বাংলা নিউজ > ময়দান > রোঁলা গারোর আকাশে ফের কালো মেঘের ঘনঘটা
এ বারও পিছিয়ে যাচ্ছে রোঁলা গারো।
এ বারও পিছিয়ে যাচ্ছে রোঁলা গারো।

রোঁলা গারোর আকাশে ফের কালো মেঘের ঘনঘটা

  • গত বছর করোনার জন্য মার্চ থেকে অগস্ট পর্যন্ত টেনিসের সব রকম প্রতিযোগীতামূলক টুর্নামেন্ট স্থগিত হয়ে গিয়েছিল। যে কারণে গত বার উইম্বলডনও করা সম্ভব হয়নি।

সকলকে কিছুটা অবাক করেই এক সপ্তাহ পিছিয়ে দেওয়া হল ফ্রেঞ্চ ওপেন। ২৩ মে থেকে টুর্নামেন্টটি শুরু হওয়ার কথা ছিল। এখন আবার শোনা যাচ্ছে, এক সপ্তাহ পিছিয়ে ৩০ মে থেকে শুরু হবে রোঁলা গারেরা লড়াই। হঠাৎ করে এমন সিদ্ধান্তের কারণ কী?

আয়েোজকদের তরফে যেটুকু জানা গিয়েছে, এক সপ্তাহ দেরীতে শুরু করলে নাকি অনেক বেশি দর্শক আসবে। গত বছর করোনার কারণে চার মাস বাদে ফ্রেঞ্চ ওপেন শুরু হয়েছিল। সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে ফ্রেঞ্চ ওপেন হলেও প্রতিদিন এক হাজারের বেশি দর্শক আসতেন না। 

এ বছরও করোনার ভ্রুকুটি রয়েছে। গত বুধবার থেকে করোনা ভাইরাসের বিধিনিষেধগুলি আরও জোরদার করা হয়েছে। এই বিষয়ে ফ্রান্সের প্রশাসন তৎপর ভূমিকা নিয়েছে। যদিও বন্ধ দরজার পিছনে সমস্ত ক্রীড়াসূচি মেনেই খেলাধূলা চলছে। এদিকে প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ মে  মাসের মাঝামাঝি সময় থেকেই থিয়েটার, সিনেমাহল, মিউজিয়াম খোলার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন। তবে সবটাই পরিস্থিতির উপর নির্ভর করবে।

ফ্রেঞ্চ টেনিস ফেডারেশনের তরফে আবার বলা হয়েছে, করোনার জন্য যদি আবার দু'মাসের টানা লকডাউন হয়, সেক্ষেত্রে অন্য কিছু ভাবা যাবে। তবে এখনই তারা খারাপ কিছু ভাবতে রাজি নয়। বরং টুর্নামেন্ট হবে ধরে নিয়েই সমস্ত ব্যবস্থা করছে তারা।

গত বছর করোনার জন্য মার্চ থেকে অগস্ট পর্যন্ত টেনিসের সব রকম প্রতিযোগীতামূলক টুর্নামেন্ট স্থগিত হয়ে গিয়েছিল। যে কারণে গত বার উইম্বলডনও করা সম্ভব হয়নি। এই বছর এখনও পর্যন্ত নির্দিষ্ট সময়েই উইম্বলডনের সূচি করা রয়েছে। ২৮ জুন থেকে এই টুর্নামেন্ট হওয়ার কথা। তবে অস্ট্রেলীয় ওপেন পিছিয়ে গিয়েছে।

বন্ধ করুন