বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > TMC: তৃণমূলের জেলা চেয়ারম্যান–সভাপতিদের নির্দেশ, ১৫ দিন অন্তর দিতে হবে রিপোর্ট
তৃণমূল কংগ্রেস। (ছবি সৌজন্যে এএনআই)

TMC: তৃণমূলের জেলা চেয়ারম্যান–সভাপতিদের নির্দেশ, ১৫ দিন অন্তর দিতে হবে রিপোর্ট

  • সাংগঠনিক রদবদলের পর মালদহ, মুর্শিদাবাদ, দুই দিনাজপুর, দার্জিলিং, আলিপুরদুয়ার এবং জলপাইগুড়ির নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক করেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই বৈঠকেই তিনি বার্তা দিয়েছেন, সংগঠনকে বুথ স্তর থেকে শক্তিশালী করতে হবে।

সদ্য তৃণমূল কংগ্রেসের সংগঠনে একাধিক রদবদল হয়েছে। জেলা চেয়ারম্যান থেকে শুরু করে সভাপতি পদে একাধিক বদল এনেছে তৃণমূল কংগ্রেস। এবার যাঁরা দায়িত্ব পেয়েছেন তাঁদের পারফর্ম্যান্স রিপোর্ট নজরে রাখবে তৃণমূল কংগ্রেস। বুথ স্তর থেকে সংগঠনে কেমন কাজ করছেন তাঁরা খোঁজখবর রাখবেন দলের শীর্ষ নেতৃত্ব। তাই বুথ স্তর থেকে সংগঠনকে শক্তিশালী করতে জেলা নেতৃত্বকে ১৫ দিন অন্তর বৈঠক করে একটি রিপোর্ট তৈরির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিষয়টি ঠিক কী ঘটেছে?‌ গত ১ অগস্ট দলীয় সংগঠনে ব্যাপক রদবদল করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। তাতে দেখা গিয়েছে, ৩৫টি সাংগঠনিক জেলার সভাপতি এবং চেয়ারম্যানের নাম ঘোষণা করা হয়। এমনকী বেশকিছু নতুন মুখ যেমন উঠে এসেছে, তেমনই বর্ষীয়ান নেতৃত্বকেও রাখা হয়েছে ওই কমিটিতে। বছর ঘুরলেই পঞ্চায়েত নির্বাচন। তাই জেলা ধরে সাংগঠনিক বৈঠক শুরু করেছেন সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

আর কী জানা যাচ্ছে?‌ সাংগঠনিক রদবদলের পর মালদহ, মুর্শিদাবাদ, দুই দিনাজপুর, দার্জিলিং, আলিপুরদুয়ার এবং জলপাইগুড়ির নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক করেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই বৈঠকেই তিনি বার্তা দিয়েছেন, সংগঠনকে বুথ স্তর থেকে শক্তিশালী করতে হবে। পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু হলেও মূল লক্ষ্য আগামী লোকসভা নির্বাচন। তাই বুথ ভিত্তিক সংগঠনের সুবিধা–অসুবিধার পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট চান তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক। জেলা চেয়ারম্যান এবং সভাপতিরা ১৫ দিন অন্তর বৈঠক করে বড় সমস্যার কথা রাজ্য নেতৃত্বকে জানাবেন।

ঠিক কী বার্তা দেওয়া হয়েছে?‌ জেলা চেয়ারম্যান এবং সভাপতিদের সঙ্গে বৈঠকে অভিষেক স্পষ্ট করেছেন যে, সাংসদ–বিধায়ক কিংবা জেলা নেতৃত্বের পক্ষ থেকে প্রার্থীর নামের সুপারিশ এলেই তা গ্রাহ্য হবে না। রাজ্য নেতৃত্ব প্রার্থীদের সম্পর্কে আগে বিশদে খোঁজখবর নেবেন। অনৈতিক কাজে জড়িত কাউকেই দল আর প্রার্থী করবে না। একইসঙ্গে জেলার সমীকরণ এবং জেলায় সাংগঠনিক কেমন কাজ হয়েছে তার রিপোর্ট পেশ করতে হবে।

বন্ধ করুন