বাংলা নিউজ > ময়দান > Ind vs Eng: ঋষভ-অক্ষরদের ভয়ডরহীন ক্রিকেটই ভারতের সাফল্যের অন্যতম কারণ, মত বিরাটের
আমদাবাদে ট্রফি হাতে বিরাট কোহলি ও ভারতের তরুণ ব্রিগেড। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
আমদাবাদে ট্রফি হাতে বিরাট কোহলি ও ভারতের তরুণ ব্রিগেড। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

Ind vs Eng: ঋষভ-অক্ষরদের ভয়ডরহীন ক্রিকেটই ভারতের সাফল্যের অন্যতম কারণ, মত বিরাটের

  • টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে যেন ভারতীয় ক্রিকেটে এখন নবজাগরণের হাওয়া।

শুভব্রত মুখার্জি

টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে যেন ভারতীয় ক্রিকেটে এখন নবজাগরণের হাওয়া। চোট-আঘাত হোক বা বিপক্ষের বাঘা বাঘা ক্রিকেটার - কোনওকিছুই যেন ভারতের সামনে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে না। ভারতের নবীন প্রজন্ম ভয়ডরহীনভাবে ক্রিকেটটা খেলে। প্রতিপক্ষে কে বা কারা আছেন, পিচ কেমন, পরিবেশ কেমন - এসব নিয়ে যেন তাদের কোন ভাবনাই নেই। ভাবনা একটাই, নিজেদের সেরাটা নিংড়ে দেওয়া ২২ গজে। আর ফলস্বরূপ একের পর এক সাফল্যে ভারতের ঝুলি পরিপূর্ণ হচ্ছে। ঋষভ পন্ত-অক্ষর প্যাটেলদের মতো তরুণ প্রজন্ম হাত ধরেই উত্থান ঘটছে ভারতের।

আর তা অকপটে স্বীকার করে নিয়েছেন ভারতীয় দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। অক্ষর প্যাটেল, ওয়াশিংটন সুন্দর, ঋষভ পন্তদের ম্যাচ জেতানো পারফরম্যান্স পরিতৃপ্ত করেছে অধিনায়ক বিরাটকে।

আমদাবাদের চতুর্থ টেস্টে ভারত না জিতলে তা অঘটন ঘটত। কতটা লড়াই জো রুটের দল দিতে পারে, তা দেখার অপেক্ষায় ছিলেন সকলে। তবে তৃতীয় টেস্টের মতো সিরিজের চতুর্থ টেস্টেও কার্যত কোনও লড়াই ছাড়াই আত্মসমর্পণ করল ইংল্যান্ড। ভারতের কাছে ইনিংস ও ২৫ রানে ম্যাচ হারলেন রুটরা। ফলে সিরিজে পরাজিত হলেন ১-৩ ফলে।

এই সিরিজ জয়ের ফলে ভারত বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে উঠল। সিরিজ জয়ের পরে উচ্ছ্বসিত অধিনায়ক বিরাট কোহলি বলেন, ‘প্রথম টেস্টে হারের পর যেভাবে ফিরে এলাম আমরা, এটাই তৃপ্তিদায়ক। প্রথম টেস্টে আমরা সেভাবে পারফরম্যান্স দিতে পারিনি। টসে হারাটা একটা বড় কারণ ছিল।’ তরুণ প্রজন্মকে নিয়ে তৃপ্ত বিরাট বললেন, ‘তরুণ ক্রিকেটাররা ভারতীয় দলে সুযোগ পেয়ে নিজেদের সেরাটা উজাড় করে দিয়ে ভয়ডরহীন খেলা তুলে ধরছে। ঋষভ, ওয়াশিংটন মিলে খেলা ঘোরানো পার্টনারশিপ গড়ল। অক্ষর বল হাতে দারুণভাবে নিজেকে মেলে ধরল। অধিনায়ক হিসেবে আর এর থেকে বেশি কী চাই!' অশ্বিনকে ভারতীয় দলের সম্পদ স্বীকার করে নিয়ে বিরাট বলেন ‘টেস্ট ক্রিকেটের জন্য গত ছয়-সাত বছর ধরে অশ্বিনকে আমরা রেখেছি।’

বন্ধ করুন