বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ‘‌মানুষের দাবিতে চালু নতুন স্টপেজ’‌, কাঞ্চনকন্যা নিয়ে চাপের কথা স্বীকার সাংসদের

‘‌মানুষের দাবিতে চালু নতুন স্টপেজ’‌, কাঞ্চনকন্যা নিয়ে চাপের কথা স্বীকার সাংসদের

দার্জিলিং লোকসভার সাংসদ রাজু বিস্তা।

আগে এখানে কাঞ্চনকন্যা এক্সপ্রেস দাঁড়াত না বলে অভিযোগ মানুষের। তা নিয়ে জোরদার আন্দোলন শুরু হয়েছিল। বারবার সাংসদের কাছে জানানো থেকে রেল কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ—সবই করা হয়েছিল। যদিও লাভ হচ্ছিল না। তবে এই দাবিতে অনড় ছিলেন মানুষজন। মানুষের দাবির চাপেই এটা সম্ভব হয়েছে কার্যত স্বীকার করে নেন রাজু বিস্তা।

বহু প্রতীক্ষার পর কাঞ্চনকন্যা এক্সপ্রেসের নতুন স্টপেজের সূচনা হল নকশালবাড়ি রেল স্টেশনে। আজ, শনিবার শিয়ালদা–আলিপুরদুয়ারগামী কাঞ্চনকন্যা এক্সপ্রেসের নতুন স্টপেজ উদ্বোধন করলেন দার্জিলিং লোকসভার সাংসদ রাজু বিস্তা। সেখানে উপস্থিত ছিলেন মাটিগাড়া–নকশালবাড়ির বিধায়ক আনন্দময় বর্মণ, এডিআরএম এনজেপি সঞ্জয় চিল বারবার–সহ রেলের আধিকারিক, নকশালবাড়ি ব্যবসায়ী সমিতি এবং বিভিন্ন সংগঠনের সদস্যরা। এখানেই মানুষের দাবির চাপেই এটা সম্ভব হয়েছে সেটা কার্যত স্বীকার করে নেন রাজু বিস্তা।

এদিকে এই নতুন স্টপেজের সূচনা হওয়ায় খুশি এলাকার মানুষজন। তাই এডিআরএম সঞ্জয় চিল বারবার সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘‌একমাসের জন্য পরীক্ষামূলকভাবে কাঞ্চনকন্যা এক্সপ্রেস স্টপেজ দেওয়া হল। টিকিট বিক্রি ও যাত্রী ওঠানামার ওপর লক্ষ্য রেখে পরবর্তীতে প্রভাব থাকলে অন্যান্য ট্রেনেরও স্টপেজ দেওয়া হবে।’‌ আগে এখানে কাঞ্চনকন্যা এক্সপ্রেস দাঁড়াত না বলে অভিযোগ মানুষের। আর তা নিয়ে জোরদার আন্দোলন শুরু হয়েছিল। এমনকী বারবার সাংসদের কাছে জানানো থেকে রেল কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ—সবই করা হয়েছিল। যদিও তাতে কোনও লাভ হচ্ছিল না। তবে এই দাবিতে অনড় ছিলেন মানুষজন।

এই আন্দোলনে সাফল্য মেলায় এনজেপি–গুয়াহাটি বন্দে ভারত এক্সপ্রেস চালু হলে নিউ কোচবিহারে স্টপেজ দেওয়ার দাবি উঠেছে। সূত্রের খবর, আগামী ২৯ মে এনজেপি–গুয়াহাটি বন্দে ভারত এক্সপ্রেস চালু হবে। নিউ কোচবিহারে এখনও পর্যন্ত ওই ট্রেনের স্টপেজ নেই। ইতিমধ্যেই দু’বার এই রুটে বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের ট্রায়াল রান হয়েছে। প্রথম ট্রায়াল রানের দিন নিউ কোচবিহারে বন্দে ভারত এক্সপ্রেস দাঁড়ায়নি। তাতে কোচবিহারের বাসিন্দারা বুঝতে পারেন নিউ কোচবিহারে এই ট্রেনের স্টপেজ নেই। তারপর ওই স্টেশনে স্টপের দাবিতে রেল কর্তৃপক্ষের কাছে প্রস্তাব পাঠায় স্থানীয় মানুষজন। তবে সেটা হয় কিনা সেটাই দেখার।

ঠিক কী বলছেন দার্জিলিং লোকসভার সাংসদ?‌ আজ, শনিবার কাঞ্চনকন্যা এক্সপ্রেসের নতুন স্টপেজের সূচনা হতেই মানুষ খুশিতে মেতে উঠেছেন। এই বিষয়ে সাংসদ রাজু বিস্তা বলেন, ‘‌নকশালবাড়ি স্টেশন একটি ঐতিহাসিক স্টেশন। মানুষের দাবিকে খেয়াল করে কাঞ্চনকন্যার স্টপেজ দেওয়া হল। তার জেরে সাধারণ মানুষ থেকে স্থানীয় ব্যবসায়ী, নেপাল থেকে আসা যাত্রী এবং একাধিক পড়ুয়াদের সুবিধা হবে। এই নতুন স্টপেজ উপকারে আসবে।’‌ তবে কাঞ্চনকন্যা এক্সপ্রেসের উপর নির্ভর করে আগামী দিনে দিল্লিগামী ট্রেনের স্টপেজ নিয়ে লক্ষ্য রাখা হবে বলে রেল সূত্রে খবর।

বন্ধ করুন