বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Malda: মালদায় সাপ নিয়ে সচেতন করতে গিয়েই বিপদ! ছোবলে মৃত্যু সর্পপ্রেমীর
সাপের ছোবলে মৃত্যু। প্রতীকী ছবি।
সাপের ছোবলে মৃত্যু। প্রতীকী ছবি।

Malda: মালদায় সাপ নিয়ে সচেতন করতে গিয়েই বিপদ! ছোবলে মৃত্যু সর্পপ্রেমীর

  • তিনি দেবীগঞ্জ এলাকারই বাসিন্দা। সাপে ছোবল দেওয়ার পরেই তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তার দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে।

সাপ নিয়ে সচেতন করতে গিয়ে মর্মান্তিক পরিণতি হল এক সর্পপ্রেমীর। সাপের ছোবলে ওই সর্প প্রেমীর মৃত্যু হল। ঘটনাটি মালদার চাঁচলের দেবীগঞ্জ এলাকার। মৃত ব্যক্তির নাম হরিপদ সরকার (৫৬)। তিনি দেবীগঞ্জ এলাকারই বাসিন্দা। সাপে ছোবল দেওয়ার পরেই তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তার দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, সম্প্রতি এলাকায় সাপের উপদ্রব বেড়েছে। গরম বাড়ার ফলে জঙ্গল থেকে বিষধর সাপ চলে আসছে লোকালয়ে। মঙ্গলবার একটি বিশাল গোখরো সাপ ঢুকে পড়েছিল স্থানীয় ডিলার নিতাই সাহার বাড়িতে। এর ফলে বাড়ির সকলেই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। এরপর খবর দেওয়া হয় সর্প প্রেমী হরিপদকে। খবর পাওয়ার পরেই তিনি রেশন ডিলারের বাড়ি পৌঁছে যান এবং সাপটিকে ধরে ফেলেন। সেই সময় পর্যন্ত কোনও দুর্ঘটনা ঘটেনি। তবে সাপটিকে বাড়ি থেকে ধরার পর মানুষকে সচেতন করতে গিয়েই ঘটে বিপত্তি।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বক্তব্য, সাপ ধরার পর তিনি সাপের খেলা সহ সাপ নিয়ে বিভিন্নভাবে মানুষকে সচেতন করছিলেন সেই সময় গোখরো সাপটি তার পায়ে ছোবল বসিয়ে দেয়। ঘটনায় স্থানীয়রা দ্রুত হরিপদকে চাঁচল সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে নিয়ে গিয়েও তাকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি। চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এখন প্রশ্ন উঠেছে ওই ব্যক্তির সাপ ধারার কোনও প্রশিক্ষণ ছিল কিনা। উল্লেখ্য, গত বছরেই ইংরেজবাজার থানার শোভানগরে সাপ ধরতে গিয়ে এক সর্পপ্রেমীর মৃত্যু হয়েছিল সাপের ছোবলে।

বন্ধ করুন