বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > পিল পিল করে আসছেন পূণ্য়ার্থীরা, ক্রমেই মাথায় উঠছে গঙ্গাসাগরের কোভিড বিধি
কোভিড বিধি মেনে চলার জন্য চলছে সচেতনতামূলক প্রচার 
কোভিড বিধি মেনে চলার জন্য চলছে সচেতনতামূলক প্রচার 

পিল পিল করে আসছেন পূণ্য়ার্থীরা, ক্রমেই মাথায় উঠছে গঙ্গাসাগরের কোভিড বিধি

  • কলকাতা পুলিশের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, বাবুঘাটে ভ্যাকসিন সার্টিফিকেট দেখা হচ্ছে। যাদের ডবল ভ্য়াকসিনেসন আছে তাদেরই বাস থেকে নামার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে।

 শুক্রবার মকর সংক্রান্তি। তার আগে সাগরে পূণ্যস্নানের জন্য দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে দলে দলে আসছেন পূণ্যার্থীর দল। আর তাঁদের এই ভিড়ের চাপে কোভিড বিধি কার্যত শিকেয় ওঠার জোগাড়। কর্তৃপক্ষের আশা শুক্রবারের মধ্যে অন্তত দেড় মিলিয়ন পূণ্য়ার্থী সাগরে চলে আসবেন। এদিকে ২০২০ সালে পাঁচ মিলিয়ন পূণ্যার্থী সাগরে এসেছিলেন। বলা হয় প্রয়াগের কুম্ভ মেলার পরে এখানেই সবথেকে বেশি পূণ্যার্থীরা আসেন। 

এদিকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সরকারি আধিকারিক বলেন, ভিড় যত বাড়বে কোভিড সুরক্ষাও তত দূরে চলে যাবে। অনেকেই মাস্ক পরছেন না। দূরত্ব বিধিও মানছেন না অনেকে। তবে সচেতনতা ফেরাতে মাইকে ঘোষণা করা হচ্ছে। কলকাতা পুলিশের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, বাবুঘাটে ভ্যাকসিন সার্টিফিকেট দেখা হচ্ছে। যাদের ডবল ভ্য়াকসিনেসন আছে তাদেরই বাস থেকে নামার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে। এদিকে ডায়মন্ডহারবার, কলকাতা, কুলপি, কাকদ্বীপে ক্যাম্প করা হয়েছে। কিন্তু সকলের পরীক্ষা করা সম্ভব হচ্ছে না। তবে মুখ্যমন্ত্রী ইতিমধ্যেই অনুরোধ করেছেন যাতে সাগরে ভিড় বেশি না হয়। তিনি জানিয়েছেন বাইরে থেকে যারা আসবেন তাঁরা ভাইরাস নিয়ে আসতে পারেন। কিন্তু কত মানুষকে টেস্ট করা সম্ভব? এদিকে কোর্টের ঠিক করা দু সদস্যের কমিটি বুধবার সন্ধ্যায় ইতিমধ্যেই সামগ্রিক পরিস্থতি খতিয়ে দেখেছেন।

 শুক্রবার মকর সংক্রান্তি। তার আগে সাগরে পূণ্যস্নানের জন্য দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে দলে দলে আসছেন পূণ্যার্থীর দল। আর তাঁদের এই ভিড়ের চাপে কোভিড বিধি কার্যত শিকেয় ওঠার জোগাড়। কর্তৃপক্ষের আশা শুক্রবারের মধ্যে অন্তত দেড় মিলিয়ন পূণ্য়ার্থী সাগরে চলে আসবেন। এদিকে ২০২০ সালে পাঁচ মিলিয়ন পূণ্যার্থী সাগরে এসেছিলেন। বলা হয় প্রয়াগের কুম্ভ মেলার পরে এখানেই সবথেকে বেশি পূণ্যার্থীরা আসেন। 

এদিকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সরকারি আধিকারিক বলেন, ভিড় যত বাড়বে কোভিড সুরক্ষাও তত দূরে চলে যাবে। অনেকেই মাস্ক পরছেন না। দূরত্ব বিধিও মানছেন না অনেকে। তবে সচেতনতা ফেরাতে মাইকে ঘোষণা করা হচ্ছে। কলকাতা পুলিশের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, বাবুঘাটে ভ্যাকসিন সার্টিফিকেট দেখা হচ্ছে। যাদের ডবল ভ্য়াকসিনেসন আছে তাদেরই বাস থেকে নামার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে। এদিকে ডায়মন্ডহারবার, কলকাতা, কুলপি, কাকদ্বীপে ক্যাম্প করা হয়েছে। কিন্তু সকলের পরীক্ষা করা সম্ভব হচ্ছে না। তবে মুখ্যমন্ত্রী ইতিমধ্যেই অনুরোধ করেছেন যাতে সাগরে ভিড় বেশি না হয়। তিনি জানিয়েছেন বাইরে থেকে যারা আসবেন তাঁরা ভাইরাস নিয়ে আসতে পারেন। কিন্তু কত মানুষকে টেস্ট করা সম্ভব? এদিকে কোর্টের ঠিক করা দু সদস্যের কমিটি বুধবার সন্ধ্যায় ইতিমধ্যেই সামগ্রিক পরিস্থতি খতিয়ে দেখেছেন।

|#+|

 

 

বন্ধ করুন