বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Train Blockade in Sealdah Division: অবরোধের জেরে শিয়ালদা মেন শাখায় থমকে ট্রেনের চাকা, চরম ভোগান্তি অফিসটাইমে

Train Blockade in Sealdah Division: অবরোধের জেরে শিয়ালদা মেন শাখায় থমকে ট্রেনের চাকা, চরম ভোগান্তি অফিসটাইমে

লোকাল ট্রেন, প্রতীকি ছবি।

Sealdah Division Train Service: অফিসটাইমে শিয়ালদা মেন শাখায় থমকে গিয়েছে ট্রেনের চাকা। এর জেরে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে অফিসযাত্রীদের। বৃষ্টি, ভ্যাপসা গরমের মধ্যে দাঁড়িয়ে থাকতে হচ্ছে ভিড় ট্রেনে। 

রেল ওভারব্রিজের দবিতে প্রতিবাদ, অবরোধ ব্যারাকপুর স্টেশনে। স্থানীয়দের এই আন্দোলনের জেরে গোটা শিয়ালদা শাখা প্রায় থমকে গেল। সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবসে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে নিত্যযাত্রীদের। জানা গিয়েছে, স্টেশনের ফুট ওভারব্রিজ সম্প্রসারণের দাবি তুলেছেন স্থানীয়রা। আর সেই দাবি থেকেই রেল অবরোধ শুরু হয়েছে। এর জেরে অফিসযাত্রীদের মাথায় হাত পড়েছে। বহুক্ষণ ধরে ট্রেনগুলি দাঁড়িয়ে রয়েছে। এদিকে আন্দোলনকারীরাও নিজেদের দাবিতে অনড়। স্থানীয়দের সুরক্ষার স্বার্থে এই ফুট ওভারব্রিজ সম্প্রসারণ অত্যাবশ্যক বলে জানাচ্ছেন অবরোধকারীরা। এদিকে অবরোধকারীদের সঙ্গে কথা বলে সমস্যা মেটানোর চেষ্টা করেন রেল কর্তারা। (আরও পড়ুন: আগুন লাগল মোদীর সাধের বন্দে ভারতে, যাত্রীদের চোখেমুখে আতঙ্কের ছাপ, ভাইরাল ভিডিয়ো)

অবরোধকারীরা জানিয়েছেন, ২০২০ সালের আমফান ঘূর্ণিঝড়ের জেরে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল ব্যারাকপুর রেল স্টেশনের মাঝখানে থাকা ফুট ওভারব্রিজটি। এরপর নয় ফুট ওভারব্রিজ তৈরির পরিকল্পনা নেয় রেল। পুরনো ক্ষতিগ্রস্ত ফুট ওভারব্রিজটি ভেঙে ফেলা হয়। তবে নতুন ফুট ওভারব্রিজটি নতুন করে বানানো হয়নি বিগত তিন বছরেও। এই আবহে ব্যারাকপুর স্টেশনের নিত্যযাত্রীরা সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রেললাইন পার করতে হয়। এই আবহে ওভারব্রিজের দাবিতে আজ অবরোধ শুরু করেছে 'নাগরিক প্রতিরোধ মঞ্চ'। মঞ্চের বহু সদস্য রেললাইনে দাঁড়িয়ে পড়েন। এর জেরে অফিসটাইমে ব্যাহত হয় লোকাল ট্রেন পরিষেবা। সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবসে সময়মতো অফিসে পৌঁছতে পারেননি অনেকেই। (আরও পড়ুন: ঢাকার বুড়িগঙ্গা নদীতে ডুবল ‘ওয়াটার বাস’, মৃত অন্তত ৪, উঠছে বহু প্রশ্ন)

আরও পড়ুন: কলকাতা-ব্যাংকক মহাসড়ক চালু কবে? জটিলতা কাটাতে ময়দানে খোদ জয়শংকর

আজ সকাল ৮ থেকে ব্যারাকপুর স্টেশন চত্ত্বরে জমায়েত করেন 'নাগরিক প্রতিরোধ মঞ্চ'-এর সদস্যরা। এরপর ১৪ নম্বর গেটে অবরোধ শুরু করেন তাঁরা। এর জেরে শিয়ালদা-কৃষ্ণনগর মেন লাইনে বন্ধ হয়ে যায় ট্রেন চলাচল। যার জেরে অফিসযাত্রীদের চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। এই আবহে রেল পুলিশের আধিকারিকেরা গিয়ে অবরোধকারীদের সঙ্গে কথা বলেন। তাঁদের এই অবরোধ প্রত্যাহারের আবেদন জানানো হয়। পরে আন্দোলকারীরা ব্যারাকপুরের স্টেশন ম্যানেজারের ঘরের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। স্টেশন ম্যানেজারকে ওভারব্রিজের দাবি জানিয়ে স্মারকলিপিও জমা দেন।

বন্ধ করুন