বাংলা নিউজ > ময়দান > হারতে হারতে সিরিজ জিতল পাকিস্তান!
সিরিজ জয়ের পরে টিম পাকিস্তান(ছবি:টুইটার)
সিরিজ জয়ের পরে টিম পাকিস্তান(ছবি:টুইটার)

হারতে হারতে সিরিজ জিতল পাকিস্তান!

রবিবার ম্যাচ ও  সিরিজ জেতার দুর্দান্ত সুযোগ পেয়েছিল জিম্বাবোয়ে। ১৩ ওভার শেষে জিম্বাবোয়ের রান ছিল ১০০। বাকি ৭ ওভারে ৬৬ রান তুললেই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি সিরিজ জেতার কীর্তিটা তৈরি করত তারা। কিন্তু এমন সুযোগ হেলায় হারাল জিম্বাবোয়ে।

রবিরার জিম্বাবোয়ের বিরুদ্ধে সিরিজের তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে ২৪ রানে জয় পেল পাকিস্তান। ২-১ ব্যবধানে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতে নিল টিম পাকিস্তান। এদিন টসে জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় পাকিস্তান। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৩উইকেট হারিয়ে ১৬৫ রান তোলে তারা। জবাবে ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে জিম্বাবোয়ে করে ১৪১ রান। 

এদিন ম্যাচ ও  সিরিজ জেতার দুর্দান্ত সুযোগ পেয়েছিল জিম্বাবোয়ে। ১৩ ওভার শেষে জিম্বাবোয়ের রান ছিল ১০০। বাকি ৭ ওভারে ৬৬ রান তুললেই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি সিরিজ জেতার কীর্তিটা তৈরি করত তারা। কিন্তু এমন সুযোগ হেলায় হারাল জিম্বাবোয়ে।

প্রথম ম্যাচে কষ্টার্জিত জয়ের পর দ্বিতীয় ম্যাচে হেরেই বসেছিল পাকিস্তান। তা-ও ১১৯ রানের লক্ষ্যে ৯৯ রানে অলআউট হয়েছিল তারা। সিরিজের তৃতীয় ম্যাচেও হারের সম্ভাবনা তৈরি হয়েছিল পাকিস্তানের সামনে। ১৬৫ রানের লক্ষ্যে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ছিলেন জিম্বাবোয়ে। ওপেনার ওয়েসলি মাধভেরে। পরবর্তী সময়ে মাধভেরে সঙ্গী পেয়েছিলেন তাদিবানাশে মারুমানিকে। দুজনে ৪৫ বলে ৬৫ রান তুলে দলকে সুবিধাজনক অবস্থায় নিয়ে যান। ৩৭ বলে অর্ধশতরান করেন মাধভেরে। ১৩তম ওভারের শেষ বলে মারুমানির স্টাম্প উপড়ে নেন হাসনাইন। ২৬ বলে ৩৫ রানে করে থামেন মারুমানি। জিম্বাবোয়ের জয়ের সম্ভাবনা তখনও ছিল। কিন্তু এরপরে মাধভেরে আউট হতেই যেন সব সম্ভাবনা শেষ হয়ে যায়। এরপর যারাই ব্যাট হাতে নামেন তাঁদের মধ্য়ে টেলর বাদে কারোরই রান দুই সংখ্যা পার করতে পারেনি। ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে মাত্র ১৪১ রানই তুলতে পারে জিম্বাবোয়ে।  আটকে যায়। পাকিস্তানের হয়ে বল হাতে হাসান আলি নেন ৪টি উইকেট। ম্যাচের সেরা নির্বাচিত হন তিনি। সিরিজের সেরা নির্বাচিত হন মহম্মদ রিজওয়ান।

বন্ধ করুন