বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > সংশোধনাগারে পৌঁছেই আত্মঘাতী হলেন মেয়েকে যৌন হেনস্থায় অভিযুক্ত বাবা
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

সংশোধনাগারে পৌঁছেই আত্মঘাতী হলেন মেয়েকে যৌন হেনস্থায় অভিযুক্ত বাবা

  • নিহতের মেয়ে নবম শ্রেণির ছাত্রী। শুক্রবার পিসির সঙ্গে নরেন্দ্রপুর থানায় গিয়ে সে বাবার বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ করে।

সংশোধনাগারে আত্মঘাতী হলেন বোড়ালে মেয়েকে যৌন হেনস্থায় অভিযুক্ত বাবা। শনিবার রাতে বারুইপুর সংশোধনাগারের শৌচাগারে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মঘাতী হন তিনি। নিহতের নাম তপন ভাঙর। শনিবারই মেয়েকে লাগাতার যৌন হেনস্থার অভিযোগে তাঁকে গ্রেফতার করেছিল নরেন্দ্রপুর থানার। 

নিহতের মেয়ে নবম শ্রেণির ছাত্রী। শুক্রবার পিসির সঙ্গে নরেন্দ্রপুর থানায় গিয়ে সে বাবার বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ করে। বাবার সঙ্গে বাড়িতে একা থাকতেন কিশোরী। সেই সুযোগে তাঁকে ২ বছর ধরে বাবা যৌন হেনস্থা করেছেন বলে অভিযোগ করে সে। 

অভিযোগের ভিত্তিতে শনিবার বোড়ালের কাজিপাড়া থেকে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তাঁকে বারুইপুর আদালতে পেশ করা হয়। বিচারক অভিযুক্তকে ১৪ দিন জেল হাফাজতের নির্দেশ দেন। বিকেলে অভিযুক্তকে সংশোধনাগারে চালান করে পুলিশ। 

রাতে সেখানেই শৌচাগারে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মঘাতী হন অভিযুক্ত তপন ভাঙর। সকালে তাঁর দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে সংশোধনাগার কর্তৃপক্ষ।

 

বন্ধ করুন