বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > কুমীরে খেয়েছিল পা, বোনলেস মাংসে জন্মদিন পালন রাজার, শুভেচ্ছা বনমন্ত্রীর
বাঘের জন্মদিন পালন খয়েরবাড়িতে (সংগৃহীত )
বাঘের জন্মদিন পালন খয়েরবাড়িতে (সংগৃহীত )

কুমীরে খেয়েছিল পা, বোনলেস মাংসে জন্মদিন পালন রাজার, শুভেচ্ছা বনমন্ত্রীর

  • বিভিন্ন মহল থেকে দাবি করা হয় সেই রাজাই এখন বন্দিদশায় থাকা বিশ্বের বয়স্কতম বাঘ।

২০০৮সালের ২৩শে অগস্ট। ডুয়ার্সের জলদাপাড়ার খয়েরবাড়ি ব্যাঘ্র পুনর্বাসন কেন্দ্রে আনা হয়েছিল অসুস্থ বাঘটাকে। আসলে সুন্দরবনের ঝড়খালিতে খাঁড়িতে কুমীরের কামড়ে তার পেছনের পা মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। বনকর্মীরা তাকে উদ্ধার করে খয়েরবাড়িতে নিয়ে আসে। আর তারপর থেকেই এই খয়েরবাড়িই তার ঠিকানা হয়ে যায়। নাম রাখা হয় রাজা।

 

 বিভিন্ন মহল থেকে দাবি করা হয় সেই রাজাই এখন বন্দিদশায় থাকা বিশ্বের বয়স্কতম বাঘ। ২৫ বছর পার করেছে রাজা। স্বাভাবিকভাবে জঙ্গলে থাকা বাঘের তুলনায় একটু বেশিদিনই এই পৃথিবীতে রয়েছে রাজা। আর রাজাকে নিয়ে একেবারে উচ্ছসিত বনদফতর। খোদ বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক টুইট করে লিখেছেন ২৫ বছর পার করল রাজা।হ্যাপি বার্থ ডে। সোমবারই জন্মদিন পালিত হয়েছে ওই বাঘের।

 

বনদফতর সূত্রে খবর রাজার জন্মদিন পালনের অঙ্গ হিসাবে জলদাপাড়ার বিভিন্ন ইউনিটে নানা কর্মসূচি নেওয়া হচ্ছে। তবে খোদ রাজার জন্য বরাদ্দ হয় বিশেষ খাবার। আট কেজি মাংসের সঙ্গে প্রায় ৩ কেজি মেটে দেওয়া হয় রাজাকে। ভালো করে স্নান করিয়ে রাজাকে খাওয়ানো হয়েছে। তবে বয়স তো একটু হয়েছেই। যে মাংস রাজাকে দেওয়া হয় তার থেকে প্রায় ৬০ শতাংশে ক্ষেত্রে হাড় বের করে দেওয়া হয়। এককথায় বোনলেস মাংস দেওয়া হয় বাঘকে। তবে খোদ বনমন্ত্রী দীর্ঘায়ু পালন করেছেন রাজার। রাজার কুশল কামনা করছেন বনকর্তা থেকে ডুয়ার্সবাসী সকলেই। সুন্দরবন থেকে এলেও কখন যেন ডুয়ার্সের ঘরের বাঘ হয়ে উঠেছে চিরতরুণ রাজা।

 

বন্ধ করুন