বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ধূপগুড়ি উপনির্বাচনের প্রচারে দেখা গেল না অনন্ত মহারাজকে, শুরু জোর চর্চা

ধূপগুড়ি উপনির্বাচনের প্রচারে দেখা গেল না অনন্ত মহারাজকে, শুরু জোর চর্চা

অনন্ত মহারাজ। (টুইটার)

ধূপগুড়িতে বিজেপি প্রথম ২০১৮ সালে ভাল ফল করে। তখন ধূপগুড়ি পুরসভা নির্বাচনে চারটি ওয়ার্ড জিতেছিল বিজেপি। সেই শুরু। তারপর পঞ্চায়েত নির্বাচনেও ওখানে খাতা খুলেছিল গেরুয়া শিবির। এমনকী ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি জলপাইগুড়ি আসনে জেতে। একুশের বিধানসভা নির্বাচনে তারা ধুপগুড়িতে জেতে ৪,৩৫৫ ভোটে।

হাতে আর তিনদিন। তারপরই আগামী মঙ্গলবার ধূপগুড়ি উপনির্বাচন। প্রচারের ক্ষেত্রেও মাত্র তিনদিন। কিন্তু রাজবংশী অধ্যুষিত ধূপগুড়ি উপনির্বাচনে একবারের জন্যও প্রচারে দেখা গেল না অনন্ত মহারাজকে। অথচ রাজবংশী ভোট পেতে মরিয়া বিজেপি। মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্যকে বিকৃত করে ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে ফায়দা তুলতে চেয়েছিলেন খোদ বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। বাংলা থেকে বিজেপির প্রথম রাজ্যসভার সাংসদ হয়েছেন অনন্ত মহারাজ। ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে রাজবংশী ভোটকে পেতেই অনন্ত মহারাজকে রাজ্যসভায় পাঠিয়েছে তারা। ধূপগুড়ি উপনির্বাচনের প্রচারে তারকা প্রচারকদের তালিকায় ছিল অনন্ত মহারাজের নাম। কিন্তু তাঁকে দেখা গেল না।

অনন্ত মহারাজ প্রচারে নেই কেন? বিজেপি সূত্রে খবর, ধূপগুড়ি উপনির্বাচনে অনন্ত মহারাজ প্রচারে এলে ‘পৃথক কোচবিহার’ ইস্যু জেগে উঠবে। তাই অনন্ত মহারাজকে ধুপগুড়ির প্রচারে নামানোর পরিকল্পনা করে সেখান থেকে সরে এল বিজেপি। রাজ্য নেতৃত্ব এই সিদ্ধান্ত থেকে সরে এলেও বিষয়টি প্রকাশ্যে বলেননি। কারণ অনন্ত মহারাজকে প্রচারে নামালে ভোট কমে যেতে পারে। এখন রাজ্যসভায় বিজেপির সাংসদ হলেও অনন্ত মহারাজের দল ‘গ্রেটার কোচবিহার পিপল্‌স অ্যাসোসিয়েশন’ এখনও রয়ে গিয়েছে। ওই দলের দাবি পৃথক কোচবিহার রাজ্য। অনন্ত মহারাজ বিজেপিতে এসেও আগের দাবি থেকে সরে এসেছেন বলে জানাননি। ফলে নানা প্রশ্ন উঠতেই পারে।

রাজনৈতিক সমীকরণ ঠিক কেমন?‌ একুশের নির্বাচনের পর দু’টি জেতা আসন নদিয়ার রানাঘাট এবং কোচবিহারের দিনহাটা উপনির্বাচনে হেরেছে বিজেপি। তাই বিজেপির কাছে বড় চ্যালেঞ্জ ধূপগুড়ি জেতা। বছর ঘুরলেই লোকসভা নির্বাচন। তার আগে ধূপগুড়ি ধরে রাখতে পারলে সুবিধা হবে। তাই ২৮ অগস্ট থেকেই ধূপগুড়ির মাটিতে পড়ে রয়েছেন সুকান্ত মজুমদার। আজ, শুক্রবার রাতে জলপাইগুড়ি যাচ্ছেন দিলীপ ঘোষ। শনিবার দিনভর ধূপগুড়িতে প্রচার করার কথা তাঁর। জলপাইগুড়ির সাংসদ জয়ন্তকুমার রায়, ফালাকাটার বিধায়ক দীপক বর্মণও প্রচারে করছেন। শুধু অনন্ত মহারাজের দেখা নেই।

আরও পড়ুন:‌ আর হবে না ট্রেন লেট, শিয়ালদা শাখায় কোন নতুন প্রযুক্তি নিয়ে এল রেল?‌

আর কী জানা যাচ্ছে?‌ ধূপগুড়িতে বিজেপি প্রথম ২০১৮ সালে ভাল ফল করে। তখন ধূপগুড়ি পুরসভা নির্বাচনে চারটি ওয়ার্ড জিতেছিল বিজেপি। সেই শুরু। তারপর পঞ্চায়েত নির্বাচনেও ওখানে খাতা খুলেছিল গেরুয়া শিবির। এমনকী ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি জলপাইগুড়ি আসনে জেতে। একুশের বিধানসভা নির্বাচনে তারা ধুপগুড়িতে জেতে ৪,৩৫৫ ভোটে। কিন্তু এবারের পঞ্চায়েত নির্বাচনে সেই ধারা অব্যাহত নেই। এবারের উপনির্বাচনে মূল প্রতিদ্বন্দ্বীরা সকলেই রাজবংশী। সিপিএমের ঈশ্বরচন্দ্র রায়, তৃণমূল কংগ্রেসের নির্মলচন্দ্র রায় এবং বিজেপির তাপসী রায়। সুতরাং এখন দেখার খেলা কোন দিকে গড়ায়।

বাংলার মুখ খবর
বন্ধ করুন

Latest News

বিনা যুদ্ধে তৃণমূলকে উপহার, বিজেপির প্রার্থী তালিকা দেখে আর কী লিখলেন দেবাংশু? শ্রীময়ীর সিঁথি সিঁদুরে রাঙিয়ে দিলেন কাঞ্চন, দেখুন বিয়ের পর প্রথম ছবি গায়ে হলুদে বরের গাল ধরে আদর শ্রীময়ীর, সন্ধ্যায় সারলেন কাঞ্চনের সঙ্গে মালাবদল প্লে-অফ নিশ্চিত মুম্বই আর ওড়িশার, এদিকে বাগান নেমে গেল তিনে,পতন হল লাল-হলুদেরও ১০০০ নিউ জেনারেশন অমৃত ভারত, ২৫০ কিমিতে ছুটবে ট্রেন, বিরাট আশ্বাস রেলমন্ত্রীর 'শরীর-ই সব...' ভরা মঞ্চে হুংকার শিলাজিতের, ভক্তদের শেখালেন কোন 'পাঠ'? Warning for Windows 10 and 11 Users: হতে পারে বড় বিপদ, সতর্ক করল কেন্দ্র দুঃস্থ পথসিশুদের মধ্যে শিক্ষার আলো ছড়াচ্ছেন, অমরেশের দাদাগিরিতে মুগ্ধ সৌরভ মাদ্রাসায় নিয়োগে সাড়ে ১২ হাজার চাকরি প্রার্থীর আবেদন খারিজ, কী জানাল কোর্ট? ১৮ বছর পর নতুন ঠিকানায় উঠে আসছে কংগ্রেসের ওয়ার রুম, এটা কার বাংলো জানেন?

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.