বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > দার্জিলিংকে কম গুরুত্ব দিচ্ছে কেন্দ্র, রাজু মন্ত্রী না হওয়ায় মোদীকে চিঠি লিখলেন বিজেপি বিধায়ক
প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে রাজু সিং বিস্ত (ছবি সৌজন্য ফেসবুক - রাজু বিস্ত)
প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে রাজু সিং বিস্ত (ছবি সৌজন্য ফেসবুক - রাজু বিস্ত)

দার্জিলিংকে কম গুরুত্ব দিচ্ছে কেন্দ্র, রাজু মন্ত্রী না হওয়ায় মোদীকে চিঠি লিখলেন বিজেপি বিধায়ক

দার্জিলিঙের বিজেপি সাংসদ রাজু বিস্ত মন্ত্রী হননি। তাতেই ক্ষোভ প্রকাশ দার্জিলিঙের বিজেপি বিধায়কের।

নরেন্দ্র মোদীর নয়া টিমেও জায়গা পাননি দার্জিলিঙের বিজেপি সাংসদ রাজু বিস্ত। তাঁকে নিয়ে এবার শীর্ষ নেতৃত্বের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিলেন দার্জিলিঙের বিজেপি বিধায়ক নীরজ তামাং জিম্বা।

শুক্রবার তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে এই সংক্রান্ত একটি চিঠি পাঠিয়েছেন। সেখানে তিনি বিজেপি সাংসদকে মন্ত্রিসভা থেকে না নেওয়া নিয়ে ক্ষোভপ্রকাশ করে লিখেছেন, ‘‌ সংশোধিত মন্ত্রিসভা থেকে রাজু বিস্তের মতো যোগ্য প্রতিনিধিকে বাদ দেওয়া এটাই প্রমাণ করছে যে, দার্জিলিংয়ের পাহাড়, তরাই ও ডুয়ার্সের গোর্খা জনজাতির প্রতি কেন্দ্রের গুরুত্বের অভাব রয়েছে। এমনকী তাঁকে মন্ত্রিত্বের সুযোগ থেকে বঞ্চিত করায় ক্ষোভে ফুঁসছেন পাহাড়ের মানুষ। সেক্ষেত্রে শুধু দলীয় কর্মীরাই নিরুৎসাহিত হয়ে পড়েছেন এমনটা নয়, সম্পূর্ণ গোর্খা জনজাতি মনে করছে, বিজেপি তাঁদের দাবিদাওয়াকে কোনওদিনও গুরুত্ব দেয়নি।’‌

নীরজ আঙুল তুলেছেন কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের দিকে। তিনি জানিয়েছেন, রাজনৈতিক সদিচ্ছার অভাবের জন্য গোর্খাদের ১১টি জনগোষ্ঠী আজ পর্যন্ত নিজেদের দাবিদাওয়া পূরণ করতে পারেনি। এমনকী, সাংসদ রাজু বিস্তকে একাধিক বার প্রতিশ্রুতি দিলেও পাহাড়ে কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয় গড়ার দাবিকে নস্যাৎ করে দিয়েছেন কেন্দ্রীয় মনতিনি আরও জানিয়েছেন, দার্জিলিংয়ের পাহাড়, তরাই ও ডুয়ার্সের মানু্ষেরা সাংসদ রাজু বিস্তকে সংশোধিত মন্ত্রিসভায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসেবে দেখতে চাইছেন। কারণ, উত্তরবঙ্গের মানুষের জন্য তিনি নিরলসভাবে কাজ করে গিয়েছেন। তাঁদের দাবিদাওয়া নিয়ে সংসদে দীর্ঘ লড়াই চালিয়ে গিয়েছেন। শুধু তাই নয়, পাহাড়ে দলকে উচ্চ শিখরে পৌঁছে দিয়েছে তিনি। চলতি বছরের বিধানসভা নির্বাচনেও গোর্খা ভোটারদের সমর্থনে দার্জিলিংয়ের ১০০ শতাংশ আসনে দলকে জিতিয়েছেন তিনি। তাঁর জন্যেই উত্তরবঙ্গে ১০টি আসনে জয়লাভ করেছে বিজেপি। অথচ এইরকম একজন যোগ্য নেতার প্রতি অবিচার করা হয়েছে।

বন্ধ করুন