বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > গোর্খাল্যান্ড নয়, জিটিএ নিয়ে বৈঠক চেয়ে রাজ্যকে ‘‌সংশোধিত’‌ চিঠি কেন্দ্রের
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

গোর্খাল্যান্ড নয়, জিটিএ নিয়ে বৈঠক চেয়ে রাজ্যকে ‘‌সংশোধিত’‌ চিঠি কেন্দ্রের

  • ৭ অক্টোবর, বুধবার সকাল ১১টায় দিল্লির নর্থ ব্লকে ১১৯ নম্বর রুমে এই বৈঠক ডাকা হয়েছে। এবং এই বৈঠকে সভাপতিত্ব করবেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জি কিসান রেড্ডি।

স্থান–কাল–পাত্র একই থাকল। কিন্তু ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বদলে গেল আলোচনার বিষয়। গোর্খাল্যান্ড নিয়ে নয়, জিটিএ (গোর্খাল্যান্ড টেরিটোরিয়াল অ্যাডমিনিস্ট্রেশন) নিয়ে আলোচনা চেয়ে রাজ্যকে নতুন করে চিঠি পাঠাল কেন্দ্র। তাতে তারিখ রয়েছে আজকের অর্থাৎ ৫ অক্টোবর ২০২০–র।

কিন্তু এর আগে ৩ অক্টোবরে পাঠানো চিঠিতে সরাসারি গোর্খাল্যান্ড ইস্যু নিয়ে আলোচনার ডাক দিয়েছিল কেন্দ্র। সেই চিঠি পাঠানো হয় রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিব, জিটিএ–এর প্রধান সচিব, দার্জিলিংয়ের জেলাশাসক ও গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার সভাপতিকে। এদিনের নতুন চিঠিও আগের ঠিকানাগুলিতেই পাঠানো হয়েছে। তবে বদলে গিয়েছে আলোচনার বিষয়।

আগের চিঠির মতো বৈঠকের স্থান ও কাল একই রয়েছে এই নতুন চিঠিতে। ৭ অক্টোবর, বুধবার সকাল ১১টায় দিল্লির নর্থ ব্লকে ১১৯ নম্বর রুমে এই বৈঠক ডাকা হয়েছে। এবং এই বৈঠকে সভাপতিত্ব করবেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জি কিসান রেড্ডি।

উল্লেখ্য, এর আগে পাঠানো চিঠি প্রকাশ্যে আসতেই বিজেপি ও কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বাংলা ভাগের চক্রান্তের অভিযোগ করেন বিরোধীরা। তৃণমূল নেতা গৌতম দেব বলেন, ‘‌বাংলা ভাগের ষড়যন্ত্র করছে বিজেপি। কোনওভাবেই তা সফল হতে দেওয়া যাবে না।’‌ এই নিয়ে বিতর্ক তৈরি হতেই নতুন করে কেন্দ্র চিঠি দিল কিনা তা নিয়ে রাজ্য রাজনীতিতে জল্পনা দেখা দিয়েছে।

কিছুদিন আগেই গোর্খাল্যান্ড নিয়ে সংসদে প্রশ্ন তুলেছিলেন দার্জিলিংয়ের সাংসদ রাজু বিস্তা। পশ্চিমবঙ্গ থেকে দার্জিলিং ভাগ করে পৃথক রাজ্য ঘোষণার সেই দাবিতে টেবিল চাপড়ে সমর্থন জানিয়েছিলেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষও। সেই ভিডিও ছড়িয়ে পড়তে নানা মহলে নানা প্রশ্ন ওঠে, বিতর্ক দেখা দেয়। এবার ফের সরাসরি গোর্খাল্যান্ড ইস্যুতে হস্তক্ষেপ করল কেন্দ্র।

২০১৭–র গোর্খাল্যান্ড আন্দোলনের পর থেকেই এই দাবি আরও জোড়ালো হয়ে উঠেছে। ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে দার্জিলিং থেকে সংসদে যান রাজু বিস্তা। তাঁর নেতৃত্বে আরও প্রবল গোর্খাল্যান্ডে দাবি। এর আগে চলতি বছরে জুলাই মাসে এ নিয়ে কেন্দ্রে একটি বৈঠক ডাকা হয়। যদিও সেটি বাতিল হয়ে গিয়েছিল।

বন্ধ করুন