বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > NEP 2020: ধ্রুপদী ভাষার তালিকায় নেই বাংলা, প্রতিবাদে সরব হতে মমতাকে চিঠি অধীরের
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

NEP 2020: ধ্রুপদী ভাষার তালিকায় নেই বাংলা, প্রতিবাদে সরব হতে মমতাকে চিঠি অধীরের

  • কেন্দ্রের এই বাংলাবিরোধী সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে পশ্চিমবঙ্গে প্রতিবাদ গড়ে তুলতে মুখ্যমন্ত্রীকে আবেদন জানিয়েছেন অধীর।

বরাবরই কেন্দ্রের বঞ্চনার শিকার পশ্চিমবঙ্গ। এবার বাংলা ভাষাকেই ব্রাত্য করে দেওয়ার অভিযোগ উঠল কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে। নতুন জাতীয় শিক্ষানীতির (NEP 2020) ধ্রুপদী ভাষার (‌Classical Language) তালিকায় স্থান পায়নি বাংলা ভাষা। যা নিয়ে ইতিমধ্যে সরব হয়েছেন কংগ্রেসের সংসদীয় দলনেতা অধীর চৌধুরি। এবার তিনি চান, এ ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করুক পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

রবিবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে একটি চিঠিও পাঠিয়েছেন অধীর চৌধুরি। সেই চিঠির বাংলা ও ইংরেজি ভাষার প্রতিলিপি আপলোড করে টুইটও করেছেন তিনি। কেন্দ্রের এই বাংলাবিরোধী সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে পশ্চিমবঙ্গে প্রতিবাদ গড়ে তুলতে মুখ্যমন্ত্রীকে আবেদন জানিয়েছেন অধীর।

প্রাক্তন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি আগেই এ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি দিয়েছেন। ২২ শ্রাবণ বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রয়াণ দিবসের দিন বাংলা ভাষার প্রতি তাঁর অবদানের কথা প্রধানমন্ত্রীর দরবারে তুলে ধরেন অধীর।

কংগ্রেসের সংসদীয় দলনেতা অধীর চৌধুরি সংসদে প্রশ্ন তোলেন, সংস্কৃত ও হিন্দির পাশাপাশি নতুন শিক্ষানীতিতে ধ্রুপদী ভাষা হিসেবে গণ্য হয়েছে তামিল, তেলুগু, কন্নড়, মালয়ালম ও ওড়িয়া। কিন্তু ভারতের জাতীয় সঙ্গীত যে ভাষায় রচিত সেই ভাষাকেই ব্রাত্য করা হল?‌ অধীরের পাশাপাশি এই প্রশ্নে এখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও সুর চড়ান কিনা সেটাই জানতে চাইছে রাজ্যবাসী।

বন্ধ করুন