালো। বর্তমানে যোগ্য বিদেশির খোঁজে রয়েছে লাল-হলুদ।

সূত্রের খবর অনুযায়ী সাইপ্রাসের ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার অ্যালেক্স গজিক নজরে রয়েছে ইস্টবেঙ্গলের। তাঁর এজেন্টের সঙ্গে এক প্রস্থ কথাও সারা হয়েছে লাল-হলুদের আধিকারিকদের। ইংল্যান্ড ফুটবলের প্রথম সারির দল সোয়ান্সি সিটির যুব অ্যাকাডেমি থেকে উঠে আসা এই ফুটবলার বর্তমানে খেলেন হিবারনিয়ানে। সাইপ্রাসের জাতীয় দলের জার্সিতে ২০২০ সালে অভিষেক হয়। এখনও পর্যন্ত মধ্যপ্রাচ্যের দলটির হয়ে ১২টি ম্যাচ তিনি খেলেছেন।

আরও পড়ুন: চলছে দল গঠনের কাজ, কনস্ট্যানটাইনের পছন্দের তিন ফুটবলারকে সই করাল ইস্টবেঙ্গল

এশীয় কোটায় অস্ট্রেলিয়ার অ্যারন ইভানসের সঙ্গে ইস্টবেঙ্গলের কথাবার্তা অনেকদূর এগিয়ে গিয়েছে। সূত্রের খবর, তাঁর সঙ্গে কথা কার্যত পাকা হয়ে গিয়েছে। ২৭ বছরের এই তারকা সেন্টার ব্যাক হলেও ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার হিসেবেও তিনি খেলতে পারেন। দীর্ঘ সময় ইন্দোনেশিয়ার সর্বোচ্চ লিগ লিগ ১-এ খেলেছেন ইভান।

আরও পড়ুন: ডার্বির জন্য টিকিটের হাহাকার, ৩০ মিনিটে শেষ অনলাইন টিকিট

এ দিকে জামশেদপুর এফসি সই করিয়ে ফেলল অস্ট্রেলিয়ার তারকা স্ট্রাইকার হ্যারি সইয়ারকে। ন্যাশনাল প্রিমিয়ার লিগে বর্তমানের সর্বোচ্চ গোলদাতা হ্যারি সইয়ারকে সই করিয়ে নিজেদের দল অনেকটাই শক্তিশালী করে ফেলল তারা। সাড়ে ছয় ফুটের কাছাকাছি উচ্চতার এই স্ট্রাইকার সিনিয়র কেরিয়ার শুরু করেন নিউক্যাসেল জেটসের হয়ে। পরের বছর তিনি চলে যান ফিলিপাইন্স লিগে দাভাও আগুইলাসের হয়ে খেলতে। মরসুমের মাঝপথে নাম লেখালেও ১০ গোল করে সেবার গোল্ডেন বুট জিতে নেন তিনি। এরপরে হংকং প্রিমিয়ার লিগেও হ্যারি এএফসি কাপে খেলেছেন তাই পো-র হয়ে।

শেষ দুই মরশুম অজি স্ট্রাইকার খেলেছেন সাউথ মেলবোর্ন এফসিতে। মেলবোর্নের জার্সিতে ২৩ ম্যাচে ১৭ গোল করে তিনিই এই মুহূর্তে এনপিএলের টপ গোলস্কোরার। তার আগে লোনে তিনি নাম লিখিয়েছিলেন গোল্ড কোস্ট নাইটসের হয়ে। লোনে গোল্ড কোস্টে খেলতে গিয়েও মরশুমে ১৫ গোল করেন তারকা।

বন্ধ করুন